শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৫:৪৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, July 28, 2016 8:50 am
A- A A+ Print

মুস্তাফিজের ইংল্যান্ড–অভিযান শেষ!

images (1)

ইংল্যান্ডে যাওয়ার পর ২৪ ঘণ্টা না পেরোতেই মাঠে নেমে ম্যাচসেরা। সাসেক্সের হয়ে মুস্তাফিজুর রহমানের ইংল্যান্ড-অভিযানের শুরুটা ছিল রূপ-কথার মতো। কিন্তু কাঁধের চোটে মাত্র দুই ম্যাচেই সম্ভবত সেটির বিয়োগান্ত সমাপ্তি ঘটতে যাচ্ছে! ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্ট বা রয়্যাল লন্ডন ওয়ানডে কাপের গ্রুপ পর্বের বাকি ম্যাচগুলো যে মুস্তাফিজ খেলতে পারছেন না, তা এখন নিশ্চিত। কাল সাসেক্সের ওয়েবসাইটে এটি জানিয়েও দেওয়া হয়েছে। টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে দুটি প্রতিযোগিতার জন্য সাসেক্সের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন মুস্তাফিজ। এই দুটির নকআউট পর্বে উঠলে সেখানে মুস্তাফিজকে পাওয়ার আশা করছে সাসেক্স। কিন্তু সমস্যা এখানে দুটি। প্রথমত, সাসেক্সের নকআউট পর্বে ওঠার সম্ভাবনা একদমই উজ্জ্বল নয়। সম্ভবত তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ হলো, যে চোটে পড়েছেন, তাতে মুস্তাফিজের খুব তাড়াতাড়ি মাঠে নামার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। বিসিবির মিডিয়া কমিটির প্রধান জালাল ইউনুসও কাল মিরপুরে সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘এ অবস্থায় সে খেলা চালিয়ে যাবে না। এখনো কয়েকটি ম্যাচ আছে। তবে ওর খেলার সম্ভাবনা খুবই কম।’ না খেললেও মুস্তাফিজ এখনই দেশে ফিরছেন না। কবে ফিরবেন, সেটাও নিশ্চিত নয়। এমআরআই রিপোর্টে বাঁ কাঁধে সমস্যাটা ধরা পড়ার পর ইউনিভার্সিটি অব গ্রিনউইচের শল্যবিদ টনি কোচারকে দেখিয়েছেন মুস্তাফিজ। কোচার চোটের ব্যাপারে আরও পরিষ্কার ধারণা পেতে ‘অর্থোগ্রাম’ নামে আরেকটি পরীক্ষা করাতে বলেছেন। আগামীকাল এই পরীক্ষা করানোর কথা। যে পরীক্ষার রিপোর্ট দেখে কোচার চিকিৎসাপ্রক্রিয়া সম্পর্কে চূড়ান্ত পরামর্শ দেবেন। এরপর জাতীয় দলের কোচ-ফিজিওদের সঙ্গে আলোচনা করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। চিকিৎসা যা-ই হোক, বিসিবি তা ইংল্যান্ডেই করিয়ে আনতে চায় বলে জানালেন জালাল, ‘যদি অস্ত্রোপচার করাতে হয়, আমাদের ফিজিও-চিকিৎসকের সঙ্গে আলোচনা করে চেষ্টা করব যেন চিকিৎসাটা ইংল্যান্ডেই হয়।’ বোর্ডের অন্য একটি সূত্রে জানা গেছে, মুস্তাফিজের অস্ত্রোপচার করাতে হলে একই সঙ্গে তামিম ইকবালের কাঁধের অস্ত্রোপচারটাও করিয়ে ফেলা যায় কি না, বিসিবির চিন্তায় সেটাও আছে। তামিমের ডান কাঁধেও মুস্তাফিজের মতোই সমস্যা। চিকিৎসকেরা আরও আগেই অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দিলেও ব্যাটিংয়ে সমস্যা হয় না বলে এখনো ছুরির নিচে যাননি তিনি। তাঁর সমস্যা হয় শুধু বল থ্রো করার সময়। কিন্তু অস্ত্রোপচার মানেই তো ছয়-সাত মাসের জন্য মাঠের বাইরে চলে যাওয়া! সামনে ইংল্যান্ড সিরিজ, ডিসেম্বরে বাংলাদেশ দলের যাওয়ার কথা নিউজিল্যান্ড সফরে। এ অবস্থায় কাটাছেঁড়া করে একসঙ্গে দুজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়ের খেলা কি অনিশ্চিত করবে বিসিবি? মুস্তাফিজের ব্যাপারে জালাল ইউনুসের উত্তর, ‘সবচেয়ে বড় কথা, ও আমাদের খুব গুরুত্বপূর্ণ একজন বোলার। তার সামনে পুরো ক্যারিয়ার পড়ে আছে। এখনই চিকিৎসা করে যদি দীর্ঘ সময়ে সেবা পাই, তাহলে তো ভাবতেই হবে। আবার পরে করলে দেখা গেল দুই দিন পর পরই চোটে পড়ছে। সাময়িক চিকিৎসা নাকি দীর্ঘ সময়ের জন্য চিকিৎসা করব, সেটা ভাবতে হবে।’ তামিমের সিদ্ধান্তটা অবশ্য তাঁর নিজের হাতেই। কাল রাতে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানালেন, ‘ফিজিওকে বলেছি, অপারেশন করার পর সুস্থ হতে কত দিন সময় লাগবে সেটা জানতে। আমি যেহেতু ব্যাটসম্যান, মুস্তাফিজের মতো অত সময় না-ও লাগতে পারে। তা ছাড়া একসময় না একসময় তো অপারেশন করাতেই হবে। দুই-তিন মাসের মধ্যে খেলায় ফিরতে পারলে ভাবছি সেটা মুস্তাফিজের সঙ্গেই করিয়ে নেব। তবে এটার জন্য আমি খেলা মিস করতে চাই না।’ দুজনেরই একই সমস্যা। তবে মুস্তাফিজ ও তামিমের মধ্যে পার্থক্য হলো, তামিম চাইলে অস্ত্রোপচারের ব্যাপারটি আরও বিলম্বিত করতে পারেন। কিন্তু মুস্তাফিজের যদি অস্ত্রোপচার লাগে, তাহলে সেটি না করিয়ে সম্ভবত তাঁর খেলায় ফেরার আর কোনো বিকল্প নেই।

