মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৮:০৭
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, November 10, 2016 6:56 pm | আপডেটঃ November 10, 2016 7:05 PM
A- A A+ Print

ভ্যাট আছে, থাকবে, ব্যবসায়ীদের আন্দোলন গ্রহণযোগ্য নয় : অর্থমন্ত্রী

169113_322

যেসব ব্যবসায়ী ভ্যাট দিতে চান না তাদের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চরণ করে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, কয়েকদিন আগে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে দিল। আমার কাছে মনে হয়েছে তাদের দাবি তারা ভ্যাট দিতে চায় না। এ ঘটনা কখনো গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। ভ্যাট আছে, ভ্যাট থাকবে। তাদের ভ্যাট দিতেই হবে। ভ্যাট আইন নিয়ে তাদের অন্দোলন কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে সচিবালয়ে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (ডিসিসিআই) এর 'ট্যাক্স গাইড, ২০১৬-২০১৭’ এর মোড়ক উন্মোচনকালে অর্থমন্ত্রী একথা বলেন। এ সময় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান নজিবুর রহমানসহ ডিসিসিআই'র নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী বলেন, দোকান মালিক সমিতির দাবি গ্রহণযোগ্য নয়, তারা ভ্যাট না দেয়ার জন্য আন্দোলন করছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন দেশে ভ্যাট নিবন্ধন ব্যবাসয়ীর সংখ্যা প্রায় ৭৭ হাজার। এর মধ্যে মাত্র ১৪ হাজার ব্যবসায়ী ভ্যাট দিচ্ছেন। এটা চলতে পারে না। ভ্যাট প্রদানকারীর সংখ্যা বাড়লে ভ্যাট কমানো হবে। এছাড়া ভ্যাট কমানো হবে না। উল্লেখ্য, দোকান মালিকদের উপর প্রস্তাবিত বর্ধিত ভ্যাট প্রত্যাহার এবং বিদ্যমান প্যাকেজ ভ্যাট বহাল রাখার দাবিতে দোকানপাট বন্ধ করে আন্দোলন করে আসছে ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতি। এরই মধ্যে তারা ঢাকা মহানগরে তাদের দাবির পক্ষে একদিন দোকানপাট বন্ধ রেখেছিল। ভ্যাটের আওতায় যেসব দোকান মালিক রয়েছেন, তারা বছরে ১৪ হাজার টাকা ভ্যাট দিচ্ছেন। কিন্তু চলতি অর্থবছরে তা বাড়িয়ে ২৮ হাজার টাকা করা হয়েছে। আর এখানেই ব্যবাসয়ীদের আপত্তি। চলতি মাসের মধ্যে বর্ধিত ভ্যাট প্রত্যাহার করে আগের ‘প্যাকেজ ভ্যাট’ বহালের ঘোষণা না দিলে আবারও ধর্মঘটে নামার হুমকি দিয়েছে তারা। ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ১৫ শতাংশ হারে চার স্তরে মোট ৬০ শতাংশ ভ্যাট আদায় করা হচ্ছে। তাদের এমন অভিযোগের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, এটা সম্পূর্ণ ভুল হিসাব। ব্যবসায়ীরা তাদের অ্যাকাউন্ট ঠিকভাবে সংরক্ষণ করেন না। ফলে তারা এমনটা মনে করছেন। ব্যবসায়ীদের অযৌক্তিক দাবি করার আগে নিজেদের অ্যাকাউন্ট ঠিকভাবে সংরক্ষণের পরামর্শ দেন অর্থমন্ত্রী। অনুষ্ঠানে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের উপর ভ্যাট কমানোর দাবি জানিয়ে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ পোশাক প্রস্ততকারক মালিক সমিতির সভাপতি এম. আলাউদ্দিনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে অর্থমন্ত্রী এনবিআর চেয়ারম্যানকে তাৎক্ষণিক নির্দেশনা দেন। তিনি বলেন, ৭৭ হাজার নিবন্ধনকারী ব্যবসায়ী রয়েছেন তাদের মধ্যে এখন ১৪ হাজার ব্যবসায়ী ভ্যাট দেন। এটি বাড়ানোর প্রয়োজন রয়েছে। পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে ইলেক্ট্রিক ক্যাশ রেজিস্ট্রার (ইসিআর) মেশিন ব্যবহার না করে ক্রেতাদের কাছ থেকে ভ্যাট আদায় করে তা রাজস্বখাতে জমা না দেয়ার অভিযোগ করে অর্থমন্ত্রী বলেন, সব ব্যবসায়ীর ইসিআর মেশিন ব্যবহার বাড়ানোর তাগিদ দেয়া সত্বেও তারা তা করছেন না। এতে ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগ রয়েছে। প্রয়োজনে সরকারের পক্ষ থেকে ইসিআর মেশিন পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে অর্থমন্ত্রী উল্লেখ করেন। ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) দীর্ঘ দিন থেকে জাতীয় বাজেট প্রণয়নের পরপরই ব্যবসায়ীদের কর সংক্রান্ত বিষয়ে সহায়তা দেয়ার জন্য নিয়মিতভাবে ট্যাক্স গাইড প্রকাশ করে আসছে। দেশের ব্যবসা-বানিজ্য পরিচালনার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আয়কর, আমদানি শুল্ক ও মূল্য সংযোজন কর বিষয়ে সর্বশেষ সংশোধনী করে ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরের জন্য উপযোগী করে এ বছরের ট্যাক্স গাইডটি তৈরি করা হয়েছে। সংক্ষেপে বিভিন্ন সিডিউল এবং এসআরওসমূহের সংক্ষিপ্ত তথ্য এতে সন্নিবেশিত হয়েছে। এর ফলে, সবার পক্ষে কর সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্য এ গাইডটি থেকে সহজে পাওয়া যাবে।

