রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৬:০০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, September 27, 2017 8:29 pm
A- A A+ Print

মায়ানমার সীমান্তে ভারতীয় সেনাবাহিনী সঙ্গে বিদ্রোহীদের ব্যাপক গোলাগুলি

5

নয়াদিল্লি: ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের মায়ানমার সীমান্তে বিচ্ছিন্নতাবাদী গেরিলা যোদ্ধাদের সঙ্গে ভারতীয় সেনাবাহিনীর ব্যাপক গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে বিদ্রোহীদের বেশ কয়েকজন সদস্য নিহত এবং আহত হয়েছে বলে ভারতীয় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জাননো হয়েছে। বুধবার ভারতীয় সেনাবাহিনীর পূর্বাঞ্চলের এক বিবৃতিতে এসব কথা জাননো হয়। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ভারত থেকে বেরিয়ে গিয়ে স্বাধীনতার জন্য নাগাল্যান্ডের প্রায় দুই হাজার গেরিলা যোদ্ধা দীর্ঘদিন ধরে লড়াই করছে। দেশটির সেনাবাহিনী বিচ্ছিন্নতাবাদী এই গেরিলাদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করছে। এতে আরো বলা হয়, বিদ্রোহীদের গোলাবর্ষণের পর দ্রুত পাল্টা জবাব দিয়েছে টহলরত সেনা সদস্যরা। এতে বিদ্রোহী গোষ্ঠী ন্যাশনাল সোশ্যালিস্ট কাউন্সিল অব নাগাল্যান্ড-খাপল্যাংয়ের (এনএসসিএন-কে) অনেক সদস্য হতাহত হয়েছে। তবে গোলাগুলিতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। ভারতীয় ভূখণ্ডের মধ্যে বুধবারের এ অভিযান সীমিত ছিল বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়। এর আগে ২০১৫ সালে প্রতিবেশী মায়ানমারের ভূখণ্ডে ঢুকে নাগাল্যান্ডের বিচ্ছিন্নতাবাদী গেরিলাদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করে ভারতের বিশেষ বাহিনীর সদস্যরা। ওই বছর ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর সিরিজ হামলা চালায় এই বিদ্রোহীরা। ২০০১ সাল থেকে যুদ্ধবিরতি চুক্তি মেনে চললেও সেই সময় বিদ্রোহীরা তা লঙ্ঘন করে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ভারত এবং মায়ানমার সামরিক সম্পর্ক জোরদার করেছে। নিজেদের ভূখণ্ডে উভয় দেশ কোনো বিদ্রোহীকে আশ্রয় দেবে না বলেও অঙ্গীকার করেছে। গত আগস্টে মায়ানমার পুলিশ ও সেনাবাহিনীর তল্লাশি চৌকিতে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলার নিন্দা জানায় ভারত। ওই হামলার পর রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযান শুরু করেছে মায়ানমার সেনাবাহিনী। জাতিসংঘ বলছে, সেনা অভিযানের মুখে প্রায় ৪ লাখ ৮০ হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম বাংলাদেশে পালিয়েছে।
 

Comments

Comments!

 মায়ানমার সীমান্তে ভারতীয় সেনাবাহিনী সঙ্গে বিদ্রোহীদের ব্যাপক গোলাগুলিAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

মায়ানমার সীমান্তে ভারতীয় সেনাবাহিনী সঙ্গে বিদ্রোহীদের ব্যাপক গোলাগুলি

Wednesday, September 27, 2017 8:29 pm
5

নয়াদিল্লি: ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের মায়ানমার সীমান্তে বিচ্ছিন্নতাবাদী গেরিলা যোদ্ধাদের সঙ্গে ভারতীয় সেনাবাহিনীর ব্যাপক গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে বিদ্রোহীদের বেশ কয়েকজন সদস্য নিহত এবং আহত হয়েছে বলে ভারতীয় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জাননো হয়েছে।

বুধবার ভারতীয় সেনাবাহিনীর পূর্বাঞ্চলের এক বিবৃতিতে এসব কথা জাননো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ভারত থেকে বেরিয়ে গিয়ে স্বাধীনতার জন্য নাগাল্যান্ডের প্রায় দুই হাজার গেরিলা যোদ্ধা দীর্ঘদিন ধরে লড়াই করছে। দেশটির সেনাবাহিনী বিচ্ছিন্নতাবাদী এই গেরিলাদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করছে।

এতে আরো বলা হয়, বিদ্রোহীদের গোলাবর্ষণের পর দ্রুত পাল্টা জবাব দিয়েছে টহলরত সেনা সদস্যরা। এতে বিদ্রোহী গোষ্ঠী ন্যাশনাল সোশ্যালিস্ট কাউন্সিল অব নাগাল্যান্ড-খাপল্যাংয়ের (এনএসসিএন-কে) অনেক সদস্য হতাহত হয়েছে। তবে গোলাগুলিতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

ভারতীয় ভূখণ্ডের মধ্যে বুধবারের এ অভিযান সীমিত ছিল বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়। এর আগে ২০১৫ সালে প্রতিবেশী মায়ানমারের ভূখণ্ডে ঢুকে নাগাল্যান্ডের বিচ্ছিন্নতাবাদী গেরিলাদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করে ভারতের বিশেষ বাহিনীর সদস্যরা।

ওই বছর ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর সিরিজ হামলা চালায় এই বিদ্রোহীরা। ২০০১ সাল থেকে যুদ্ধবিরতি চুক্তি মেনে চললেও সেই সময় বিদ্রোহীরা তা লঙ্ঘন করে।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ভারত এবং মায়ানমার সামরিক সম্পর্ক জোরদার করেছে। নিজেদের ভূখণ্ডে উভয় দেশ কোনো বিদ্রোহীকে আশ্রয় দেবে না বলেও অঙ্গীকার করেছে।

গত আগস্টে মায়ানমার পুলিশ ও সেনাবাহিনীর তল্লাশি চৌকিতে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলার নিন্দা জানায় ভারত। ওই হামলার পর রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযান শুরু করেছে মায়ানমার সেনাবাহিনী। জাতিসংঘ বলছে, সেনা অভিযানের মুখে প্রায় ৪ লাখ ৮০ হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম বাংলাদেশে পালিয়েছে।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X