বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ২:৫৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, July 26, 2016 7:00 am
A- A A+ Print

যুক্তরাষ্ট্রের ই-মেইল ফাঁসে পুতিনকে সন্দেহ

index_136190

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে ডেমোক্রেটিক পার্টির জাতীয় কমিটির কর্মকর্তাদের ই-মেইল ফাঁসের জন্য রুশ গোয়েন্দা সংস্থাকে সন্দেহ করা হচ্ছে। ডেমোক্রেটদের সম্ভাব্য প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের প্রচার শিবির থেকে বলা হচ্ছে, দলে বিবাদ ঘটিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে সহায়তার জন্য এই ই-মেইল ফাঁস করা হয়েছে। হিলারির প্রচার ব্যবস্থাপক রবি মুক এবিসি টেলিভিশনের এক অনুষ্ঠানে বলেই ফেলেছেন, রাশিয়ানরাই এই ই-মেইল ফাঁসের পেছনে রয়েছে, আর উদ্দেশ্য ট্রাম্পকে সহায়তা করা। এতে রুশ গোয়েন্দা সংস্থার হাত রয়েছে বলে গোয়েন্দাদের মুখ থেকে শোনার পর ডেমোক্রেটদের ঘোরতর সন্দেহ, এর পেছনে নিশ্চয় রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মদদ রয়েছে। ডেমোক্রেটদের এই সন্দেহ নিয়ে রিপাবলিকান প্রার্থী ট্রাম্পের প্রচার শিবির থেকে যে বক্তব্য দেওয়া হয়েছে, তাতে পুতিনের সঙ্গে ট্রাম্পের কোনো ধরনের সম্পর্ক না থাকার উপরই জোর দেওয়া হয়েছে। ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কি পুতিনের কোনো সম্পর্ক রয়েছে- এবিসি টিভিতে এই ট্রাম্পের প্রচার শিবিরের প্রধান পল মানাফোর্টের উত্তর, “না, কখনোই না। এটা পুরোপুরি ভিত্তিহীন।” প্রেসিডেন্ট প্রার্থী চূড়ান্ত করতে ফিলাডেলফিয়ায় ডেমোক্রেটদের সম্মেলন শুরুর ঠিক আগেই শুক্রবার দলটির শীর্ষনেতাদের ২০ হাজারের মতো ফাঁস হওয়া ই-মেইল উইকিলিকসে আসে। এফবিআই এরই মধ্যে এই ই-মেইল ফাঁসের বিষয়ে তদন্তে নেমেছে বলে রয়টার্স জানিয়েছে। সংস্থার এক বিবৃতিতে বলা হয়, “এ ধরনের ঘাটতিকে (সাইবার অনুপ্রবেশের সুযোগ) আমরা খুব গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছি। এফবিআই তদন্ত চালিয়ে যাবে এবং সাইবার স্পেসে এই হুমকি যারা এনেছে, তাদের ধরা হবে।” এদিকে ই-মেইল হ্যাকড হওয়ার বিষয়টি যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদের গোয়েন্দা কমিটিকে অবহিত করা হয়েছে জানিয়ে প্রতিনিধি পরিষদ সদস্য জ্যেষ্ঠ ডেমোক্রেট অ্যাডাম স্নিফ জানান, এ বিষয়ে রাশিয়া বা অন্য কোনো রাষ্ট্রের আসলেই কোনো যোগাযোগ রয়েছে কি না, সে বিষয়ে কমিটি তথ্য সংগ্রহ করবে। এসব ই-মেইলে ডেমোক্রেট প্রেসিডেন্ট পদের প্রার্থী বাচাইয়ের প্রাথমিক পর্বে প্রতিদ্বন্দ্বী বার্নি স্যান্ডার্সের তুলনায় হিলারির প্রতি পক্ষপাতিত্ব করা হয়েছে দেখানোর চেষ্টা লক্ষ্য করা যায়। এ ঘটনার পর চাপের মুখে রোববার ডিএনসি চেয়ারম্যান ডেবি ওয়াজেরম্যান শুল্জ পদত্যাগও করেছেন।

Comments

Comments!

