শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১:৫৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, September 16, 2016 10:03 pm
A- A A+ Print

ভিডিও উন্মাদনায় বিধ্বস্ত হেলিকপ্টার!

helicopter1474039439

কক্সবাজারের হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হওয়ার কারণ হিসেবে পাইলটের কথা অমান্য করে ভিডিও তোলাকে দায়ী করেছেন বাংলাদেশ সিভিল অ্যাভিয়েশনের পরিদর্শনকারী দল ও হেলিকপ্টারটির মালিকপক্ষের কর্মকর্তারা। মেঘনা গ্রুপের চিফ মার্কেটিং অফিসার মো. খোরশেদ আলম জানান, নিহত শাহ আলম পাইলটের পাশের সিটেই বসে ছিলেন। তিনি পাইলটের কথা না মেনে হেলিকপ্টারের দরজা খুলে ভিডিও তুলতে থাকেন। এতে হতাহতের ঘটনাটি ঘটেছে বলে ওই হেলিকপ্টারের পাইলট ক্যাপ্টেন শফিকের মাধ্যমে জানা যায়। এদিকে বিকেল পাঁচটায় বাংলাদেশ সিভিল অ্যাভিয়েশনের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং আহত পাইলটের সঙ্গে কথা বলেন। পরে তারা সন্ধ্যায় ঢাকায় ফিরে যান। পরিদর্শন দলের প্রধান গ্রুপ ক্যাপ্টেন জাফর জানান, মেঘনা অ্যাভিয়েশনের মডেল আর ৬৬ এ হেলিকপ্টারের ধারণ ক্ষমতা হচ্ছে পাইলটসহ পাঁচজন। সকালে ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে ইনানিস্থ তারকামানের হোটেল রয়েল টিউলিপে নামিয়ে দিয়ে চারজন যাত্রী নিয়ে পুনরায় ঢাকায় ফিরছিল। পরে বঙ্গোপসাগরের রেজুখাল মোহনায় আসলে পাইলটের পাশে অবস্থানকারী যাত্রী শাহ আলম হেলিকপ্টারের দরজাটি খুলে ফেলেন। দরজাটি লাগাতে গিয়ে পাইলট যেটি দিয়ে হেলিকপ্টার ফ্লাই করে সেটিতে টান দেন শাহ আলম। পরে পালইট দরজাটি বাধতে হেলিকপ্টার নিচের দিকে নামাতে থাকেন। এ সময় পালইট নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন। এতে ওই দুর্ঘটনাটি ঘটে। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উখিয়ার ইনানি এলাকার হোটেল রয়েল টিউলিপে ক্রিকেট তারকা সাকিব আল হাসানকে পৌঁছে দিয়ে ঢাকা ফেরার পথে বেসরকারি বিমান সংস্থা মেঘনা অ্যাভিয়েশনের মালিকানাধিন হেলিকপ্টার রেজু নদী সংলগ্ন বিধ্বস্ত হয়। এতে নিহত হন শাহ আলম (৩২)। তিনি সাতক্ষীরা জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার রাজারপুর ইউপির তেতুলিয়া গ্রামের শেখ মো. শামসুর রহমানের ছেলে। তিনি ঢাকার বেঙ্গল বে নামের একটি বিজ্ঞাপনী সংস্থায় কর্মরত ছিলেন। আহতরা হলেন- পাইলট ক্যাপ্টেন শফিক, বিজ্ঞাপনী সংস্থার কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলাম ও তার ২ ছেলে। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এদিকে কক্সবাজার বিমানবন্দরের ম্যানেজার সাধন কুমার মোহন্ত রাইজিংবিডিকে বলেন, হেলিকপ্টারটি সকাল ৯টায় আগে কক্সবাজারে প্রবেশ করে। যার কারণে কক্সবাজারে প্রবেশের সময় বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়নি। মেঘনা গ্রুপের চিফ মার্কেটিং অফিসার মো. খোরশেদ আলম আরো জানান, বিধ্বস্ত হেলিকপ্টারটি পুলিশ ও বিজিবির সহায়তায় মেরিন ড্রাইভ সড়কের পাশে রাখা হয়েছে।

Comments

Comments!

