শনিবার, ১৮ই নভেম্বর, ২০১৭ ইং, ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ২:১৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, September 12, 2017 9:24 am
A- A A+ Print

রাখাইনে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনী মোতায়েন করুন : বি. চৌধুরী

5

বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক এ.কিউ.এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশকে নিরপেক্ষ এলাকা ঘোষণা করে অবিলম্বে সেখানে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনী মোতায়েনের আহ্বান জানিয়েছেন। বি. চৌধুরী আজ এক বিবৃতিতে এ আহবান জানিয়ে বলেন, মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে শিশু, নারী, বৃদ্ধা হত্যাসহ অসংখ্য নারীর ইজ্জত লুণ্ঠণ এবং লাখ লাখ মানুষের বাড়ি-ঘর জ্বালিয়ে দেয়ার ঘটনা গত দুই সপ্তাহ ধরে চলছে। এ নির্যাতিত রোহিঙ্গা মুসলমানরা প্রাণভয়ে বাংলাদেশের দিকে ছুটে আসছে, তাদের সমস্যার সমাধান করা বাংলাদেশসহ বিশ্বের সব বিবেকবান দেশ ও মানুষের সামাজিক ও রাজনৈতিক দায়িত্ব। কিন্তু দু:খের বিষয় বিশ্ববিবেক এখনো এ লাঞ্ছিত, দুর্গত মানুষগুলোর পক্ষে যেভাবে জেগে ওঠার কথা সেভাবে জেগে উঠেনি। সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, শান্তির জন্য নোবেল পুরস্কারপ্রাপ্ত অং সাং সু চি মনে হয় তার বিবেককে ঘুম পাড়িয়ে রেখেছেন। না হলে তিনি কেমন করে বলেন, রোহিঙ্গারা নিজেরাই নিজেদের ঘরে আগুন দিয়েছে? ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে সু চি বললেন, রোহিঙ্গারা সন্ত্রাসী এজন্যই সামরিক বাহিনীকে সু চি সরকার রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিয়েছে। অথচ বাস্তবতা হচ্ছে, পৃথিবীর কোনো দেশেই, কোনো জায়গাতেই একজন রোহিঙ্গা মুসলিম সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড লিপ্ত হয়েছেন, এমন কোনো প্রমাণ কেউ দেখাতে পারবে না। তিনি বলেন, আমরা মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানী সন্ত্রাসী সেনাবাহিনীর হাত থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য নিঃশংকচিত্তে প্রতিবেশী দেশ ভারতে আশ্রয় গ্রহণ করেছিলাম। ভারতও সারা পৃথিবীর সাহায্য গ্রহণ করেছে এবং পুরো নয় মাস আমাদের আশ্রয়, থাদ্য, ওষুধ দিয়েছে। অথচ আজকে আমরা হাজার হাজার ধর্ষিতা মা-বোনসহ মিয়ানমার বাহিনীর হাতে অমানবিকভাবে নির্যাতিত, ক্ষুধার্ত, বস্ত্রহীন এবং রোগাক্রান্ত এ মানুষগুলোকে আশ্রয় দিতে কুণ্ঠাবোধ করছি। তিনি প্রশ্ন রাখেন, ভারত যা পেরেছিল, আমরা তা কেনো পারবো না? বি. চৌধুরী অভিযোগ করেন, জাতিসংঘ থেকে প্রতিবাদের ভাষা শোনা যাচ্ছে। সামান্য সাহায্যের অভাস দেয়া হচ্ছে। কিন্তু মুসলিম বিশ্বসহ সারা বিশ্বের কাছে রোহিঙ্গা মুসলমানরা অনেক বেশি সাহায্য-সহযোগিতা আশা করেছিল। তিনি বলেন, আমরা আশা করবো, সারা বিশ্ববিবেকের কাছে জাতিসংঘ রোহিঙ্গাদের রক্ষার জন্য দৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। জাতিসংঘ দ্রুত নির্যাতিত মানুষগুলোর জান-মাল, ইজ্জত রক্ষার জন্য শান্তিরক্ষী বাহিনী প্রেরণ এবং রাখাইন প্রদেশকে নিরপেক্ষ এলাকা ঘোষণা করবে।

Comments

Comments!

