বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:০১
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, November 7, 2016 9:54 am
A- A A+ Print

মুস্তাফিজের শারীরিক উন্নতিতে সন্তুষ্ট ওয়ালশ

160317_1

   
ঢাকা: ইনজুরির পর কাঁধে অস্ত্রোপচার। সেই অবস্থা থেকে উন্নতিটা বেশ দ্রুতই হচ্ছে বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমানের। পেস আক্রমণে বাংলাদেশের অপরিহার্য ২১ বছর বয়সী এ পেসার ইতোমধ্যেই ক্রিকেট বলে শুরু করেছেন বোলিং। আগামী মাসে নিউজিল্যান্ড সফরের দীর্ঘ সিরিজেই তাকে খেলাতে চায় বাংলাদেশ। সেজন্য উন্মুখ হয়ে আছেন পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ। তিনি তরুণ এ পেসারকে দলের ‘স্পেশাল’ বোলার আখ্যা দিয়ে জানান, বেশ ভালভাবেই দ্রুত নিজেকে ফিরে পাচ্ছেন মুস্তাফিজ। রবিবার সকালে মিরপুর শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে তাকে নিয়ে কাজ করেছেন ওয়ালশ, বোলিং দেখেছেন। এরপরই তিনি এসব কথা জানান। সদ্য সমাপ্ত ইংল্যান্ড সিরিজে পেসাররা তেমন বড় ভূমিকায় না থাকলেও নিউজিল্যান্ড সিরিজে দলের মেধাবী পেস বোলারদের নিয়ে আশাবাদী ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক এ পেসার।
নিউজিল্যান্ড সফরে সিরিজের পূর্ণাঙ্গ প্যকেজ আছে বাংলাদেশ দলের। তিন ওয়ানডে, তিন টি২০ ও দুই টেস্ট খেলবে সফরকারীরা। ২৬ ডিসেম্বর প্রথম ওয়ানডে দিয়ে সিরিজ শুরু। তবে এর অনেক আগেই কন্ডিশনিং ক্যাম্প করার জন্য আগামী মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহের শুরুতে অস্ট্রেলিয়ায় যাবে দল। ২২ সদস্যের প্রাথমিক দলে নেয়া হয়েছে মুস্তাফিজকে। দুটি সিরিজ আফগানিস্তান ও ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলতে পারেননি ‘কাটার মাস্টার’ খ্যাতি পাওয়া সাতক্ষীরার এ তরুণ। কিন্তু কাঁধের ইনজুরি কাটিয়ে একমাস আগে থেকেই জিম, রানিং করেছেন এবং গতমাসের ২২ তারিখ থেকে নরম বলে (টেনিস) বোলিং শুরু করেন। ১ নবেম্বর থেকে মূল ক্রিকেট বলেও সেটা শুরু করেন। পূর্ণ ছন্দে বেশিক্ষণ বোলিং করতে পারেননি সেদিন এবং ৩ নবেম্বর দ্বিতীয় সেশনে। তবে জাতীয় দলের বোলিং কোচের দায়িত্ব নেয়ার পর রবিবারই প্রথম (বোলিংয়ের তৃতীয় সেশন) তাকে নিয়ে মাঠে কাজ করার সুযোগ হলো ওয়ালশের। দলের সঙ্গে সঙ্গে তিনিও দ্রুতই চান ম্যাচে ফিরুক মুস্তাফিজ। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সে দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। স্পেশাল একজন বোলার। এখন তার খেলায় ফিরে আসা জরুরী। পরিপূর্ণ ফিট হয়ে যেন খেলায় দ্রুত ফিরতে পারে সেদিকেই আমরা সচেষ্ট। পুনর্বাসন চলছে। ফিজিও কাজ করছেন। সে পুরোপুরি নিজেকে ফিরে পাওয়ার পর তাকে নিয়ে ভালভাবে কাজ করার সুযোগ হবে।’ কাঁধে বড় ধরনের অস্ত্রোপচার করিয়েছেন ১১ আগস্ট ইংল্যান্ডের বুপা ক্রমওয়েল হাসপাতালে। প্রাথমিকভাবে মুস্তাফিজের খেলার ব্যাপারে এ বছর আর ফেরার সম্ভাবনা নেই এমনটা জানান হলেও দ্রুত উন্নতি করছেন তিনি। তাই নিউজিল্যান্ড সিরিজেই খেলছেন তিনি। মুস্তাফিজের অবস্থা সম্পর্কে ওয়ালশ বলেন, ‘আজসহ তিনদিন বোলিং করল সে। আবহাওয়ার কারণে আগেরদিন বিশ্রাম নিতে হয়েছে। রবিবার আবার সে বোলিং করল। আমি যতটুকু দেখলাম ঠিকঠাকই মনে হচ্ছে সবকিছু। কিছুটা অসাড়তা আছে কাঁধে। তবে এটা তেমন কিছু নয়। প্রতিদিনই এখন গুরুত্বপূর্ণ এবং উন্নতি করার মধ্যে থাকবে। সে বেশ ভালভাবেই ফিরছে। এই পর্যায়ে সে ৫০ ভাগ সামর্থ্য দিয়ে বোলিং করছে। প্রথম তার সঙ্গে কাজ করলাম। খুব ভাল দিন গেছে। আরও কিছুদিন বোলিংটা দেখতে হবে। আগামীকালসহ আরও দুদিন দেখার পর হয়তো আমি আরেকটু ভালভাবে বলতে পারব তার অবস্থাটা। তবে তার স্ট্যামিনা বেশ ভাল।’ কিউইদের বিরুদ্ধে সিরিজের শুরুতেই মুস্তাফিজ খেলতে পারবেন কিনা সেটা এখনও নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না ওয়ালশও। কারণ নিয়মিত বোলিং সেশনগুলো করতে পারলেও যেভাবে সবকিছু এগিয়ে চলেছে তাহলেই সেটা সম্ভব হতে পারে। কারণ এখনও পুরোপুরি ৭ সপ্তাহ সময় আছে সিরিজ শুরুর। জাতীয় দলের ফিজিও বায়েজিদুল ইসলাম আগেই জানিয়েছেন ঠিকমতো পুনর্বাসন প্রক্রিয়া চললে ৬ সপ্তাহের মধ্যেই ম্যাচে ফেরার মতো ফিটনেস অর্জন করবেন মুস্তাফিজ। এ বিষয়ে ওয়ালশ বলেন, ‘এত আগেভাগে কিছুই বলা যাবে না। প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফেরার জন্য সর্বোচ্চ ভাল পর্যায়ে পৌঁছুতে হবে। তার ভাল উন্নতি দেখে আমি খুশি। কিন্তু এখন পর্যন্ত নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারছি না। কয়েকদিন কাজ করার পর হয়তো এ বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছু জানাতে পারব।’ ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ঘরোয়া সিরিজে পেসারদের তেমন উল্লেখযোগ্য ভূমিকায় দেখা যায়নি। কারণ স্পিনবান্ধব উইকেট ছিল। কিন্তু নিউজিল্যান্ড সিরিজের জন্য বেশ আগ্রহ নিয়ে তাকিয়ে আছেন ওয়ালশ। দলের পেসারদের নিয়ে তিনি বলেন, ‘ইংল্যান্ড সিরিজে তো আমাদের পেস বোলারদের কোন সুযোগই হয়নি। তবে এই বিভাগে আমি যে মেধাগুলো দেখতে পাচ্ছি সেটা নিয়ে বেশ অনুপ্রাণিত। নিউজিল্যান্ডে হয়তো আমরা ভাল কিছু দেখতে পাব।’
 

Comments

Comments!

