বুধবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:২৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, September 12, 2017 6:16 pm
A- A A+ Print

রুশ এস-৪০০ বিমানবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা কিনছে তুরস্ক

14

আঙ্কারা: রাশিয়ার কাছ থেকে ২৫০ কোটি ডলারের এস-৪০০ বিমানবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা কিনছে তুরস্ক। এ বিষয়ে মস্কোর সঙ্গে চুক্তি সম্পন্ন করেছে আঙ্কারা। তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান বলেছেন, আঙ্কারা ইতোমধ্যে চুক্তির অর্থও পরিশোধ করেছে। সামরিক বাহিনীর বিচারে ন্যাটোর দ্বিতীয় বৃহত্তম সদস্য তুরস্ক। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি হওয়ায় রাশিয়ার দিকে ঝুঁকে পড়েছে তুরস্ক। রাশিয়ার সঙ্গে সুদৃঢ় সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা করছে আঙ্কারা। তুরস্কের কুর্দি বাহিনীর সঙ্গে যুক্ত সিরীয় কুর্দি বাহিনী ওয়াইপিজে-কে সমর্থন না দিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানায় এরদোগান প্রশাসন। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র তাদের কথা শোনেনি। রাশিয়া জানিয়েছে, এস-৪০০ বিমানবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থার পাল্লা ৪০০ কিলোমিটার। এটি একই সঙ্গে ৮০টি বিমান গুলি করে ভূপাতিত করতে পারে। ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে সিরিয়ার লাটাকিয়ায় নিজেদের বিমানঘাঁটিতে এই ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েন করে রাশিয়া। সিরিয়া-তুরস্ক সীমান্তের ওপর দিয়ে প্রদক্ষিণের সময় একটি এসইউ-২৪ রুশ যুদ্ধবিমান তুরস্ক ভূপাতিত করলে সিরিয়ায় এস-৪০০ মোতায়েন করে রাশিয়া। রাশিয়ার বিমান ভূপাতিত করায় তুরস্কের সঙ্গে কূটনৈতিক টানাপোড়েন সৃষ্টি হয়। কিন্তু প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে ঝামেলা মিটিয়ে নেন এরদোগান। নতুন চুক্তির বিষয়ে প্রেসিডেন্ট পুতিনের সামরিক উপদেষ্টা ভ্লাদিমির কোজহিন বলেছেন, তুরস্কের কাছে এস-৪০০ বিক্রির চুক্তি আমাদের কৌশলগত স্বার্থের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ। এ ক্ষেত্রে পশ্চিমা দেশগুলোর কী ধরনের প্রতিক্রিয়া হতে পারে, তা যেকেউ সহজেই বুঝতে পারেন। তারা তুরস্কের ওপর চাপ সৃষ্টির চেষ্টা করছে। হুরিয়াত ডেইলি-তে এরদোগানকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, কিছু পশ্চিমা বন্ধুদেশ (নাম উল্লেখ না করে) সামরিক ড্রোন দেয়ার বিনিময়ে বিপুল অঙ্কের অর্থ চাইছে। কিন্তু গত সপ্তাহে তুরস্কের ড্রোন ব্যবহার করে ওয়াইপিজের ৯০ সন্ত্রাসীকে হত্যা করেছে আমাদের বাহিনী। এ ধরনের ড্রোন তুরস্কেই তৈরি হয়েছে। কিন্তু পশ্চিমা ড্রোনগুলো খুবই ব্যয়বহুল।

Comments

Comments!

 রুশ এস-৪০০ বিমানবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা কিনছে তুরস্কAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

রুশ এস-৪০০ বিমানবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা কিনছে তুরস্ক

Tuesday, September 12, 2017 6:16 pm
14

আঙ্কারা: রাশিয়ার কাছ থেকে ২৫০ কোটি ডলারের এস-৪০০ বিমানবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা কিনছে তুরস্ক। এ বিষয়ে মস্কোর সঙ্গে চুক্তি সম্পন্ন করেছে আঙ্কারা।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান বলেছেন, আঙ্কারা ইতোমধ্যে চুক্তির অর্থও পরিশোধ করেছে।

সামরিক বাহিনীর বিচারে ন্যাটোর দ্বিতীয় বৃহত্তম সদস্য তুরস্ক। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি হওয়ায় রাশিয়ার দিকে ঝুঁকে পড়েছে তুরস্ক। রাশিয়ার সঙ্গে সুদৃঢ় সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা করছে আঙ্কারা।

তুরস্কের কুর্দি বাহিনীর সঙ্গে যুক্ত সিরীয় কুর্দি বাহিনী ওয়াইপিজে-কে সমর্থন না দিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানায় এরদোগান প্রশাসন। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র তাদের কথা শোনেনি।

রাশিয়া জানিয়েছে, এস-৪০০ বিমানবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থার পাল্লা ৪০০ কিলোমিটার। এটি একই সঙ্গে ৮০টি বিমান গুলি করে ভূপাতিত করতে পারে। ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে সিরিয়ার লাটাকিয়ায় নিজেদের বিমানঘাঁটিতে এই ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েন করে রাশিয়া। সিরিয়া-তুরস্ক সীমান্তের ওপর দিয়ে প্রদক্ষিণের সময় একটি এসইউ-২৪ রুশ যুদ্ধবিমান তুরস্ক ভূপাতিত করলে সিরিয়ায় এস-৪০০ মোতায়েন করে রাশিয়া।

রাশিয়ার বিমান ভূপাতিত করায় তুরস্কের সঙ্গে কূটনৈতিক টানাপোড়েন সৃষ্টি হয়। কিন্তু প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে ঝামেলা মিটিয়ে নেন এরদোগান।

নতুন চুক্তির বিষয়ে প্রেসিডেন্ট পুতিনের সামরিক উপদেষ্টা ভ্লাদিমির কোজহিন বলেছেন, তুরস্কের কাছে এস-৪০০ বিক্রির চুক্তি আমাদের কৌশলগত স্বার্থের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ। এ ক্ষেত্রে পশ্চিমা দেশগুলোর কী ধরনের প্রতিক্রিয়া হতে পারে, তা যেকেউ সহজেই বুঝতে পারেন। তারা তুরস্কের ওপর চাপ সৃষ্টির চেষ্টা করছে।

হুরিয়াত ডেইলি-তে এরদোগানকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, কিছু পশ্চিমা বন্ধুদেশ (নাম উল্লেখ না করে) সামরিক ড্রোন দেয়ার বিনিময়ে বিপুল অঙ্কের অর্থ চাইছে। কিন্তু গত সপ্তাহে তুরস্কের ড্রোন ব্যবহার করে ওয়াইপিজের ৯০ সন্ত্রাসীকে হত্যা করেছে আমাদের বাহিনী। এ ধরনের ড্রোন তুরস্কেই তৈরি হয়েছে। কিন্তু পশ্চিমা ড্রোনগুলো খুবই ব্যয়বহুল।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X