শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৩:৫৯
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, December 31, 2016 8:20 am
A- A A+ Print

রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিমদের আহাজারি বাড়ছে

3

ঢাকা: কক্সবাজার সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে ঢোকার চেষ্টা করলে একশোরও বেশি রোহিঙ্গাকে ফেরত পাঠিয়েছে বাংলাদেশের সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বিজিবি। বিজিবির কর্মকর্তারা বলেছেন, ‘মায়ানমার থেকে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে ঢোকার চেষ্টা মাঝে কিছুটা কম ছিল। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে এ ধরনের চেষ্টা আবার কিছুটা বেড়েছে’। সীমান্ত এলাকায় স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বাররা বলছেন, ‘গত কয়েকদিনে যারা বাংলাদেশে এসেছেন তারা জানিয়েছেন যে, রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন আগের তুলনায় আরো বেড়েছে’। টেকনাফ সীমান্তে ৩২ জন রোহিঙ্গাকে বিজিবি ফেরত পাঠিয়েছে গত ২৪ ঘন্টায়। একই সময়ে উখিয়া সীমান্তে আসা ৭৬ জন রোহিঙ্গাকে ফেরত পাঠানো হয়েছে। সীমান্তে নাফ নদীতে কড়াকড়ি পাহারার পরেও দুর্গম সীমান্ত এলাকা দিয়ে কিছু রোহিঙ্গা বাংলাদেশে ঢুকছে। তারা উখিয়া এবং টেকনাফে অনিবন্ধিত শিবিরে আগে থেকে থাকা আত্নীয়-স্বজনের ঘরে আশ্রয় নিচ্ছে। গত বৃহস্পতিবার উখিয়ায় এসে পুরোন অনিবন্ধিত শিবিরে উঠেছেন, এমন একজন নারী বলছিলেন, ‘মায়ানমারে আবারো নির্যাতনের কারণে স্বামী এবং সাত সন্তানসহ তারা নয়জন সীমান্ত পাড়ি দিয়ে এসেছেন’। ওই নারী জানায়, ‘মাঝে কয়েকদিন নির্যাতন বন্ধ ছিল। এখন আবার মায়ানমারের সেনাবাহিনী এবং তাদের সাথে স্থানীয় মাস্তানরা নির্যাতন করছে রোহিঙ্গাদের ওপর। নির্যাতনকারীরা নারীদের টার্গেট করছে। এসব খবর পেয়ে ভয়ে আমরা সীমান্ত পার হয়ে বাংলাদেশে এসেছি’। উখিয়ার অনিবন্ধিত শিবিরের একজন পুরোনো বাসিন্দা বলছিলেন, ‘এখন রোহিঙ্গা যারা পালিয়ে বাংলাদেশে আসছে, মায়ানমারে তাদের ওপর নতুন করে নির্যাতনের অভিযোগ তারা করছে’। নাফ নদীতে সীমান্তের যে পয়েন্টে রোহিঙ্গাদের ঢোকার চেষ্টা বেশি হয়, সেখানকার ইউনিয়ন পরিষদের একজন সদস্য মোহাম্মদ আলী বলেছেন, ‘কয়েকদিন রোহিঙ্গাদের ঢোকার চেষ্টা কম ছিল। এখন আবার বেড়েছে’। আবারো রোহিঙ্গাদের আসা বেড়ে যাওয়ার কথা বিজিবির কর্মকর্তারাও বলছেন। তারা বলেছেন, ‘মায়ানমারে একটা পরিস্থিতি হয়েছে, সেজন্য রোহিঙ্গারা সুযোগ পেলেই বাংলাদেশে আসার চেষ্টা করে। এছাড়া দালালচক্র নির্যাতনের নানান গুজব ছড়িয়ে দিয়েও রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে আনার চেষ্টা করে। ফলে তাদের ঢোকার চেষ্টা কখনো কমছে আবার কখন বাড়ছে’। বৃহস্পতিবার ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, ‘গত কয়েকদিনে রোহিঙ্গাদের ঢোকার চেষ্টা বেড়ে যাওয়ার পর কত সংখ্যক রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে, তা জানা সম্ভব হয়নি। তবে গত আড়াই মাসে ৫০ হাজারের মতো রোহিঙ্গা বাংলাদেশে ঢুকেছে। যারা এসে পড়েছে, তাদের খাদ্যসহ মানবিক সব সহায়তা দেওয়া হচ্ছে বলে কর্মকর্তারা বলছেন’। বিবিসি অবলম্বনে
 

Comments

Comments!

 রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিমদের আহাজারি বাড়ছেAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিমদের আহাজারি বাড়ছে

Saturday, December 31, 2016 8:20 am
3

ঢাকা: কক্সবাজার সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে ঢোকার চেষ্টা করলে একশোরও বেশি রোহিঙ্গাকে ফেরত পাঠিয়েছে বাংলাদেশের সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বিজিবি।

বিজিবির কর্মকর্তারা বলেছেন, ‘মায়ানমার থেকে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে ঢোকার চেষ্টা মাঝে কিছুটা কম ছিল। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে এ ধরনের চেষ্টা আবার কিছুটা বেড়েছে’।

সীমান্ত এলাকায় স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বাররা বলছেন, ‘গত কয়েকদিনে যারা বাংলাদেশে এসেছেন তারা জানিয়েছেন যে, রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন আগের তুলনায় আরো বেড়েছে’।

টেকনাফ সীমান্তে ৩২ জন রোহিঙ্গাকে বিজিবি ফেরত পাঠিয়েছে গত ২৪ ঘন্টায়। একই সময়ে উখিয়া সীমান্তে আসা ৭৬ জন রোহিঙ্গাকে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

সীমান্তে নাফ নদীতে কড়াকড়ি পাহারার পরেও দুর্গম সীমান্ত এলাকা দিয়ে কিছু রোহিঙ্গা বাংলাদেশে ঢুকছে। তারা উখিয়া এবং টেকনাফে অনিবন্ধিত শিবিরে আগে থেকে থাকা আত্নীয়-স্বজনের ঘরে আশ্রয় নিচ্ছে।

গত বৃহস্পতিবার উখিয়ায় এসে পুরোন অনিবন্ধিত শিবিরে উঠেছেন, এমন একজন নারী বলছিলেন, ‘মায়ানমারে আবারো নির্যাতনের কারণে স্বামী এবং সাত সন্তানসহ তারা নয়জন সীমান্ত পাড়ি দিয়ে এসেছেন’।

ওই নারী জানায়, ‘মাঝে কয়েকদিন নির্যাতন বন্ধ ছিল। এখন আবার মায়ানমারের সেনাবাহিনী এবং তাদের সাথে স্থানীয় মাস্তানরা নির্যাতন করছে রোহিঙ্গাদের ওপর। নির্যাতনকারীরা নারীদের টার্গেট করছে। এসব খবর পেয়ে ভয়ে আমরা সীমান্ত পার হয়ে বাংলাদেশে এসেছি’।

উখিয়ার অনিবন্ধিত শিবিরের একজন পুরোনো বাসিন্দা বলছিলেন, ‘এখন রোহিঙ্গা যারা পালিয়ে বাংলাদেশে আসছে, মায়ানমারে তাদের ওপর নতুন করে নির্যাতনের অভিযোগ তারা করছে’।

নাফ নদীতে সীমান্তের যে পয়েন্টে রোহিঙ্গাদের ঢোকার চেষ্টা বেশি হয়, সেখানকার ইউনিয়ন পরিষদের একজন সদস্য মোহাম্মদ আলী বলেছেন, ‘কয়েকদিন রোহিঙ্গাদের ঢোকার চেষ্টা কম ছিল। এখন আবার বেড়েছে’।

আবারো রোহিঙ্গাদের আসা বেড়ে যাওয়ার কথা বিজিবির কর্মকর্তারাও বলছেন। তারা বলেছেন, ‘মায়ানমারে একটা পরিস্থিতি হয়েছে, সেজন্য রোহিঙ্গারা সুযোগ পেলেই বাংলাদেশে আসার চেষ্টা করে। এছাড়া দালালচক্র নির্যাতনের নানান গুজব ছড়িয়ে দিয়েও রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে আনার চেষ্টা করে। ফলে তাদের ঢোকার চেষ্টা কখনো কমছে আবার কখন বাড়ছে’।

বৃহস্পতিবার ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, ‘গত কয়েকদিনে রোহিঙ্গাদের ঢোকার চেষ্টা বেড়ে যাওয়ার পর কত সংখ্যক রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে, তা জানা সম্ভব হয়নি। তবে গত আড়াই মাসে ৫০ হাজারের মতো রোহিঙ্গা বাংলাদেশে ঢুকেছে। যারা এসে পড়েছে, তাদের খাদ্যসহ মানবিক সব সহায়তা দেওয়া হচ্ছে বলে কর্মকর্তারা বলছেন’।

বিবিসি অবলম্বনে

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X