 মুস্তাফিজের শারীরিক উন্নতিতে সন্তুষ্ট ওয়ালশAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

মুস্তাফিজের শারীরিক উন্নতিতে সন্তুষ্ট ওয়ালশ

Monday, November 7, 2016 9:54 am
160317_1

 

 

ঢাকা: ইনজুরির পর কাঁধে অস্ত্রোপচার। সেই অবস্থা থেকে উন্নতিটা বেশ দ্রুতই হচ্ছে বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমানের। পেস আক্রমণে বাংলাদেশের অপরিহার্য ২১ বছর বয়সী এ পেসার ইতোমধ্যেই ক্রিকেট বলে শুরু করেছেন বোলিং। আগামী মাসে নিউজিল্যান্ড সফরের দীর্ঘ সিরিজেই তাকে খেলাতে চায় বাংলাদেশ।

সেজন্য উন্মুখ হয়ে আছেন পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ। তিনি তরুণ এ পেসারকে দলের ‘স্পেশাল’ বোলার আখ্যা দিয়ে জানান, বেশ ভালভাবেই দ্রুত নিজেকে ফিরে পাচ্ছেন মুস্তাফিজ। রবিবার সকালে মিরপুর শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে তাকে নিয়ে কাজ করেছেন ওয়ালশ, বোলিং দেখেছেন। এরপরই তিনি এসব কথা জানান।

সদ্য সমাপ্ত ইংল্যান্ড সিরিজে পেসাররা তেমন বড় ভূমিকায় না থাকলেও নিউজিল্যান্ড সিরিজে দলের মেধাবী পেস বোলারদের নিয়ে আশাবাদী ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক এ পেসার।

নিউজিল্যান্ড সফরে সিরিজের পূর্ণাঙ্গ প্যকেজ আছে বাংলাদেশ দলের। তিন ওয়ানডে, তিন টি২০ ও দুই টেস্ট খেলবে সফরকারীরা। ২৬ ডিসেম্বর প্রথম ওয়ানডে দিয়ে সিরিজ শুরু। তবে এর অনেক আগেই কন্ডিশনিং ক্যাম্প করার জন্য আগামী মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহের শুরুতে অস্ট্রেলিয়ায় যাবে দল। ২২ সদস্যের প্রাথমিক দলে নেয়া হয়েছে মুস্তাফিজকে। দুটি সিরিজ আফগানিস্তান ও ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলতে পারেননি ‘কাটার মাস্টার’ খ্যাতি পাওয়া সাতক্ষীরার এ তরুণ।

কিন্তু কাঁধের ইনজুরি কাটিয়ে একমাস আগে থেকেই জিম, রানিং করেছেন এবং গতমাসের ২২ তারিখ থেকে নরম বলে (টেনিস) বোলিং শুরু করেন। ১ নবেম্বর থেকে মূল ক্রিকেট বলেও সেটা শুরু করেন। পূর্ণ ছন্দে বেশিক্ষণ বোলিং করতে পারেননি সেদিন এবং ৩ নবেম্বর দ্বিতীয় সেশনে। তবে জাতীয় দলের বোলিং কোচের দায়িত্ব নেয়ার পর রবিবারই প্রথম (বোলিংয়ের তৃতীয় সেশন) তাকে নিয়ে মাঠে কাজ করার সুযোগ হলো ওয়ালশের। দলের সঙ্গে সঙ্গে তিনিও দ্রুতই চান ম্যাচে ফিরুক মুস্তাফিজ।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সে দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। স্পেশাল একজন বোলার। এখন তার খেলায় ফিরে আসা জরুরী। পরিপূর্ণ ফিট হয়ে যেন খেলায় দ্রুত ফিরতে পারে সেদিকেই আমরা সচেষ্ট। পুনর্বাসন চলছে। ফিজিও কাজ করছেন। সে পুরোপুরি নিজেকে ফিরে পাওয়ার পর তাকে নিয়ে ভালভাবে কাজ করার সুযোগ হবে।’ কাঁধে বড় ধরনের অস্ত্রোপচার করিয়েছেন ১১ আগস্ট ইংল্যান্ডের বুপা ক্রমওয়েল হাসপাতালে। প্রাথমিকভাবে মুস্তাফিজের খেলার ব্যাপারে এ বছর আর ফেরার সম্ভাবনা নেই এমনটা জানান হলেও দ্রুত উন্নতি করছেন তিনি। তাই নিউজিল্যান্ড সিরিজেই খেলছেন তিনি।

