বুধবার, ২৪শে মে, ২০১৭ ইং, ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৬:১৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, March 12, 2017 9:13 pm
A- A A+ Print

মূল্যস্ফীতির ওপর নির্ভর করে বেতন-ভাতা সমন্বয় হবে

Mohit20170312182259

সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন-ভাতা নির্ধারণে আর কোনো পে-কমিশন গঠন হবে না। তবে আগামী নির্বাচনের আগেই ২০১৮ সাল থেকে অষ্টম পে-স্কেল অনুযায়ী মূল্যস্ফীতির ওপর নির্ভর করে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন সমন্বয় করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। রোববার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে সরকারি চাকরিজীবীদের ভবিষ্যৎ বেতন নির্ধারণ সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি। বৈঠকে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত আরা সাদেক উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া বৈঠকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিবসহ স্থানীয় সরকার বিভাগ, বাণিজ্য, কৃষি, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সচিবরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী বলেন, নতুন নিয়ম অনুযায়ী মূল্যস্ফীতির ওপর নির্ভর করে বেতন-ভাতা নির্ধারণ  করা হবে, এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে ২০১৮ সাল থেকে এটি চালু হবে। আর ২০১৭ সালের বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট ৫ শতাংশ চলমান থাকবে। স্থায়ী পে-কমিশন আর থাকবে না। তিনি বলেন, কোনো বছর বেতন বাড়বে, আবার কোনো বছর বাড়বে না। কারণ মূল্যস্ফীতি ৫ শতাংশের কম হলে বেতন বাড়বে না। কেবল যে বছর মূল্যস্ফীতি ৫ শতাংশে বেশি হবে সে বছরই বেতন সমন্বয় হবে। এ সংক্রান্ত একটি কমিটি করা হচ্ছে, কমিটি তিন মাসের মধ্যে প্রতিবেদন তৈরি করবে। বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, বৈঠকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিবকে (সমন্বয় ও সংস্কার) প্রধান করে ৯ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে জনপ্রশাসন, বাণিজ্য, অর্থ বিভাগ, পরিকল্পনা, পরিসংখ্যান বিভাগের একজন করে সদস্য ছাড়াও সিএজি, বাংলাদেশ ব্যাংক এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একজন করে প্রতিনিধিকে রাখা হয়েছে। এ ছাড়া কমিটি প্রয়োজনে আইন মন্ত্রণালয়সহ অন্য যেকোন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি অন্তর্ভুক্ত  করতে পারবে। সূত্র জানায়, বর্তমানে মূল্যস্ফীতি ৫ শতাংশ ধরে চাকরিজীবীদের ইনক্রিমেন্ট দেওয়া হচ্ছে। এর মধ্যে মূল্যস্ফীতি বাড়লে কিংবা কমলে ইনক্রিমেন্ট কিভাবে নির্ধারণ করা হবে সে বিষয়ে এই কমিটি একটি সুপারিশ আগামী তিন মাসের মধ্যে সরকারের কাছে জমা দেবে।  ওই সুপারিশের ভিত্তিতে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এর আগে গত ২০১৫ সালের ৮ জুলাই সর্বোচ্চ ৭৮ হাজার এবং সর্বনিম্ন ৮ হাজার ২৫০ টাকা মূল ধরে সরকারি কর্মচারীদের জন্য অষ্টম বেতন কাঠামো অনুমোদন করে সরকার। যাতে বেতন বাড়ে গ্রেড ভেদে ৯১ থেকে ১০১ শতাংশ। ওই কাঠামোতে বিসিএস পরীক্ষা দিয়ে প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা পদে যোগ দেওয়া একজন চাকরিজীবীর মূল বেতন হয় মাসে ২২ হাজার টাকা, যা আগের কাঠামোতে ১১ হাজার টাকা ছিল। এর সঙ্গে যুক্ত হবে এলাকা অনুযায়ী বাড়ি ভাড়া এবং গ্রেড অনুযায়ী চিকিৎসা ও অন্যান্য ভাতা। ২১ লাখ সরকারি চাকরিজীবী এই হারে মূল বেতন পাচ্ছেন ২০১৫ সালের ১ জুলাই থেকে। আর ২০১৬ সালের ১ জুলাই থেকে ভাতা কার্যকর হয়েছে।

Comments

Comments!