Comments

Comments!

 ভ্যাট আছে, থাকবে, ব্যবসায়ীদের আন্দোলন গ্রহণযোগ্য নয় : অর্থমন্ত্রীAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ভ্যাট আছে, থাকবে, ব্যবসায়ীদের আন্দোলন গ্রহণযোগ্য নয় : অর্থমন্ত্রী

Thursday, November 10, 2016 6:56 pm | আপডেটঃ November 10, 2016 7:05 PM
169113_322

যেসব ব্যবসায়ী ভ্যাট দিতে চান না তাদের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চরণ করে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, কয়েকদিন আগে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে দিল। আমার কাছে মনে হয়েছে তাদের দাবি তারা ভ্যাট দিতে চায় না। এ ঘটনা কখনো গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। ভ্যাট আছে, ভ্যাট থাকবে। তাদের ভ্যাট দিতেই হবে। ভ্যাট আইন নিয়ে তাদের অন্দোলন কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে সচিবালয়ে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (ডিসিসিআই) এর ‘ট্যাক্স গাইড, ২০১৬-২০১৭’ এর মোড়ক উন্মোচনকালে অর্থমন্ত্রী একথা বলেন। এ সময় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান নজিবুর রহমানসহ ডিসিসিআই’র নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী বলেন, দোকান মালিক সমিতির দাবি গ্রহণযোগ্য নয়, তারা ভ্যাট না দেয়ার জন্য আন্দোলন করছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন দেশে ভ্যাট নিবন্ধন ব্যবাসয়ীর সংখ্যা প্রায় ৭৭ হাজার। এর মধ্যে মাত্র ১৪ হাজার ব্যবসায়ী ভ্যাট দিচ্ছেন। এটা চলতে পারে না। ভ্যাট প্রদানকারীর সংখ্যা বাড়লে ভ্যাট কমানো হবে। এছাড়া ভ্যাট কমানো হবে না।