 রাখাইনে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনী মোতায়েন করুন : বি. চৌধুরীAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

রাখাইনে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনী মোতায়েন করুন : বি. চৌধুরী

Tuesday, September 12, 2017 9:24 am
5

বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক এ.কিউ.এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশকে নিরপেক্ষ এলাকা ঘোষণা করে অবিলম্বে সেখানে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনী মোতায়েনের আহ্বান জানিয়েছেন।

বি. চৌধুরী আজ এক বিবৃতিতে এ আহবান জানিয়ে বলেন, মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে শিশু, নারী, বৃদ্ধা হত্যাসহ অসংখ্য নারীর ইজ্জত লুণ্ঠণ এবং লাখ লাখ মানুষের বাড়ি-ঘর জ্বালিয়ে দেয়ার ঘটনা গত দুই সপ্তাহ ধরে চলছে। এ নির্যাতিত রোহিঙ্গা মুসলমানরা প্রাণভয়ে বাংলাদেশের দিকে ছুটে আসছে, তাদের সমস্যার সমাধান করা বাংলাদেশসহ বিশ্বের সব বিবেকবান দেশ ও মানুষের সামাজিক ও রাজনৈতিক দায়িত্ব। কিন্তু দু:খের বিষয় বিশ্ববিবেক এখনো এ লাঞ্ছিত, দুর্গত মানুষগুলোর পক্ষে যেভাবে জেগে ওঠার কথা সেভাবে জেগে উঠেনি।

সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, শান্তির জন্য নোবেল পুরস্কারপ্রাপ্ত অং সাং সু চি মনে হয় তার বিবেককে ঘুম পাড়িয়ে রেখেছেন। না হলে তিনি কেমন করে বলেন, রোহিঙ্গারা নিজেরাই নিজেদের ঘরে আগুন দিয়েছে?

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে সু চি বললেন, রোহিঙ্গারা সন্ত্রাসী এজন্যই সামরিক বাহিনীকে সু চি সরকার রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিয়েছে। অথচ বাস্তবতা হচ্ছে, পৃথিবীর কোনো দেশেই, কোনো জায়গাতেই একজন রোহিঙ্গা মুসলিম সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড লিপ্ত হয়েছেন, এমন কোনো প্রমাণ কেউ দেখাতে পারবে না।

তিনি বলেন, আমরা মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানী সন্ত্রাসী সেনাবাহিনীর হাত থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য নিঃশংকচিত্তে প্রতিবেশী দেশ ভারতে আশ্রয় গ্রহণ করেছিলাম। ভারতও সারা পৃথিবীর সাহায্য গ্রহণ করেছে এবং পুরো নয় মাস আমাদের আশ্রয়, থাদ্য, ওষুধ দিয়েছে। অথচ আজকে আমরা হাজার হাজার ধর্ষিতা মা-বোনসহ মিয়ানমার বাহিনীর হাতে অমানবিকভাবে নির্যাতিত, ক্ষুধার্ত, বস্ত্রহীন এবং রোগাক্রান্ত এ মানুষগুলোকে আশ্রয় দিতে কুণ্ঠাবোধ করছি। তিনি প্রশ্ন রাখেন, ভারত যা পেরেছিল, আমরা তা কেনো পারবো না?

বি. চৌধুরী অভিযোগ করেন, জাতিসংঘ থেকে প্রতিবাদের ভাষা শোনা যাচ্ছে। সামান্য সাহায্যের অভাস দেয়া হচ্ছে। কিন্তু মুসলিম বিশ্বসহ সারা বিশ্বের কাছে রোহিঙ্গা মুসলমানরা অনেক বেশি সাহায্য-সহযোগিতা আশা করেছিল।

তিনি বলেন, আমরা আশা করবো, সারা বিশ্ববিবেকের কাছে জাতিসংঘ রোহিঙ্গাদের রক্ষার জন্য দৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। জাতিসংঘ দ্রুত নির্যাতিত মানুষগুলোর জান-মাল, ইজ্জত রক্ষার জন্য শান্তিরক্ষী বাহিনী প্রেরণ এবং রাখাইন প্রদেশকে নিরপেক্ষ এলাকা ঘোষণা করবে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X