শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১১:৫৭
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, September 2, 2016 12:32 am
A- A A+ Print

রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঠেকালেন এমপি কেয়া চৌধুরী

240150_1

গ্রামের দুই গ্রুপের মধ্য তখন সংঘর্ষের উপক্রম। দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে তারা একে অপরের মুখোমুখি। বাকিরা আশপাশে দাঁড়িয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষ দেখছিলেন। এমন সময় ঘটনাস্থলের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন এলাকার সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী। লাঠি-সোটা ও ধারালো অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে মারমুখি অবস্থা দেখে সিলেটের হবিগঞ্জের বাহুবলের এই এমপি ঘটনাস্থলে গিয়ে হাজির হন।তুমুল সংঘর্ষের মাঝখানে গিয়ে তিনি দুই হাত নেড়ে সবাইকে শান্ত করার চেষ্টা করেন।বিবদমান দুই গ্রুপও তখন তাদের এমপিকে দেখে হতচকিত হয়ে যান।এক পর্যায়ে নারী এমপির হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়ে আসে। রক্তাক্ত সংঘর্ষ থেকে রক্ষা পায় গ্রামবাসী। এমপি কেয়া চৌধুরী এ নিয়ে তাঁর ফেসবুকে একটি স্যাটাসে পুরো চিত্রটি তুলে ধরেণ। স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো- “আমি বিকালে মানিক্যা গ্রামে একটা অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলাম। পথে হঠাৎ দেখি, মুখকান্দি গ্রামের দু'পক্ষে ধাওয়া-পাল্টা। সকলের হাতে দেশীয় অস্ত্র। গ্রামের দুইগোষ্ঠীর প্রভাব নিয়ে সংঘর্ষের জের ধরে এ আক্রমণ। আমি নেমে পড়লাম। সকলকে শান্ত করে, পরিস্হিতি সামাল দিলাম। আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞ তা বাহুবলকে খারাপ কিছু থেকে রক্ষা করেছেন বলে।“ কেয়া চৌধুরী এ লেখার সাথে কিছু ছবি ও দিয়েছেন যেখানে দেখা যাচ্ছে একদল মানুষ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে উত্তেজিত ভঙ্গিতে তর্কে লিপ্ত, আর সাংসদ কেয়া চৌধুরী তাদের থামানোর চেষ্টা করছেন।’

Comments

Comments!

 রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঠেকালেন এমপি কেয়া চৌধুরীAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঠেকালেন এমপি কেয়া চৌধুরী

Friday, September 2, 2016 12:32 am
240150_1

গ্রামের দুই গ্রুপের মধ্য তখন সংঘর্ষের উপক্রম। দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে তারা একে অপরের মুখোমুখি। বাকিরা আশপাশে দাঁড়িয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষ দেখছিলেন। এমন সময় ঘটনাস্থলের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন এলাকার সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী। লাঠি-সোটা ও ধারালো অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে মারমুখি অবস্থা দেখে সিলেটের হবিগঞ্জের বাহুবলের এই এমপি ঘটনাস্থলে গিয়ে হাজির হন।তুমুল সংঘর্ষের মাঝখানে গিয়ে তিনি দুই হাত নেড়ে সবাইকে শান্ত করার চেষ্টা করেন।বিবদমান দুই গ্রুপও তখন তাদের এমপিকে দেখে হতচকিত হয়ে যান।এক পর্যায়ে নারী এমপির হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়ে আসে। রক্তাক্ত সংঘর্ষ থেকে রক্ষা পায় গ্রামবাসী।

এমপি কেয়া চৌধুরী এ নিয়ে তাঁর ফেসবুকে একটি স্যাটাসে পুরো চিত্রটি তুলে ধরেণ। স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো- “আমি বিকালে মানিক্যা গ্রামে একটা অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলাম। পথে হঠাৎ দেখি, মুখকান্দি গ্রামের দু’পক্ষে ধাওয়া-পাল্টা। সকলের হাতে দেশীয় অস্ত্র। গ্রামের দুইগোষ্ঠীর প্রভাব নিয়ে সংঘর্ষের জের ধরে এ আক্রমণ। আমি নেমে পড়লাম। সকলকে শান্ত করে, পরিস্হিতি সামাল দিলাম। আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞ তা বাহুবলকে খারাপ কিছু থেকে রক্ষা করেছেন বলে।“ কেয়া চৌধুরী এ লেখার সাথে কিছু ছবি ও দিয়েছেন যেখানে দেখা যাচ্ছে একদল মানুষ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে উত্তেজিত ভঙ্গিতে তর্কে লিপ্ত, আর সাংসদ কেয়া চৌধুরী তাদের থামানোর চেষ্টা করছেন।’

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X