বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:১৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, July 28, 2016 10:05 pm | আপডেটঃ July 28, 2016 10:24 PM
A- A A+ Print

মার্কিন সেনাঘাঁটির দুটি যুদ্ধবিমান এরদোগানকে হত্যার চেষ্টা করে!

148366_1 (1)

গত ১৫ জুলাই তুরস্কের ব্যর্থ অভ্যুত্থানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাত ছিল বলে অভিযোগ জোরদার হচ্ছে। এখন দাবি করা হচ্ছে, অভ্যুত্থানে ব্যবহৃত দুটি এফ-১৬ যুদ্ধবিমান তুরস্কের মার্কিন সেনাঘাঁটি থেকেই উড়েছিল। এছাড়া আকাশে তাদের জ্বালানি সরবরাহ করেছিল ওই ঘাঁটিরই আরো দুটি বিমান। প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান যখন কৃষ্ণসাগরীয় অবকাশ কেন্দ্র থেকে ইস্তাম্বুল ফিরছিলেন, তখন এসব বিমান তাকে তাক করেছিল। এছাড়া আঙ্কারায় আকাশে উড়ে এরদোগানের সমর্থকদের মধ্যে ভীতির সৃষ্টি করছিল। শুধু তা-ই নয়, এফ-১৬ দুটির একটি চালাচ্ছিলেন রুশ বিমান ভূপাতিত করা সেই পাইলট। তুরস্কের অভিযোগ, মার্কিন ওই সামরিক ঘাঁটির উচ্চ প্রযুক্তির যোগাযোগব্যবস্থা দিয়েই অভ্যুত্থানকারীরা নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ করতেন। প্রতিক্রিয়ায় তুরস্ক ওই বিদ্রোহী পাইলটকে আটক করে এবং মার্কিন সেনাঘাঁটির বিদ্যুৎ–সংযোগ ও গোয়েন্দা যোগাযোগব্যবস্থা বন্ধ করে দেয়। অভ্যুত্থানের পরিকল্পনাকারী হিসেবে ফেতুল্লাহ গুলেনকে তুরস্কের হাতে তুলে দেয়া অথবা যুক্তরাষ্ট্র থেকে বহিষ্কারের দাবি তোলা মানে সম্পর্কের মাঝে লাল দাগ টেনে দেয়া।

Comments

Comments!

 মার্কিন সেনাঘাঁটির দুটি যুদ্ধবিমান এরদোগানকে হত্যার চেষ্টা করে!AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

মার্কিন সেনাঘাঁটির দুটি যুদ্ধবিমান এরদোগানকে হত্যার চেষ্টা করে!

Thursday, July 28, 2016 10:05 pm | আপডেটঃ July 28, 2016 10:24 PM
148366_1 (1)

গত ১৫ জুলাই তুরস্কের ব্যর্থ অভ্যুত্থানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাত ছিল বলে অভিযোগ জোরদার হচ্ছে। এখন দাবি করা হচ্ছে, অভ্যুত্থানে ব্যবহৃত দুটি এফ-১৬ যুদ্ধবিমান তুরস্কের মার্কিন সেনাঘাঁটি থেকেই উড়েছিল। এছাড়া আকাশে তাদের জ্বালানি সরবরাহ করেছিল ওই ঘাঁটিরই আরো দুটি বিমান।

প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান যখন কৃষ্ণসাগরীয় অবকাশ কেন্দ্র থেকে ইস্তাম্বুল ফিরছিলেন, তখন এসব বিমান তাকে তাক করেছিল।

এছাড়া আঙ্কারায় আকাশে উড়ে এরদোগানের সমর্থকদের মধ্যে ভীতির সৃষ্টি করছিল।

শুধু তা-ই নয়, এফ-১৬ দুটির একটি চালাচ্ছিলেন রুশ বিমান ভূপাতিত করা সেই পাইলট। তুরস্কের অভিযোগ, মার্কিন ওই সামরিক ঘাঁটির উচ্চ প্রযুক্তির যোগাযোগব্যবস্থা দিয়েই অভ্যুত্থানকারীরা নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ করতেন।

প্রতিক্রিয়ায় তুরস্ক ওই বিদ্রোহী পাইলটকে আটক করে এবং মার্কিন সেনাঘাঁটির বিদ্যুৎ–সংযোগ ও গোয়েন্দা যোগাযোগব্যবস্থা বন্ধ করে দেয়।

অভ্যুত্থানের পরিকল্পনাকারী হিসেবে ফেতুল্লাহ গুলেনকে তুরস্কের হাতে তুলে দেয়া অথবা যুক্তরাষ্ট্র থেকে বহিষ্কারের দাবি তোলা মানে সম্পর্কের মাঝে লাল দাগ টেনে দেয়া।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X