মুস্তাফিজের অবস্থা সম্পর্কে ওয়ালশ বলেন, ‘আজসহ তিনদিন বোলিং করল সে। আবহাওয়ার কারণে আগেরদিন বিশ্রাম নিতে হয়েছে। রবিবার আবার সে বোলিং করল। আমি যতটুকু দেখলাম ঠিকঠাকই মনে হচ্ছে সবকিছু। কিছুটা অসাড়তা আছে কাঁধে। তবে এটা তেমন কিছু নয়। প্রতিদিনই এখন গুরুত্বপূর্ণ এবং উন্নতি করার মধ্যে থাকবে। সে বেশ ভালভাবেই ফিরছে। এই পর্যায়ে সে ৫০ ভাগ সামর্থ্য দিয়ে বোলিং করছে। প্রথম তার সঙ্গে কাজ করলাম। খুব ভাল দিন গেছে। আরও কিছুদিন বোলিংটা দেখতে হবে। আগামীকালসহ আরও দুদিন দেখার পর হয়তো আমি আরেকটু ভালভাবে বলতে পারব তার অবস্থাটা। তবে তার স্ট্যামিনা বেশ ভাল।’

কিউইদের বিরুদ্ধে সিরিজের শুরুতেই মুস্তাফিজ খেলতে পারবেন কিনা সেটা এখনও নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না ওয়ালশও। কারণ নিয়মিত বোলিং সেশনগুলো করতে পারলেও যেভাবে সবকিছু এগিয়ে চলেছে তাহলেই সেটা সম্ভব হতে পারে। কারণ এখনও পুরোপুরি ৭ সপ্তাহ সময় আছে সিরিজ শুরুর। জাতীয় দলের ফিজিও বায়েজিদুল ইসলাম আগেই জানিয়েছেন ঠিকমতো পুনর্বাসন প্রক্রিয়া চললে ৬ সপ্তাহের মধ্যেই ম্যাচে ফেরার মতো ফিটনেস অর্জন করবেন মুস্তাফিজ।

এ বিষয়ে ওয়ালশ বলেন, ‘এত আগেভাগে কিছুই বলা যাবে না। প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফেরার জন্য সর্বোচ্চ ভাল পর্যায়ে পৌঁছুতে হবে। তার ভাল উন্নতি দেখে আমি খুশি। কিন্তু এখন পর্যন্ত নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারছি না। কয়েকদিন কাজ করার পর হয়তো এ বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছু জানাতে পারব।’ ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ঘরোয়া সিরিজে পেসারদের তেমন উল্লেখযোগ্য ভূমিকায় দেখা যায়নি। কারণ স্পিনবান্ধব উইকেট ছিল। কিন্তু নিউজিল্যান্ড সিরিজের জন্য বেশ আগ্রহ নিয়ে তাকিয়ে আছেন ওয়ালশ।

দলের পেসারদের নিয়ে তিনি বলেন, ‘ইংল্যান্ড সিরিজে তো আমাদের পেস বোলারদের কোন সুযোগই হয়নি। তবে এই বিভাগে আমি যে মেধাগুলো দেখতে পাচ্ছি সেটা নিয়ে বেশ অনুপ্রাণিত। নিউজিল্যান্ডে হয়তো আমরা ভাল কিছু দেখতে পাব।’

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X