মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১১:৩৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, December 29, 2016 9:38 am
A- A A+ Print

ব্রিটেনে মুসলিম তরুণদের ওপর চলছে ‘নজরদারি’

%e0%a7%af

ব্রিটেনে জঙ্গিবাদ রোধে প্রধানত মুসলিম কিশোর-তরুণদের ওপর নজরদারির এক বিতর্কিত ব্যবস্থাকে জোরালোভাবে সমর্থন করেছেন সিনিয়র একজন পুলিশ কর্মকর্তা।
ব্রিটেনের লেস্টারশায়ার পুলিশের প্রধান কনস্টেবল সাইমন কোল বলেছেন, প্রিভেন্ট কর্মসূচিকে ‘গোয়েন্দাগিরি’ তকমা দিয়ে অনর্থক বিতর্কিত করা হচ্ছে। তিনি বলেন, জঙ্গিবাদ রুখতে দারুণভাবে কাজে লাগছে এ কর্মসূচি। খবর বিবিসির। প্রিভেন্ট কর্মসূচির আওতায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে, মসজিদে, হাসপাতালে, খেলার মাঠে কিশোর, তরুণ, যুবকদের ওপর নজরদারি রাখা হচ্ছে। তাদের আচরণে সন্দেহজনক কিছু দেখলে তা পুলিশকে এবং অভিভাবকদের জানানো হচ্ছে। অনেক রাজনীতিক, শিক্ষক এবং মুসলমানদের প্রধান একটি সংগঠন মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেন এ কর্মসূচির প্রতিবাদ করছে। তাদের বক্তব্য এতে মুসলিম সম্প্রদায়কে মনস্তাত্ত্বিকভাবে বিচ্ছিন্ন করে ফেলা হচ্ছে, যা জঙ্গিবাদ দমনের লড়াইয়ে উল্টো ফল দেবে। তবে সাইমন কোল বলছেন, প্রিভেন্টকে ভুল ভাবে ব্যাখ্যা করা হচ্ছে। আমরা তরুণদের মনোভাব বদলের চেষ্টা করছি, তাদের সামনে সুযোগ তুলে ধরছি যাতে তারা বিপজ্জনক সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে ভালো সিদ্ধান্ত নিতে পারে। প্রিভেন্ট কর্মসূচির আওতায় গত এক বছরে ৭ হাজার ৫০০ কিশোর-তরুণ-যুবককে ‘রেফার’ করা হয়েছে অর্থাৎ কট্টর মনোভাব ধারণ করার সন্দেহে তাদের সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। পুলিশের হিসাবে তাদের ১০ শতাংশ জঙ্গিবাদে জড়ানোর বড় ধরনের ঝুঁকিতে ছিল। কর্মকর্তারা দাবি করছেন, প্রিভেন্ট কর্মসূচির কারণে সিরিয়ায় এবং ইরাকে গিয়ে আইএসের পক্ষে যুদ্ধ করার জন্য অন্তত দেড়শ’টি উদ্যোগ ঠেকানো সম্ভব হয়েছে।
 

Comments

Comments!

 ব্রিটেনে মুসলিম তরুণদের ওপর চলছে ‘নজরদারি’AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ব্রিটেনে মুসলিম তরুণদের ওপর চলছে ‘নজরদারি’

Thursday, December 29, 2016 9:38 am
%e0%a7%af
ব্রিটেনে জঙ্গিবাদ রোধে প্রধানত মুসলিম কিশোর-তরুণদের ওপর নজরদারির এক বিতর্কিত ব্যবস্থাকে জোরালোভাবে সমর্থন করেছেন সিনিয়র একজন পুলিশ কর্মকর্তা।

ব্রিটেনের লেস্টারশায়ার পুলিশের প্রধান কনস্টেবল সাইমন কোল বলেছেন, প্রিভেন্ট কর্মসূচিকে ‘গোয়েন্দাগিরি’ তকমা দিয়ে অনর্থক বিতর্কিত করা হচ্ছে। তিনি বলেন, জঙ্গিবাদ রুখতে দারুণভাবে কাজে লাগছে এ কর্মসূচি। খবর বিবিসির।

প্রিভেন্ট কর্মসূচির আওতায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে, মসজিদে, হাসপাতালে, খেলার মাঠে কিশোর, তরুণ, যুবকদের ওপর নজরদারি রাখা হচ্ছে। তাদের আচরণে সন্দেহজনক কিছু দেখলে তা পুলিশকে এবং অভিভাবকদের জানানো হচ্ছে।

অনেক রাজনীতিক, শিক্ষক এবং মুসলমানদের প্রধান একটি সংগঠন মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেন এ কর্মসূচির প্রতিবাদ করছে। তাদের বক্তব্য এতে মুসলিম সম্প্রদায়কে মনস্তাত্ত্বিকভাবে বিচ্ছিন্ন করে ফেলা হচ্ছে, যা জঙ্গিবাদ দমনের লড়াইয়ে উল্টো ফল দেবে।

তবে সাইমন কোল বলছেন, প্রিভেন্টকে ভুল ভাবে ব্যাখ্যা করা হচ্ছে। আমরা তরুণদের মনোভাব বদলের চেষ্টা করছি, তাদের সামনে সুযোগ তুলে ধরছি যাতে তারা বিপজ্জনক সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে ভালো সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

প্রিভেন্ট কর্মসূচির আওতায় গত এক বছরে ৭ হাজার ৫০০ কিশোর-তরুণ-যুবককে ‘রেফার’ করা হয়েছে অর্থাৎ কট্টর মনোভাব ধারণ করার সন্দেহে তাদের সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

পুলিশের হিসাবে তাদের ১০ শতাংশ জঙ্গিবাদে জড়ানোর বড় ধরনের ঝুঁকিতে ছিল। কর্মকর্তারা দাবি করছেন, প্রিভেন্ট কর্মসূচির কারণে সিরিয়ায় এবং ইরাকে গিয়ে আইএসের পক্ষে যুদ্ধ করার জন্য অন্তত দেড়শ’টি উদ্যোগ ঠেকানো সম্ভব হয়েছে।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X