 যুক্তরাষ্ট্রের ই-মেইল ফাঁসে পুতিনকে সন্দেহAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

যুক্তরাষ্ট্রের ই-মেইল ফাঁসে পুতিনকে সন্দেহ

Tuesday, July 26, 2016 7:00 am
index_136190

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে ডেমোক্রেটিক পার্টির জাতীয় কমিটির কর্মকর্তাদের ই-মেইল ফাঁসের জন্য রুশ গোয়েন্দা সংস্থাকে সন্দেহ করা হচ্ছে।

ডেমোক্রেটদের সম্ভাব্য প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের প্রচার শিবির থেকে বলা হচ্ছে, দলে বিবাদ ঘটিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে সহায়তার জন্য এই ই-মেইল ফাঁস করা হয়েছে।

হিলারির প্রচার ব্যবস্থাপক রবি মুক এবিসি টেলিভিশনের এক অনুষ্ঠানে বলেই ফেলেছেন, রাশিয়ানরাই এই ই-মেইল ফাঁসের পেছনে রয়েছে, আর উদ্দেশ্য ট্রাম্পকে সহায়তা করা।

এতে রুশ গোয়েন্দা সংস্থার হাত রয়েছে বলে গোয়েন্দাদের মুখ থেকে শোনার পর ডেমোক্রেটদের ঘোরতর সন্দেহ, এর পেছনে নিশ্চয় রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মদদ রয়েছে।

ডেমোক্রেটদের এই সন্দেহ নিয়ে রিপাবলিকান প্রার্থী ট্রাম্পের প্রচার শিবির থেকে যে বক্তব্য দেওয়া হয়েছে, তাতে পুতিনের সঙ্গে ট্রাম্পের কোনো ধরনের সম্পর্ক না থাকার উপরই জোর দেওয়া হয়েছে।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কি পুতিনের কোনো সম্পর্ক রয়েছে- এবিসি টিভিতে এই ট্রাম্পের প্রচার শিবিরের প্রধান পল মানাফোর্টের উত্তর, “না, কখনোই না। এটা পুরোপুরি ভিত্তিহীন।”

প্রেসিডেন্ট প্রার্থী চূড়ান্ত করতে ফিলাডেলফিয়ায় ডেমোক্রেটদের সম্মেলন শুরুর ঠিক আগেই শুক্রবার দলটির শীর্ষনেতাদের ২০ হাজারের মতো ফাঁস হওয়া ই-মেইল উইকিলিকসে আসে।

এফবিআই এরই মধ্যে এই ই-মেইল ফাঁসের বিষয়ে তদন্তে নেমেছে বলে রয়টার্স জানিয়েছে।

সংস্থার এক বিবৃতিতে বলা হয়, “এ ধরনের ঘাটতিকে (সাইবার অনুপ্রবেশের সুযোগ) আমরা খুব গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছি। এফবিআই তদন্ত চালিয়ে যাবে এবং সাইবার স্পেসে এই হুমকি যারা এনেছে, তাদের ধরা হবে।”

এদিকে ই-মেইল হ্যাকড হওয়ার বিষয়টি যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদের গোয়েন্দা কমিটিকে অবহিত করা হয়েছে জানিয়ে প্রতিনিধি পরিষদ সদস্য জ্যেষ্ঠ ডেমোক্রেট অ্যাডাম স্নিফ জানান, এ বিষয়ে রাশিয়া বা অন্য কোনো রাষ্ট্রের আসলেই কোনো যোগাযোগ রয়েছে কি না, সে বিষয়ে কমিটি তথ্য সংগ্রহ করবে।

এসব ই-মেইলে ডেমোক্রেট প্রেসিডেন্ট পদের প্রার্থী বাচাইয়ের প্রাথমিক পর্বে প্রতিদ্বন্দ্বী বার্নি স্যান্ডার্সের তুলনায় হিলারির প্রতি পক্ষপাতিত্ব করা হয়েছে দেখানোর চেষ্টা লক্ষ্য করা যায়।

এ ঘটনার পর চাপের মুখে রোববার ডিএনসি চেয়ারম্যান ডেবি ওয়াজেরম্যান শুল্জ পদত্যাগও করেছেন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X