মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৪:০১
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, November 25, 2016 7:20 am
A- A A+ Print

রোহিঙ্গা সংকট কাটাতে বৈশ্বিক সহযোগিতা চায় বাংলাদেশ ,পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ব্রিফিং

4

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতা চেয়েছে বাংলাদেশ। প্রতিবেশী দেশটির রাজ্যটিতে দীর্ঘদিনের চ্যালেঞ্জ দূর করতে বাংলাদেশ সব ধরনের সহযোগিতা দিতে তৈরি। এ জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে বাংলাদেশ যথাযথ ভূমিকা পালনেরও অনুরোধ জানিয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বিদেশি কূটনীতিক ও আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিদের কাছে এই অনুরোধ জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। মিয়ানমারের বর্তমান পরিস্থিতি দুই দেশের সম্পর্কে কীভাবে প্রভাব ফেলছে, তা নিয়ে তিনি কূটনীতিকদের ব্রিফ করেন।

এর আগে দুপুরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী তাঁর দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। ওই সংবাদ সম্মেলনে মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ অব্যাহত থাকার বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘কক্সবাজার থেকে টেকনাফ যাওয়ার পথে সীমান্তচৌকি, জঙ্গল, পাহাড় আছে...লোকজনকে আটকানো মুশকিল। জিনিসটা অত সোজা নয়। কিছু ঘটনা আছে, যাতে মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে লোকজনকে ঢুকতে না দিয়ে পারা যায়নি। এ রকমও আছে, গত কয়েক দিনে রাখাইন রাজ্য থেকে বাংলাদেশে ঢুকে পড়া রোহিঙ্গা নাগরিকদের খাবার, ওষুধসহ সব ধরনের মানবিক সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।’সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে বাংলাদেশ চাপ দিতে বলছে কি না জানতে চাইলে মাহমুদ আলী বলেন, বলছে। তবে এ মুহূর্তে এর চেয়ে বেশি বলা সম্ভব নয়। অনিবন্ধিত রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে শরণার্থীর মর্যাদা দেওয়া হবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ মুহূর্তে এমন কোনো পরিকল্পনা নেই।

কূটনীতিকদের জন্য ব্রিফিং: সন্ধ্যায় পদ্মায় বিদেশি কূটনীতিকদের ব্রিফিংয়ের পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, মিয়ানমারের বর্তমান পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের অবস্থান তুলে ধরা হয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী কূটনীতিকদের ব্রিফিংয়ে জানান, গত ৯ অক্টোবর মিয়ানমারের সীমান্তচৌকিতে সন্ত্রাসী হামলার পর দায়িত্বশীল প্রতিবেশী হিসেবে সন্দেহভাজন হামলাকারীদের আটকের পাশাপাশি বাংলাদেশ গোয়েন্দা তথ্য বিনিময় করেছে। বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষীদের অব্যাহত চেষ্টার পরও মিয়ানমার থেকে অব্যাহত রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ বাংলাদেশকে উদ্বিগ্ন করে তুলেছে। মিয়ানমারের মুসলিম সংখ্যালঘুদের বাধ্য হয়ে সীমান্ত পাড়ি দেওয়া বন্ধ করতে সে দেশের সরকারকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেছে বাংলাদেশ। বুধবার ঢাকায় মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে বাংলাদেশ সরকারের উদ্বেগের বিষয়টি তুলে ধরা হয়।

পরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত লোকজনের জন্য সহায়তার প্রয়োজন যে বাড়ছে, সেটি আলোচনায় স্বীকার করেন বিদেশি কূটনীতিকেরা। সহযোগিতার অনুরোধ এলে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় হাত বাড়িয়ে দিতে তৈরি আছে। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ‘প্রতিহিংসামূলক অসংগত পদক্ষেপে’ রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতির অব্যাহত অবনতিতে গভীর উদ্বেগ জানান ঢাকায় জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারী রবার্ট ওয়াটকিন্স।

বর্তমান সংকটসহ মিয়ানমারের দীর্ঘদিনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতা চান মাহমুদ আলী। পররাষ্ট্রমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন, মিয়ানমারের পরিস্থিতি খুব শিগগির স্বাভাবিক হয়ে আসবে। সেই সঙ্গে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন, বাংলাদেশে অস্থায়ীভাবে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের লোকজন কোনো রকম ভীতি ছাড়াই নিজেদের মাতৃভূমিতে ফিরে যাবেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী কূটনীতিকদের জানান, নিরাপত্তা উদ্বেগ দূর করার পাশাপাশি সামাজিক সংহতি প্রতিষ্ঠা ও রাখাইন রাজ্যের জনগণের অর্থনৈতিক উন্নতিতে মিয়ানমারকে প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহায়তা দিতে তৈরি আছে বাংলাদেশ। এ ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কেও তাদের দায়িত্ব পালনের তাগিদ দিয়েছেন তিনি। এই সমস্যার সমাধানে সমন্বিত উদ্যোগ নেওয়ার জন্য নিজেদের সরকারকে সংবেদনশীল করতে তিনি কূটনীতিকদের অনুরোধ জানান।