Comments

Comments!

 মুস্তাফিজের ইংল্যান্ড–অভিযান শেষ!AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

মুস্তাফিজের ইংল্যান্ড–অভিযান শেষ!

Thursday, July 28, 2016 8:50 am
images (1)

ইংল্যান্ডে যাওয়ার পর ২৪ ঘণ্টা না পেরোতেই মাঠে নেমে ম্যাচসেরা। সাসেক্সের হয়ে মুস্তাফিজুর রহমানের ইংল্যান্ড-অভিযানের শুরুটা ছিল রূপ-কথার মতো। কিন্তু কাঁধের চোটে মাত্র দুই ম্যাচেই সম্ভবত সেটির বিয়োগান্ত সমাপ্তি ঘটতে যাচ্ছে! ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্ট বা রয়্যাল লন্ডন ওয়ানডে কাপের গ্রুপ পর্বের বাকি ম্যাচগুলো যে মুস্তাফিজ খেলতে পারছেন না, তা এখন নিশ্চিত। কাল সাসেক্সের ওয়েবসাইটে এটি জানিয়েও দেওয়া হয়েছে।
টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে দুটি প্রতিযোগিতার জন্য সাসেক্সের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন মুস্তাফিজ। এই দুটির নকআউট পর্বে উঠলে সেখানে মুস্তাফিজকে পাওয়ার আশা করছে সাসেক্স। কিন্তু সমস্যা এখানে দুটি। প্রথমত, সাসেক্সের নকআউট পর্বে ওঠার সম্ভাবনা একদমই উজ্জ্বল নয়। সম্ভবত তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ হলো, যে চোটে পড়েছেন, তাতে মুস্তাফিজের খুব তাড়াতাড়ি মাঠে নামার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।
বিসিবির মিডিয়া কমিটির প্রধান জালাল ইউনুসও কাল মিরপুরে সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘এ অবস্থায় সে খেলা চালিয়ে যাবে না। এখনো কয়েকটি ম্যাচ আছে। তবে ওর খেলার সম্ভাবনা খুবই কম।’ না খেললেও মুস্তাফিজ এখনই দেশে ফিরছেন না। কবে ফিরবেন, সেটাও নিশ্চিত নয়। এমআরআই রিপোর্টে বাঁ কাঁধে সমস্যাটা ধরা পড়ার পর ইউনিভার্সিটি অব গ্রিনউইচের শল্যবিদ টনি কোচারকে দেখিয়েছেন মুস্তাফিজ। কোচার চোটের ব্যাপারে আরও পরিষ্কার ধারণা পেতে ‘অর্থোগ্রাম’ নামে আরেকটি পরীক্ষা করাতে বলেছেন। আগামীকাল এই পরীক্ষা করানোর কথা। যে পরীক্ষার রিপোর্ট দেখে কোচার চিকিৎসাপ্রক্রিয়া সম্পর্কে চূড়ান্ত পরামর্শ দেবেন। এরপর জাতীয় দলের কোচ-ফিজিওদের সঙ্গে আলোচনা করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।
