বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:০৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, September 15, 2016 9:31 am
A- A A+ Print

মালয়েশিয়া যাওয়ার কথা বলে পরিবারবিচ্ছিন্ন হয় আজিমপুরের ‘জঙ্গি’

243406_1

মালয়েশিয়ার যাওয়ার কথা বলে পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে আজিমপুরে নিহত জঙ্গি তানভীর কাদেরী। নিহতের বাবা এস এম বাতেন কাদেরীর সূত্রে বাংলা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন গাইবান্ধা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদী হাসান। ওসি জানান, নিহত এ ‘জঙ্গির’ বাবা, বড় বোন ও ভগ্নিপতিকে সোমবার দুপুর আড়াইটায় গাইবান্ধা সদর থানায় ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। এ সময় তানভীরের বাবা পুলিশকে জানান, তার ছেলে চলতি বছরের এপ্রিল মাসের ২৭ থেকে ২৯ তারিখের মধ্যে পরিবার নিয়ে মালয়েশিয়া যাবে বলে এ বছরের এপ্রিলে জানিয়েছিল। এরপর থেকে তার সঙ্গে পরিবারের আর কোনও যোগাযোগ হয়নি। জানা যায়, সাংগঠনিক নাম আব্দুল করিমের আড়ালে ঢাকার আজিমপুরে নিহত জঙ্গির প্রকৃত নাম তানভীর কাদেরী। তানভীরের গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধা সদর উপজেলার বোয়ালি ইউনিয়নের পশ্চিম বাটিকামারি। দুই বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে সে সবার ছোট। নিহত জঙ্গি তানভীর কাদেরী ওরফে করিম ওরফে শমসের ২তানভীরের শিক্ষা ও কর্মজীবন সম্পর্কে বাতেন কাদেরী জানান, ঢাকা কলেজ থেকে হিসাববিজ্ঞানে স্নাতক নিহত এই ‘জঙ্গি’। পরে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাস করে। এরপর তিনি ডাচ বাংলা ব্যাংকে চাকরি পায়। তানভীরের যমজ ছেলে সন্তান রয়েছে। বিকাল সাড়ে ৫টায় তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়। নিহতের নামে গাইবান্ধা সদর থানায় কোনও মামলা ছিল না। বুধবার পশ্চিম বাটিকামারি গ্রামে গিয়ে এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তানভীর কাদেরীর বাবা ও তাঁর পরিবারের লোকজন গ্রামের মানুষের সঙ্গে খুব একটা মিশত না। ঈদের সময় তানভীর দামি গাড়ি নিয়ে বাড়িতে আসতো। ‘বেশি বেতনের ভালো চাকরি’ করতো বলেই স্থানীয়রা জানতেন। তার স্ত্রীও ‘বেশি বেতনের চাকরি’ করতেন। জানা যায়, তানভীরের বাবা আগে চাকরি করতেন। এখন জর্দার ব্যবসা করেন। উল্লেখ্য, ১০ সেপ্টেম্বর ঢাকার আজিমপুরে জঙ্গি আস্তানায় পুলিশের অভিযানের সময় তানভীর মারা যায়। এ সময় আটক হয় আরও তিন নারী ‘জঙ্গি’।

Comments

Comments!

 মালয়েশিয়া যাওয়ার কথা বলে পরিবারবিচ্ছিন্ন হয় আজিমপুরের ‘জঙ্গি’AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

মালয়েশিয়া যাওয়ার কথা বলে পরিবারবিচ্ছিন্ন হয় আজিমপুরের ‘জঙ্গি’

Thursday, September 15, 2016 9:31 am
243406_1

মালয়েশিয়ার যাওয়ার কথা বলে পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে আজিমপুরে নিহত জঙ্গি তানভীর কাদেরী। নিহতের বাবা এস এম বাতেন কাদেরীর সূত্রে বাংলা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন গাইবান্ধা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদী হাসান।

ওসি জানান, নিহত এ ‘জঙ্গির’ বাবা, বড় বোন ও ভগ্নিপতিকে সোমবার দুপুর আড়াইটায় গাইবান্ধা সদর থানায় ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। এ সময় তানভীরের বাবা পুলিশকে জানান, তার ছেলে চলতি বছরের এপ্রিল মাসের ২৭ থেকে ২৯ তারিখের মধ্যে পরিবার নিয়ে মালয়েশিয়া যাবে বলে এ বছরের এপ্রিলে জানিয়েছিল। এরপর থেকে তার সঙ্গে পরিবারের আর কোনও যোগাযোগ হয়নি।

জানা যায়, সাংগঠনিক নাম আব্দুল করিমের আড়ালে ঢাকার আজিমপুরে নিহত জঙ্গির প্রকৃত নাম তানভীর কাদেরী। তানভীরের গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধা সদর উপজেলার বোয়ালি ইউনিয়নের পশ্চিম বাটিকামারি। দুই বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে সে সবার ছোট।

নিহত জঙ্গি তানভীর কাদেরী ওরফে করিম ওরফে শমসের ২তানভীরের শিক্ষা ও কর্মজীবন সম্পর্কে বাতেন কাদেরী জানান, ঢাকা কলেজ থেকে হিসাববিজ্ঞানে স্নাতক নিহত এই ‘জঙ্গি’। পরে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাস করে। এরপর তিনি ডাচ বাংলা ব্যাংকে চাকরি পায়। তানভীরের যমজ ছেলে সন্তান রয়েছে।

বিকাল সাড়ে ৫টায় তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়। নিহতের নামে গাইবান্ধা সদর থানায় কোনও মামলা ছিল না।

বুধবার পশ্চিম বাটিকামারি গ্রামে গিয়ে এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তানভীর কাদেরীর বাবা ও তাঁর পরিবারের লোকজন গ্রামের মানুষের সঙ্গে খুব একটা মিশত না। ঈদের সময় তানভীর দামি গাড়ি নিয়ে বাড়িতে আসতো। ‘বেশি বেতনের ভালো চাকরি’ করতো বলেই স্থানীয়রা জানতেন। তার স্ত্রীও ‘বেশি বেতনের চাকরি’ করতেন। জানা যায়, তানভীরের বাবা আগে চাকরি করতেন। এখন জর্দার ব্যবসা করেন।

উল্লেখ্য, ১০ সেপ্টেম্বর ঢাকার আজিমপুরে জঙ্গি আস্তানায় পুলিশের অভিযানের সময় তানভীর মারা যায়। এ সময় আটক হয় আরও তিন নারী ‘জঙ্গি’।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X