বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সন্ধ্যা ৬:২১
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, May 21, 2017 10:22 am
A- A A+ Print

বড় জয়ে কিউইদের হারানোর আত্মবিশ্বাস

6

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়া প্রথম ম্যাচ, তারপর নিউজিল্যান্ডের কাছে হার। ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম দুটি ম্যাচে যে বাংলাদেশকে দেখা গিয়েছিল, সেই বাংলাদেশই পরশু ডাবলিনের মালাহাইডে একেবারে অন্য চেহারায়। ফিরতি ম্যাচে বাংলাদেশের কাছে উড়ে গেল আইরিশরা। ২২.৫ ওভার বাকি থাকতে ৮ উইকেটে জয়। স্বাগতিক প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে দেওয়া জয়ই তো পেল মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। দুর্দান্ত জয়টা আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছে। কিন্তু এতে একটা আফসোসও হচ্ছে মাশরাফির। এমনটা খেলতে পারলে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আগের ম্যাচটাও জেতা যেত! তবে আগের ম্যাচে হয়নি তো হয়নি। ফিরতি ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ অধিনায়ক। টসে জিতে ফিল্ডিং নেওয়ার পর আয়ারল্যান্ডকে ১৮১ রানে গুটিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। মালাহাইডের কন্ডিশনে টস জেতাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল বলেই মনে করেন মাশরাফি। তবে সেই কন্ডিশনের সুবিধা নিতে পারার কৃতিত্ব দিয়েছেন তাঁর বোলারদের, ‘নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আমরা শুরুর দিকে উইকেট ফেলতে পারিনি। কিন্তু আজ (পরশু) আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বোলাররা ঠিক সেই কাজটাই সাফল্যের সঙ্গে করেছে। বোলারদের কাছ থেকে আমরা এমন কিছুই সব সময় চাই।’ নিজের প্রথম ওভারের তৃতীয় বলে পল স্টার্লিংকে ফিরিয়ে ধ্বংসযজ্ঞের শুরুটা করেন মোস্তাফিজুর রহমান। রুবেল হোসেন উইকেট না পেলেও নিজের পেস ও বাউন্স দিয়ে আয়ারল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের ঠিকই সমস্যায় ফেলেছেন। যোগ্য সঙ্গ দিয়েছেন সাকিব আল হাসান, মোসাদ্দেক হোসেন ও অভিষিক্ত সানজামুল ইসলাম। দ্বিতীয় স্পেলে মোস্তাফিজ ছিলেন আরও ভয়ংকর! সব মিলিয়ে ৯ ওভারে মাত্র ২৩ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়ে হয়েছেন ম্যাচসেরাও। অধিনায়ক নিজেও করেছেন দারুণ বোলিং (২/১৮)। তবে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মাশরাফি মোস্তাফিজকে নিয়ে মুগ্ধতার কথাই বলেছেন বেশি করে, ‘মোস্তাফিজ দারুণ বোলিং করেছে। শুধু এই ম্যাচে নয়, আড়াই বছর ধরে ও আমাদের জন্য খুব ভালো করছে। আশা করি, ও এটা ধরে রাখবে। এখনো ওকে অনেক দূর যেতে হবে।’ বাংলাদেশ ম্যাচ বের করে নিয়েছে ২৭.১ ওভারে। তামিম ইকবাল-সৌম্য সরকার-সাব্বির রহমান, ব্যাট হাতে দলের জয়ে ভূমিকা রেখেছেন সবাই। সৌম্যর ব্যাটিং সব সময়ই দৃষ্টিসুখকর হয়। এদিনও দারুণ খেলেছেন। তবে অন্যদিনের সঙ্গে তাঁর কালকের ব্যাটিংয়ের ব্যবধান হলো, এবার তিনি ম্যাচের শেষ টানতে পেরেছেন নিজের হাতে। ৬৮ বলে ১১টি চার ও ২টি ছয়ে ৮৭ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়েই ফিরেছেন বাঁহাতি ওপেনার। তামিমের ৫৪ বলে ৪৭ রানের ইনিংসে ৬টি চার। অধিনায়কের মুখে অবশ্য দুই ওপেনারেরই প্রশংসা, ‘দ্রুত উইকেট পড়ে গেলে যেকোনো দলই সমস্যায় পড়ে। তবে তামিম আর সৌম্য ইনিংসের প্রথম ১০ ওভারে ওভারপ্রতি ৭ রান করে নিয়ে আমাদের কাজটা অনেকটাই সহজ করে দিয়েছে।’ আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বড় জয় তুলে নিয়ে মাশরাফির দৃষ্টি এখন নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচটির দিকে। আগামী বুধবার সেই ম্যাচে জয় চান অধিনায়ক, ‘আমরা নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পরের ম্যাচে জিততে চাই। এর আগের ম্যাচেই আমাদের জয়ের সুযোগ ছিল। কিন্তু পারিনি। তবে আমি মনে করি, আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে আমরা আজ (পরশু) যেভাবে খেললাম, সেভাবে খেলতে পারলে আমরা নিউজিল্যান্ডকেও পরের ম্যাচে হারাতে পারব।’ এএফপি।

Comments

Comments!