 ভিডিও উন্মাদনায় বিধ্বস্ত হেলিকপ্টার!AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ভিডিও উন্মাদনায় বিধ্বস্ত হেলিকপ্টার!

Friday, September 16, 2016 10:03 pm
helicopter1474039439

কক্সবাজারের হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হওয়ার কারণ হিসেবে পাইলটের কথা অমান্য করে ভিডিও তোলাকে দায়ী করেছেন বাংলাদেশ সিভিল অ্যাভিয়েশনের পরিদর্শনকারী দল ও হেলিকপ্টারটির মালিকপক্ষের কর্মকর্তারা।

মেঘনা গ্রুপের চিফ মার্কেটিং অফিসার মো. খোরশেদ আলম জানান, নিহত শাহ আলম পাইলটের পাশের সিটেই বসে ছিলেন। তিনি পাইলটের কথা না মেনে হেলিকপ্টারের দরজা খুলে ভিডিও তুলতে থাকেন। এতে হতাহতের ঘটনাটি ঘটেছে বলে ওই হেলিকপ্টারের পাইলট ক্যাপ্টেন শফিকের মাধ্যমে জানা যায়।

এদিকে বিকেল পাঁচটায় বাংলাদেশ সিভিল অ্যাভিয়েশনের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং আহত পাইলটের সঙ্গে কথা বলেন। পরে তারা সন্ধ্যায় ঢাকায় ফিরে যান।

পরিদর্শন দলের প্রধান গ্রুপ ক্যাপ্টেন জাফর জানান, মেঘনা অ্যাভিয়েশনের মডেল আর ৬৬ এ হেলিকপ্টারের ধারণ ক্ষমতা হচ্ছে পাইলটসহ পাঁচজন। সকালে ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে ইনানিস্থ তারকামানের হোটেল রয়েল টিউলিপে নামিয়ে দিয়ে চারজন যাত্রী নিয়ে পুনরায় ঢাকায় ফিরছিল।

পরে বঙ্গোপসাগরের রেজুখাল মোহনায় আসলে পাইলটের পাশে অবস্থানকারী যাত্রী শাহ আলম হেলিকপ্টারের দরজাটি খুলে ফেলেন। দরজাটি লাগাতে গিয়ে পাইলট যেটি দিয়ে হেলিকপ্টার ফ্লাই করে সেটিতে টান দেন শাহ আলম। পরে পালইট দরজাটি বাধতে হেলিকপ্টার নিচের দিকে নামাতে থাকেন। এ সময় পালইট নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন। এতে ওই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উখিয়ার ইনানি এলাকার হোটেল রয়েল টিউলিপে ক্রিকেট তারকা সাকিব আল হাসানকে পৌঁছে দিয়ে ঢাকা ফেরার পথে বেসরকারি বিমান সংস্থা মেঘনা অ্যাভিয়েশনের মালিকানাধিন হেলিকপ্টার রেজু নদী সংলগ্ন বিধ্বস্ত হয়।

এতে নিহত হন শাহ আলম (৩২)। তিনি সাতক্ষীরা জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার রাজারপুর ইউপির তেতুলিয়া গ্রামের শেখ মো. শামসুর রহমানের ছেলে। তিনি ঢাকার বেঙ্গল বে নামের একটি বিজ্ঞাপনী সংস্থায় কর্মরত ছিলেন।

আহতরা হলেন- পাইলট ক্যাপ্টেন শফিক, বিজ্ঞাপনী সংস্থার কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলাম ও তার ২ ছেলে। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

এদিকে কক্সবাজার বিমানবন্দরের ম্যানেজার সাধন কুমার মোহন্ত রাইজিংবিডিকে বলেন, হেলিকপ্টারটি সকাল ৯টায় আগে কক্সবাজারে প্রবেশ করে। যার কারণে কক্সবাজারে প্রবেশের সময় বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়নি।

মেঘনা গ্রুপের চিফ মার্কেটিং অফিসার মো. খোরশেদ আলম আরো জানান, বিধ্বস্ত হেলিকপ্টারটি পুলিশ ও বিজিবির সহায়তায় মেরিন ড্রাইভ সড়কের পাশে রাখা হয়েছে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X