শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৪:১৯
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, January 24, 2017 9:20 am
A- A A+ Print

রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে আরো সময় চায় মায়ানমার

7

ইয়াঙ্গুন: মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর দেশটির সেনাবাহীনির চালানো নির্যাতন ও সৃষ্ট সংকট নিরসনের জন্য আরো সময় চায় দেশটির সরকার। সোমবার সিঙ্গাপুরে এক নিরাপত্তা ফেরামে মায়ানমারের প্রতিরক্ষা উপপ্রধান রিয়ার অ্যাডমিরাল মিন্ট নোয়ে বলেন, মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে ব্যাপকভাবে প্রচারিত খবরাখবর সম্পর্কে উদ্বেগ বাড়ছে এবং এই বিষয়ে সরকার অবহিত।  সরকার এই পরিস্থিতি মোকাবিলা এবং দোষী ব্যক্তিদের শাস্তি দিতে অঙ্গীকারবদ্ধ। নিরপরাধ বেসামরিক লোকজনের মানবাধিকার লঙ্ঘনের অপরাধ সরকার ক্ষমা করবে না। ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজের আয়োজনে ফুলারটন ফোরামে মালয়েশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী হিশামুদ্দিনের হুঁশিয়ারি জবাবে হুসেইনের মিন্ট নোয়ে এসব কথা বলেন। ফোরামের আলোচনায় হিশামুদ্দিন হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, রাখাইনের পরিস্থিতি ঠিকমতো নিয়ন্ত্রণ না করলে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) মতো জঙ্গি সংগঠনগুলো সুযোগ নিতে পারে। কারণ, তারা দক্ষিণ-পূর্ণ এশিয়ায় একটি ঘাঁটি গড়তে চাইছে। রোহিঙ্গা সংকটের বিষয়টি আসিয়ানের সংহতির জন্য একটি পরীক্ষা হতে চলেছে। ধামাচাপা না দিয়ে এর সমাধান করতে হবে। এটা মুসলিমদের অনেকের ওপর প্রভাব ফেলেছে এবং বিষয়টিতে আবেগ যুক্ত রয়েছে। মায়ানমারের সেনাবাহিনী গত অক্টোবর থেকে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য রাখাইনে কথিত বিদ্রোহীদের নির্মূল করতে ব্যাপক অভিযান শুরু করে। ওই বিদ্রোহীরা সীমান্তের একাধিক পুলিশি চৌকিতে হামলা করেছিল বলে অভিযোগ রয়েছে। ওই অভিযানের পর থেকে অন্তত ৬৬ হাজার রোহিঙ্গা পালিয়ে প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। রাখাইনে সেনাবাহিনী তাদের ওপর খুন, ধর্ষণ ও নির্যাতন চালিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

Comments

Comments!

 রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে আরো সময় চায় মায়ানমারAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে আরো সময় চায় মায়ানমার

Tuesday, January 24, 2017 9:20 am
7

ইয়াঙ্গুন: মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর দেশটির সেনাবাহীনির চালানো নির্যাতন ও সৃষ্ট সংকট নিরসনের জন্য আরো সময় চায় দেশটির সরকার।

সোমবার সিঙ্গাপুরে এক নিরাপত্তা ফেরামে মায়ানমারের প্রতিরক্ষা উপপ্রধান রিয়ার অ্যাডমিরাল মিন্ট নোয়ে বলেন, মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে ব্যাপকভাবে প্রচারিত খবরাখবর সম্পর্কে উদ্বেগ বাড়ছে এবং এই বিষয়ে সরকার অবহিত।  সরকার এই পরিস্থিতি মোকাবিলা এবং দোষী ব্যক্তিদের শাস্তি দিতে অঙ্গীকারবদ্ধ। নিরপরাধ বেসামরিক লোকজনের মানবাধিকার লঙ্ঘনের অপরাধ সরকার ক্ষমা করবে না।

ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজের আয়োজনে ফুলারটন ফোরামে মালয়েশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী হিশামুদ্দিনের হুঁশিয়ারি জবাবে হুসেইনের মিন্ট নোয়ে এসব কথা বলেন।

ফোরামের আলোচনায় হিশামুদ্দিন হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, রাখাইনের পরিস্থিতি ঠিকমতো নিয়ন্ত্রণ না করলে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) মতো জঙ্গি সংগঠনগুলো সুযোগ নিতে পারে। কারণ, তারা দক্ষিণ-পূর্ণ এশিয়ায় একটি ঘাঁটি গড়তে চাইছে। রোহিঙ্গা সংকটের বিষয়টি আসিয়ানের সংহতির জন্য একটি পরীক্ষা হতে চলেছে। ধামাচাপা না দিয়ে এর সমাধান করতে হবে। এটা মুসলিমদের অনেকের ওপর প্রভাব ফেলেছে এবং বিষয়টিতে আবেগ যুক্ত রয়েছে।

মায়ানমারের সেনাবাহিনী গত অক্টোবর থেকে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য রাখাইনে কথিত বিদ্রোহীদের নির্মূল করতে ব্যাপক অভিযান শুরু করে। ওই বিদ্রোহীরা সীমান্তের একাধিক পুলিশি চৌকিতে হামলা করেছিল বলে অভিযোগ রয়েছে। ওই অভিযানের পর থেকে অন্তত ৬৬ হাজার রোহিঙ্গা পালিয়ে প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। রাখাইনে সেনাবাহিনী তাদের ওপর খুন, ধর্ষণ ও নির্যাতন চালিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X