 মূল্যস্ফীতির ওপর নির্ভর করে বেতন-ভাতা সমন্বয় হবেAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

মূল্যস্ফীতির ওপর নির্ভর করে বেতন-ভাতা সমন্বয় হবে

Sunday, March 12, 2017 9:13 pm
Mohit20170312182259

সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন-ভাতা নির্ধারণে আর কোনো পে-কমিশন গঠন হবে না। তবে আগামী নির্বাচনের আগেই ২০১৮ সাল থেকে অষ্টম পে-স্কেল অনুযায়ী মূল্যস্ফীতির ওপর নির্ভর করে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন সমন্বয় করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

রোববার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে সরকারি চাকরিজীবীদের ভবিষ্যৎ বেতন নির্ধারণ সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

বৈঠকে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত আরা সাদেক উপস্থিত ছিলেন।

এ ছাড়া বৈঠকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিবসহ স্থানীয় সরকার বিভাগ, বাণিজ্য, কৃষি, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সচিবরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী বলেন, নতুন নিয়ম অনুযায়ী মূল্যস্ফীতির ওপর নির্ভর করে বেতন-ভাতা নির্ধারণ  করা হবে, এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে ২০১৮ সাল থেকে এটি চালু হবে। আর ২০১৭ সালের বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট ৫ শতাংশ চলমান থাকবে। স্থায়ী পে-কমিশন আর থাকবে না।

তিনি বলেন, কোনো বছর বেতন বাড়বে, আবার কোনো বছর বাড়বে না। কারণ মূল্যস্ফীতি ৫ শতাংশের কম হলে বেতন বাড়বে না। কেবল যে বছর মূল্যস্ফীতি ৫ শতাংশে বেশি হবে সে বছরই বেতন সমন্বয় হবে। এ সংক্রান্ত একটি কমিটি করা হচ্ছে, কমিটি তিন মাসের মধ্যে প্রতিবেদন তৈরি করবে।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, বৈঠকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিবকে (সমন্বয় ও সংস্কার) প্রধান করে ৯ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে জনপ্রশাসন, বাণিজ্য, অর্থ বিভাগ, পরিকল্পনা, পরিসংখ্যান বিভাগের একজন করে সদস্য ছাড়াও সিএজি, বাংলাদেশ ব্যাংক এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একজন করে প্রতিনিধিকে রাখা হয়েছে। এ ছাড়া কমিটি প্রয়োজনে আইন মন্ত্রণালয়সহ অন্য যেকোন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি অন্তর্ভুক্ত  করতে পারবে।

সূত্র জানায়, বর্তমানে মূল্যস্ফীতি ৫ শতাংশ ধরে চাকরিজীবীদের ইনক্রিমেন্ট দেওয়া হচ্ছে। এর মধ্যে মূল্যস্ফীতি বাড়লে কিংবা কমলে ইনক্রিমেন্ট কিভাবে নির্ধারণ করা হবে সে বিষয়ে এই কমিটি একটি সুপারিশ আগামী তিন মাসের মধ্যে সরকারের কাছে জমা দেবে।  ওই সুপারিশের ভিত্তিতে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

এর আগে গত ২০১৫ সালের ৮ জুলাই সর্বোচ্চ ৭৮ হাজার এবং সর্বনিম্ন ৮ হাজার ২৫০ টাকা মূল ধরে সরকারি কর্মচারীদের জন্য অষ্টম বেতন কাঠামো অনুমোদন করে সরকার। যাতে বেতন বাড়ে গ্রেড ভেদে ৯১ থেকে ১০১ শতাংশ। ওই কাঠামোতে বিসিএস পরীক্ষা দিয়ে প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা পদে যোগ দেওয়া একজন চাকরিজীবীর মূল বেতন হয় মাসে ২২ হাজার টাকা, যা আগের কাঠামোতে ১১ হাজার টাকা ছিল। এর সঙ্গে যুক্ত হবে এলাকা অনুযায়ী বাড়ি ভাড়া এবং গ্রেড অনুযায়ী চিকিৎসা ও অন্যান্য ভাতা।

২১ লাখ সরকারি চাকরিজীবী এই হারে মূল বেতন পাচ্ছেন ২০১৫ সালের ১ জুলাই থেকে। আর ২০১৬ সালের ১ জুলাই থেকে ভাতা কার্যকর হয়েছে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X