ব্রিফিংয়ে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, চীন, ভারত, স্পেন, ডেনমার্ক, নরওয়ে, মালয়েশিয়া, সুইজারল্যান্ড ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের শীর্ষ কূটনীতিক এবং জাতিসংঘসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

জাতিগত নিধনের অভিযোগ

জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর অভিযোগ করেছে, মিয়ানমার সরকার সে দেশের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে জাতিগত নিধন অভিযান চালাচ্ছে। কক্সবাজারে ইউএনএইচসিআর দপ্তরের প্রধান কর্মকর্তা জন ম্যাককিসিক বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে গতকাল এই অভিযোগ করেন।

ওআইসির উদ্বেগ

এদিকে ইসলামি সহযোগিতা সংস্থা (ওআইসি) চলমান নিরাপত্তা অভিযানে রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতি ক্রমেই খারাপ হতে থাকায় গভীর উদ্বেগ জানিয়েছে। সংস্থার মহাসচিব ইউসুফ আল-ওথাইমিন অবিলম্বে সহিংসতা বন্ধ করতে এবং নিরাপত্তা বাহিনীকে আইনের শাসন অনুসরণ করে চলতে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। এ ছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত লোকজনের ত্রাণ সহায়তায় সাহায্য সংস্থাগুলোকে কাজ করার সুযোগ করে দিতে বলেন তিনি। আন্তর্জাতিক আইন ও মানবাধিকার সনদের বাধ্যবাধকতা মেনে চলতে এবং রাখাইন রাজ্যে পরিস্থিতি নতুন করে খারাপের দিকে যাওয়া বন্ধ করতে তিনি মিয়ানমার সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ নির্যাতনের শিকার মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের আশ্রয় ও সুরক্ষা দেওয়ার জন্য বাংলাদেশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। বুধবার সংস্থাটির দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক মীনাক্ষী গাঙ্গুলী এক বিবৃতিতে এ আহ্বান জানান।

Comments

Comments!

 রোহিঙ্গা সংকট কাটাতে বৈশ্বিক সহযোগিতা চায় বাংলাদেশ ,পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ব্রিফিংAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

রোহিঙ্গা সংকট কাটাতে বৈশ্বিক সহযোগিতা চায় বাংলাদেশ ,পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ব্রিফিং

Friday, November 25, 2016 7:20 am
4

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতা চেয়েছে বাংলাদেশ। প্রতিবেশী দেশটির রাজ্যটিতে দীর্ঘদিনের চ্যালেঞ্জ দূর করতে বাংলাদেশ সব ধরনের সহযোগিতা দিতে তৈরি। এ জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে বাংলাদেশ যথাযথ ভূমিকা পালনেরও অনুরোধ জানিয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বিদেশি কূটনীতিক ও আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিদের কাছে এই অনুরোধ জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। মিয়ানমারের বর্তমান পরিস্থিতি দুই দেশের সম্পর্কে কীভাবে প্রভাব ফেলছে, তা নিয়ে তিনি কূটনীতিকদের ব্রিফ করেন।

এর আগে দুপুরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী তাঁর দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। ওই সংবাদ সম্মেলনে মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ অব্যাহত থাকার বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘কক্সবাজার থেকে টেকনাফ যাওয়ার পথে সীমান্তচৌকি, জঙ্গল, পাহাড় আছে…লোকজনকে আটকানো মুশকিল। জিনিসটা অত সোজা নয়। কিছু ঘটনা আছে, যাতে মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে লোকজনকে ঢুকতে না দিয়ে পারা যায়নি। এ রকমও আছে, গত কয়েক দিনে রাখাইন রাজ্য থেকে বাংলাদেশে ঢুকে পড়া রোহিঙ্গা নাগরিকদের খাবার, ওষুধসহ সব ধরনের মানবিক সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।’সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে বাংলাদেশ চাপ দিতে বলছে কি না জানতে চাইলে মাহমুদ আলী বলেন, বলছে। তবে এ মুহূর্তে এর চেয়ে বেশি বলা সম্ভব নয়। অনিবন্ধিত রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে শরণার্থীর মর্যাদা দেওয়া হবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ মুহূর্তে এমন কোনো পরিকল্পনা নেই।