চিকিৎসা যা-ই হোক, বিসিবি তা ইংল্যান্ডেই করিয়ে আনতে চায় বলে জানালেন জালাল, ‘যদি অস্ত্রোপচার করাতে হয়, আমাদের ফিজিও-চিকিৎসকের সঙ্গে আলোচনা করে চেষ্টা করব যেন চিকিৎসাটা ইংল্যান্ডেই হয়।’
বোর্ডের অন্য একটি সূত্রে জানা গেছে, মুস্তাফিজের অস্ত্রোপচার করাতে হলে একই সঙ্গে তামিম ইকবালের কাঁধের অস্ত্রোপচারটাও করিয়ে ফেলা যায় কি না, বিসিবির চিন্তায় সেটাও আছে। তামিমের ডান কাঁধেও মুস্তাফিজের মতোই সমস্যা। চিকিৎসকেরা আরও আগেই অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দিলেও ব্যাটিংয়ে সমস্যা হয় না বলে এখনো ছুরির নিচে যাননি তিনি। তাঁর সমস্যা হয় শুধু বল থ্রো করার সময়।
কিন্তু অস্ত্রোপচার মানেই তো ছয়-সাত মাসের জন্য মাঠের বাইরে চলে যাওয়া! সামনে ইংল্যান্ড সিরিজ, ডিসেম্বরে বাংলাদেশ দলের যাওয়ার কথা নিউজিল্যান্ড সফরে। এ অবস্থায় কাটাছেঁড়া করে একসঙ্গে দুজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়ের খেলা কি অনিশ্চিত করবে বিসিবি? মুস্তাফিজের ব্যাপারে জালাল ইউনুসের উত্তর, ‘সবচেয়ে বড় কথা, ও আমাদের খুব গুরুত্বপূর্ণ একজন বোলার। তার সামনে পুরো ক্যারিয়ার পড়ে আছে। এখনই চিকিৎসা করে যদি দীর্ঘ সময়ে সেবা পাই, তাহলে তো ভাবতেই হবে। আবার পরে করলে দেখা গেল দুই দিন পর পরই চোটে পড়ছে। সাময়িক চিকিৎসা নাকি দীর্ঘ সময়ের জন্য চিকিৎসা করব, সেটা ভাবতে হবে।’

তামিমের সিদ্ধান্তটা অবশ্য তাঁর নিজের হাতেই। কাল রাতে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানালেন, ‘ফিজিওকে বলেছি, অপারেশন করার পর সুস্থ হতে কত দিন সময় লাগবে সেটা জানতে। আমি যেহেতু ব্যাটসম্যান, মুস্তাফিজের মতো অত সময় না-ও লাগতে পারে। তা ছাড়া একসময় না একসময় তো অপারেশন করাতেই হবে। দুই-তিন মাসের মধ্যে খেলায় ফিরতে পারলে ভাবছি সেটা মুস্তাফিজের সঙ্গেই করিয়ে নেব। তবে এটার জন্য আমি খেলা মিস করতে চাই না।’

দুজনেরই একই সমস্যা। তবে মুস্তাফিজ ও তামিমের মধ্যে পার্থক্য হলো, তামিম চাইলে অস্ত্রোপচারের ব্যাপারটি আরও বিলম্বিত করতে পারেন। কিন্তু মুস্তাফিজের যদি অস্ত্রোপচার লাগে, তাহলে সেটি না করিয়ে সম্ভবত তাঁর খেলায় ফেরার আর কোনো বিকল্প নেই।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X