শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১০:০৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, June 20, 2017 11:47 pm
A- A A+ Print

ভারতের সেই বিচারপতি গ্রেপ্তার

India_12320170620215008

অবশেষে গ্রেপ্তার হলেন আত্মগোপনে থাকা ও দণ্ডপ্রাপ্ত কলকাতা হাইকোর্টের সেই বিচারপতি সিএস কারনান। সম্প্রতি ভারতের বিচার বিভাগে তোলপাড় সৃষ্টি করেন তিনি। ২০ বিচারপতির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আনেন বিচারপতি কারনান। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ বেশ কয়েকজন শীর্ষ কর্মকর্তার কাছে চিঠি দিয়ে তার অভিযোগ জানান এবং তাদের বিরুদ্ধে তদন্তের ব্যবস্থা করতে অনুরোধ করেন। বিচারপতিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলার পর কারনানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা হয়। এ মামলার শুনানি শেষে ভারতের প্রধান বিচারপতি জগদীশ সিং খেহারসহ সুপ্রিম কোর্টের সাত সদস্যের বেঞ্চ বিচারপতি কারনানকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেন। ভারতের বিচার বিভাগের ইতিহাসে দায়িত্বে থাকা অবস্থায় কোনো বিচারপতির কারাদণ্ড হওয়ার ঘটনা এটিই প্রথম। বিচারপতি কারনান দণ্ড মওকুফের জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেন কিন্তু তা প্রত্যাখ্যাত হয়। মঙ্গলবার তামিলনাড়ু রাজ্যের কোইমবাতোর থেকে গ্রেপ্তার করা হয় কারনানকে। তাকে চেন্নাইনে নেওয়া হয়েছে। সেখানে থেকে কলকাতা পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হবে এবং তাকে কলকাতায় এনে সরাসরি কারাগারে ঢোকানো হবে। ৯ মে সুপ্রিম কোর্ট তাকে ছয় মাসের কারাদাণ্ড দিলে আত্মগোপন করেন বিচারপতি কারনান। তার অবস্থান নিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যমে বিভ্রান্তিকর তথ্য আসতে থাকে। তবে পুলিশ বলেছিল, তিনি তামিলনাড়ুতে আছেন। কারনানের আইনজীবীও এমন ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। কিন্তু তার গোপন আস্তানার সন্ধান করতে পুলিশের প্রায় দেড় মাস লেগে গেল। শেষ পর্যন্ত তামিলনাড়ুর পুলিশের সহায়তা নিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করল কলকাতা পুলিশ। বিচারপতি কারনান ১২ জুন অবসরে গেছেন। এখন দায়িত্ব পালনরত বিচারপতি হিসেবে গ্রেপ্তার এড়ানোরও সুযোগ নেই তার। ফলে ছয় মাস শ্রীঘরে কাটাতে হবে তাকে। তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া ও এনডিটিভি অনলাইন

Comments

Comments!

 ভারতের সেই বিচারপতি গ্রেপ্তারAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ভারতের সেই বিচারপতি গ্রেপ্তার

Tuesday, June 20, 2017 11:47 pm
India_12320170620215008

অবশেষে গ্রেপ্তার হলেন আত্মগোপনে থাকা ও দণ্ডপ্রাপ্ত কলকাতা হাইকোর্টের সেই বিচারপতি সিএস কারনান।

সম্প্রতি ভারতের বিচার বিভাগে তোলপাড় সৃষ্টি করেন তিনি। ২০ বিচারপতির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আনেন বিচারপতি কারনান। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ বেশ কয়েকজন শীর্ষ কর্মকর্তার কাছে চিঠি দিয়ে তার অভিযোগ জানান এবং তাদের বিরুদ্ধে তদন্তের ব্যবস্থা করতে অনুরোধ করেন।

বিচারপতিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলার পর কারনানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা হয়। এ মামলার শুনানি শেষে ভারতের প্রধান বিচারপতি জগদীশ সিং খেহারসহ সুপ্রিম কোর্টের সাত সদস্যের বেঞ্চ বিচারপতি কারনানকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেন।

ভারতের বিচার বিভাগের ইতিহাসে দায়িত্বে থাকা অবস্থায় কোনো বিচারপতির কারাদণ্ড হওয়ার ঘটনা এটিই প্রথম। বিচারপতি কারনান দণ্ড মওকুফের জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেন কিন্তু তা প্রত্যাখ্যাত হয়।

মঙ্গলবার তামিলনাড়ু রাজ্যের কোইমবাতোর থেকে গ্রেপ্তার করা হয় কারনানকে। তাকে চেন্নাইনে নেওয়া হয়েছে। সেখানে থেকে কলকাতা পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হবে এবং তাকে কলকাতায় এনে সরাসরি কারাগারে ঢোকানো হবে।

৯ মে সুপ্রিম কোর্ট তাকে ছয় মাসের কারাদাণ্ড দিলে আত্মগোপন করেন বিচারপতি কারনান। তার অবস্থান নিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যমে বিভ্রান্তিকর তথ্য আসতে থাকে। তবে পুলিশ বলেছিল, তিনি তামিলনাড়ুতে আছেন। কারনানের আইনজীবীও এমন ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। কিন্তু তার গোপন আস্তানার সন্ধান করতে পুলিশের প্রায় দেড় মাস লেগে গেল। শেষ পর্যন্ত তামিলনাড়ুর পুলিশের সহায়তা নিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করল কলকাতা পুলিশ।

বিচারপতি কারনান ১২ জুন অবসরে গেছেন। এখন দায়িত্ব পালনরত বিচারপতি হিসেবে গ্রেপ্তার এড়ানোরও সুযোগ নেই তার। ফলে ছয় মাস শ্রীঘরে কাটাতে হবে তাকে।

তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া ও এনডিটিভি অনলাইন

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X