 বড় জয়ে কিউইদের হারানোর আত্মবিশ্বাসAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বড় জয়ে কিউইদের হারানোর আত্মবিশ্বাস

Sunday, May 21, 2017 10:22 am
6

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়া প্রথম ম্যাচ, তারপর নিউজিল্যান্ডের কাছে হার। ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম দুটি ম্যাচে যে বাংলাদেশকে দেখা গিয়েছিল, সেই বাংলাদেশই পরশু ডাবলিনের মালাহাইডে একেবারে অন্য চেহারায়। ফিরতি ম্যাচে বাংলাদেশের কাছে উড়ে গেল আইরিশরা। ২২.৫ ওভার বাকি থাকতে ৮ উইকেটে জয়। স্বাগতিক প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে দেওয়া জয়ই তো পেল মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। দুর্দান্ত জয়টা আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছে। কিন্তু এতে একটা আফসোসও হচ্ছে মাশরাফির। এমনটা খেলতে পারলে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আগের ম্যাচটাও জেতা যেত! তবে আগের ম্যাচে হয়নি তো হয়নি। ফিরতি ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ অধিনায়ক।
টসে জিতে ফিল্ডিং নেওয়ার পর আয়ারল্যান্ডকে ১৮১ রানে গুটিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। মালাহাইডের কন্ডিশনে টস জেতাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল বলেই মনে করেন মাশরাফি। তবে সেই কন্ডিশনের সুবিধা নিতে পারার কৃতিত্ব দিয়েছেন তাঁর বোলারদের, ‘নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আমরা শুরুর দিকে উইকেট ফেলতে পারিনি। কিন্তু আজ (পরশু) আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বোলাররা ঠিক সেই কাজটাই সাফল্যের সঙ্গে করেছে। বোলারদের কাছ থেকে আমরা এমন কিছুই সব সময় চাই।’
নিজের প্রথম ওভারের তৃতীয় বলে পল স্টার্লিংকে ফিরিয়ে ধ্বংসযজ্ঞের শুরুটা করেন মোস্তাফিজুর রহমান। রুবেল হোসেন উইকেট না পেলেও নিজের পেস ও বাউন্স দিয়ে আয়ারল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের ঠিকই সমস্যায় ফেলেছেন। যোগ্য সঙ্গ দিয়েছেন সাকিব আল হাসান, মোসাদ্দেক হোসেন ও অভিষিক্ত সানজামুল ইসলাম। দ্বিতীয় স্পেলে মোস্তাফিজ ছিলেন আরও ভয়ংকর! সব মিলিয়ে ৯ ওভারে মাত্র ২৩ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়ে হয়েছেন ম্যাচসেরাও। অধিনায়ক নিজেও করেছেন দারুণ বোলিং (২/১৮)। তবে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মাশরাফি মোস্তাফিজকে নিয়ে মুগ্ধতার কথাই বলেছেন বেশি করে, ‘মোস্তাফিজ দারুণ বোলিং করেছে। শুধু এই ম্যাচে নয়, আড়াই বছর ধরে ও আমাদের জন্য খুব ভালো করছে। আশা করি, ও এটা ধরে রাখবে। এখনো ওকে অনেক দূর যেতে হবে।’
বাংলাদেশ ম্যাচ বের করে নিয়েছে ২৭.১ ওভারে। তামিম ইকবাল-সৌম্য সরকার-সাব্বির রহমান, ব্যাট হাতে দলের জয়ে ভূমিকা রেখেছেন সবাই। সৌম্যর ব্যাটিং সব সময়ই দৃষ্টিসুখকর হয়। এদিনও দারুণ খেলেছেন। তবে অন্যদিনের সঙ্গে তাঁর কালকের ব্যাটিংয়ের ব্যবধান হলো, এবার তিনি ম্যাচের শেষ টানতে পেরেছেন নিজের হাতে। ৬৮ বলে ১১টি চার ও ২টি ছয়ে ৮৭ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়েই ফিরেছেন বাঁহাতি ওপেনার। তামিমের ৫৪ বলে ৪৭ রানের ইনিংসে ৬টি চার। অধিনায়কের মুখে অবশ্য দুই ওপেনারেরই প্রশংসা, ‘দ্রুত উইকেট পড়ে গেলে যেকোনো দলই সমস্যায় পড়ে। তবে তামিম আর সৌম্য ইনিংসের প্রথম ১০ ওভারে ওভারপ্রতি ৭ রান করে নিয়ে আমাদের কাজটা অনেকটাই সহজ করে দিয়েছে।’
আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বড় জয় তুলে নিয়ে মাশরাফির দৃষ্টি এখন নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচটির দিকে। আগামী বুধবার সেই ম্যাচে জয় চান অধিনায়ক, ‘আমরা নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পরের ম্যাচে জিততে চাই। এর আগের ম্যাচেই আমাদের জয়ের সুযোগ ছিল। কিন্তু পারিনি। তবে আমি মনে করি, আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে আমরা আজ (পরশু) যেভাবে খেললাম, সেভাবে খেলতে পারলে আমরা নিউজিল্যান্ডকেও পরের ম্যাচে হারাতে পারব।’ এএফপি।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X