উল্লেখ্য, দোকান মালিকদের উপর প্রস্তাবিত বর্ধিত ভ্যাট প্রত্যাহার এবং বিদ্যমান প্যাকেজ ভ্যাট বহাল রাখার দাবিতে দোকানপাট বন্ধ করে আন্দোলন করে আসছে ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতি। এরই মধ্যে তারা ঢাকা মহানগরে তাদের দাবির পক্ষে একদিন দোকানপাট বন্ধ রেখেছিল।

ভ্যাটের আওতায় যেসব দোকান মালিক রয়েছেন, তারা বছরে ১৪ হাজার টাকা ভ্যাট দিচ্ছেন। কিন্তু চলতি অর্থবছরে তা বাড়িয়ে ২৮ হাজার টাকা করা হয়েছে। আর এখানেই ব্যবাসয়ীদের আপত্তি। চলতি মাসের মধ্যে বর্ধিত ভ্যাট প্রত্যাহার করে আগের ‘প্যাকেজ ভ্যাট’ বহালের ঘোষণা না দিলে আবারও ধর্মঘটে নামার হুমকি দিয়েছে তারা।

ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ১৫ শতাংশ হারে চার স্তরে মোট ৬০ শতাংশ ভ্যাট আদায় করা হচ্ছে। তাদের এমন অভিযোগের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, এটা সম্পূর্ণ ভুল হিসাব। ব্যবসায়ীরা তাদের অ্যাকাউন্ট ঠিকভাবে সংরক্ষণ করেন না। ফলে তারা এমনটা মনে করছেন। ব্যবসায়ীদের অযৌক্তিক দাবি করার আগে নিজেদের অ্যাকাউন্ট ঠিকভাবে সংরক্ষণের পরামর্শ দেন অর্থমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের উপর ভ্যাট কমানোর দাবি জানিয়ে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ পোশাক প্রস্ততকারক মালিক সমিতির সভাপতি এম. আলাউদ্দিনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে অর্থমন্ত্রী এনবিআর চেয়ারম্যানকে তাৎক্ষণিক নির্দেশনা দেন।
তিনি বলেন, ৭৭ হাজার নিবন্ধনকারী ব্যবসায়ী রয়েছেন তাদের মধ্যে এখন ১৪ হাজার ব্যবসায়ী ভ্যাট দেন। এটি বাড়ানোর প্রয়োজন রয়েছে।

পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে ইলেক্ট্রিক ক্যাশ রেজিস্ট্রার (ইসিআর) মেশিন ব্যবহার না করে ক্রেতাদের কাছ থেকে ভ্যাট আদায় করে তা রাজস্বখাতে জমা না দেয়ার অভিযোগ করে অর্থমন্ত্রী বলেন, সব ব্যবসায়ীর ইসিআর মেশিন ব্যবহার বাড়ানোর তাগিদ দেয়া সত্বেও তারা তা করছেন না। এতে ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগ রয়েছে। প্রয়োজনে সরকারের পক্ষ থেকে ইসিআর মেশিন পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে অর্থমন্ত্রী উল্লেখ করেন।

ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) দীর্ঘ দিন থেকে জাতীয় বাজেট প্রণয়নের পরপরই ব্যবসায়ীদের কর সংক্রান্ত বিষয়ে সহায়তা দেয়ার জন্য নিয়মিতভাবে ট্যাক্স গাইড প্রকাশ করে আসছে। দেশের ব্যবসা-বানিজ্য পরিচালনার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আয়কর, আমদানি শুল্ক ও মূল্য সংযোজন কর বিষয়ে সর্বশেষ সংশোধনী করে ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরের জন্য উপযোগী করে এ বছরের ট্যাক্স গাইডটি তৈরি করা হয়েছে। সংক্ষেপে বিভিন্ন সিডিউল এবং এসআরওসমূহের সংক্ষিপ্ত তথ্য এতে সন্নিবেশিত হয়েছে। এর ফলে, সবার পক্ষে কর সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্য এ গাইডটি থেকে সহজে পাওয়া যাবে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X