কূটনীতিকদের জন্য ব্রিফিং: সন্ধ্যায় পদ্মায় বিদেশি কূটনীতিকদের ব্রিফিংয়ের পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, মিয়ানমারের বর্তমান পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের অবস্থান তুলে ধরা হয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী কূটনীতিকদের ব্রিফিংয়ে জানান, গত ৯ অক্টোবর মিয়ানমারের সীমান্তচৌকিতে সন্ত্রাসী হামলার পর দায়িত্বশীল প্রতিবেশী হিসেবে সন্দেহভাজন হামলাকারীদের আটকের পাশাপাশি বাংলাদেশ গোয়েন্দা তথ্য বিনিময় করেছে। বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষীদের অব্যাহত চেষ্টার পরও মিয়ানমার থেকে অব্যাহত রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ বাংলাদেশকে উদ্বিগ্ন করে তুলেছে। মিয়ানমারের মুসলিম সংখ্যালঘুদের বাধ্য হয়ে সীমান্ত পাড়ি দেওয়া বন্ধ করতে সে দেশের সরকারকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেছে বাংলাদেশ। বুধবার ঢাকায় মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে বাংলাদেশ সরকারের উদ্বেগের বিষয়টি তুলে ধরা হয়।

পরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত লোকজনের জন্য সহায়তার প্রয়োজন যে বাড়ছে, সেটি আলোচনায় স্বীকার করেন বিদেশি কূটনীতিকেরা। সহযোগিতার অনুরোধ এলে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় হাত বাড়িয়ে দিতে তৈরি আছে। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ‘প্রতিহিংসামূলক অসংগত পদক্ষেপে’ রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতির অব্যাহত অবনতিতে গভীর উদ্বেগ জানান ঢাকায় জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারী রবার্ট ওয়াটকিন্স।

বর্তমান সংকটসহ মিয়ানমারের দীর্ঘদিনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতা চান মাহমুদ আলী। পররাষ্ট্রমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন, মিয়ানমারের পরিস্থিতি খুব শিগগির স্বাভাবিক হয়ে আসবে। সেই সঙ্গে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন, বাংলাদেশে অস্থায়ীভাবে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের লোকজন কোনো রকম ভীতি ছাড়াই নিজেদের মাতৃভূমিতে ফিরে যাবেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী কূটনীতিকদের জানান, নিরাপত্তা উদ্বেগ দূর করার পাশাপাশি সামাজিক সংহতি প্রতিষ্ঠা ও রাখাইন রাজ্যের জনগণের অর্থনৈতিক উন্নতিতে মিয়ানমারকে প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহায়তা দিতে তৈরি আছে বাংলাদেশ। এ ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কেও তাদের দায়িত্ব পালনের তাগিদ দিয়েছেন তিনি। এই সমস্যার সমাধানে সমন্বিত উদ্যোগ নেওয়ার জন্য নিজেদের সরকারকে সংবেদনশীল করতে তিনি কূটনীতিকদের অনুরোধ জানান।

ব্রিফিংয়ে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, চীন, ভারত, স্পেন, ডেনমার্ক, নরওয়ে, মালয়েশিয়া, সুইজারল্যান্ড ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের শীর্ষ কূটনীতিক এবং জাতিসংঘসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

জাতিগত নিধনের অভিযোগ

জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর অভিযোগ করেছে, মিয়ানমার সরকার সে দেশের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে জাতিগত নিধন অভিযান চালাচ্ছে। কক্সবাজারে ইউএনএইচসিআর দপ্তরের প্রধান কর্মকর্তা জন ম্যাককিসিক বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে গতকাল এই অভিযোগ করেন।

ওআইসির উদ্বেগ

এদিকে ইসলামি সহযোগিতা সংস্থা (ওআইসি) চলমান নিরাপত্তা অভিযানে রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতি ক্রমেই খারাপ হতে থাকায় গভীর উদ্বেগ জানিয়েছে। সংস্থার মহাসচিব ইউসুফ আল-ওথাইমিন অবিলম্বে সহিংসতা বন্ধ করতে এবং নিরাপত্তা বাহিনীকে আইনের শাসন অনুসরণ করে চলতে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। এ ছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত লোকজনের ত্রাণ সহায়তায় সাহায্য সংস্থাগুলোকে কাজ করার সুযোগ করে দিতে বলেন তিনি। আন্তর্জাতিক আইন ও মানবাধিকার সনদের বাধ্যবাধকতা মেনে চলতে এবং রাখাইন রাজ্যে পরিস্থিতি নতুন করে খারাপের দিকে যাওয়া বন্ধ করতে তিনি মিয়ানমার সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ নির্যাতনের শিকার মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের আশ্রয় ও সুরক্ষা দেওয়ার জন্য বাংলাদেশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। বুধবার সংস্থাটির দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক মীনাক্ষী গাঙ্গুলী এক বিবৃতিতে এ আহ্বান জানান।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X