সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৪:১২
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, May 3, 2017 8:52 pm
A- A A+ Print

ভারত সফরকালে স্বাক্ষরিত সব চুক্তি/সমঝোতা স্মারকের শিরোনাম গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

১০

‘যেখানে যে সমঝোতা স্মারক বা চুক্তি সই করি তার সবকিছুই বাংলাদেশের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করতেই করি। আওয়ামী লীগ সরকার দেশের স্বার্থবিরোধী কোনো চুক্তি করবে না’ বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার বিকেলে জাতীয় সংসদের ১৫তম অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। বিরোধী দলীয় সংসদ সদস্য ফখরুল ইমামের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি যা কিছুই করেছি, জনগণের স্বার্থে, জনগণের কল্যাণে এবং দেশের উন্নয়নে। শুধু ভারত কেন পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের সঙ্গেও তাই করেছি।’ প্রধানমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ এমন একটি অবস্থানে রয়েছে, বিশেষ করে পররাষ্ট্রনীতির বেলায়। জাতির পিতা আমাদের শিখিয়েছেন, সকলের সঙ্গে বন্ধুত্ব কারো সঙ্গে বৈরিতা নয়। আমরা ঠিক সেই নীতিমালা অনুসরণ করে বর্তমান বিশ্বের প্রতিটি দেশের সঙ্গে একটা বন্ধুত্বপূর্ণ বজায় রেখে এগিয়ে চলছি। দেশের উন্নয়নে আমি বিভিন্ন দেশে রাষ্ট্রীয় সফর করি, সেখানে সমঝোতা স্বাক্ষর অথবা চুক্তি সই করি। তা-ই যা কিছু করি, বাংলাদেশের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করতে, বাংলাদেশের মানুষকে সুন্দর জীবন দানের জন্য, বাংলাদেশকে দারিদ্র্যমুক্ত, ক্ষুধামুক্ত সোনার বাংলাদেশ গড়ে তোলার উদ্দেশ্যেই করা হয়। ভারতের সঙ্গে যেসব সমঝোতা স্মারক এবং চুক্তিগুলো করেছি তার সবকিছুই দেশের উন্নয়নের স্বার্থে করা হয়েছে। এতে আমাদের উন্নয়নগুলো আরো ত্বরান্বিত এবং দ্রুত করতে পারব বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য বেগম ফজিলাতুন সেনা বাপ্পীর প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভারত সফরকালে যে সব চুক্তি/সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে তার সবগুলোর শিরোনাম ইতোমধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। কোনো চুক্তি/সমঝোতা স্মারকই দেশের স্বার্থবিরোধী নয়। তাই ভারতের সঙ্গে দেশের স্বার্থবিরোধী চুক্তি সম্পাদিত হয়েছে- এ ধরনের বিবৃতি সম্পূর্ণ অসত্য, মনগড়া, অবিবেচনাপ্রসূত এবং বাংলাদেশের জনগণকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা মাত্র। বাংলাদেশ একটি স্বাধীন-সার্বভৌম এবং আত্মমর্যাদাসম্পন্ন দেশ। ১৯৭১ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে সাড়া দিয়ে এদেশের সাড়ে সাত কোটি মানুষ বীরদর্পে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীকে পরাজিত করে এদেশ স্বাধীন করেছে। ৩০ লাখ শহীদের আত্মত্যাগ এবং দুই লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে রক্তস্নাত বাংলাদেশ অর্জিত হয়েছে। দেশের স্বার্থবিরোধী কোনো চুক্তি আওয়ামী লীগ সরকার করবে না।

Comments

Comments!

 ভারত সফরকালে স্বাক্ষরিত সব চুক্তি/সমঝোতা স্মারকের শিরোনাম গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ভারত সফরকালে স্বাক্ষরিত সব চুক্তি/সমঝোতা স্মারকের শিরোনাম গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

Wednesday, May 3, 2017 8:52 pm
১০

‘যেখানে যে সমঝোতা স্মারক বা চুক্তি সই করি তার সবকিছুই বাংলাদেশের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করতেই করি। আওয়ামী লীগ সরকার দেশের স্বার্থবিরোধী কোনো চুক্তি করবে না’ বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার বিকেলে জাতীয় সংসদের ১৫তম অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

বিরোধী দলীয় সংসদ সদস্য ফখরুল ইমামের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি যা কিছুই করেছি, জনগণের স্বার্থে, জনগণের কল্যাণে এবং দেশের উন্নয়নে। শুধু ভারত কেন পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের সঙ্গেও তাই করেছি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ এমন একটি অবস্থানে রয়েছে, বিশেষ করে পররাষ্ট্রনীতির বেলায়। জাতির পিতা আমাদের শিখিয়েছেন, সকলের সঙ্গে বন্ধুত্ব কারো সঙ্গে বৈরিতা নয়। আমরা ঠিক সেই নীতিমালা অনুসরণ করে বর্তমান বিশ্বের প্রতিটি দেশের সঙ্গে একটা বন্ধুত্বপূর্ণ বজায় রেখে এগিয়ে চলছি।

দেশের উন্নয়নে আমি বিভিন্ন দেশে রাষ্ট্রীয় সফর করি, সেখানে সমঝোতা স্বাক্ষর অথবা চুক্তি সই করি। তা-ই যা কিছু করি, বাংলাদেশের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করতে, বাংলাদেশের মানুষকে সুন্দর জীবন দানের জন্য, বাংলাদেশকে দারিদ্র্যমুক্ত, ক্ষুধামুক্ত সোনার বাংলাদেশ গড়ে তোলার উদ্দেশ্যেই করা হয়।

ভারতের সঙ্গে যেসব সমঝোতা স্মারক এবং চুক্তিগুলো করেছি তার সবকিছুই দেশের উন্নয়নের স্বার্থে করা হয়েছে। এতে আমাদের উন্নয়নগুলো আরো ত্বরান্বিত এবং দ্রুত করতে পারব বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য বেগম ফজিলাতুন সেনা বাপ্পীর প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভারত সফরকালে যে সব চুক্তি/সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে তার সবগুলোর শিরোনাম ইতোমধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। কোনো চুক্তি/সমঝোতা স্মারকই দেশের স্বার্থবিরোধী নয়। তাই ভারতের সঙ্গে দেশের স্বার্থবিরোধী চুক্তি সম্পাদিত হয়েছে- এ ধরনের বিবৃতি সম্পূর্ণ অসত্য, মনগড়া, অবিবেচনাপ্রসূত এবং বাংলাদেশের জনগণকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা মাত্র। বাংলাদেশ একটি স্বাধীন-সার্বভৌম এবং আত্মমর্যাদাসম্পন্ন দেশ। ১৯৭১ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে সাড়া দিয়ে এদেশের সাড়ে সাত কোটি মানুষ বীরদর্পে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীকে পরাজিত করে এদেশ স্বাধীন করেছে। ৩০ লাখ শহীদের আত্মত্যাগ এবং দুই লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে রক্তস্নাত বাংলাদেশ অর্জিত হয়েছে। দেশের স্বার্থবিরোধী কোনো চুক্তি আওয়ামী লীগ সরকার করবে না।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X