শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১২:০৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, January 10, 2017 4:26 pm
A- A A+ Print

রোদচশমা পছন্দ করার ৫ পরামর্শ

e42d64ecb74999ff86980132adb3cb2a-sunglass3

এই শীতে চোখের যত্নে চশমা পরা জরুরি। চোখে যাতে অতিবেগুনি রশ্মি সরাসরি না পড়ে বা ধুলোবালুতে চোখের ক্ষতি না হয়, তা খেয়াল রাখা জরুরি। এ জন্য চশমা কেনার সময় কয়েকটি বিষয় খেয়াল রাখতে পারেন। এর মধ্যে চশমা অতিবেগুনি রশ্মি প্রতিরোধক কি না এবং চশমা মুখের গড়নের সঙ্গে যায় কি না, তা বিবেচনায় রাখতে হবে। রোদচশমা ব্যবহারের ক্ষেত্রে কোনো বাঁধাধরা নিয়ম নেই। ব্যবহারিক দিক থেকে যেটি সুবিধাজনক এবং মুখের সঙ্গে মানানসই, সেটি কেনা যেতে পারে। বাজারে পুরুষ ও নারীদের জন্য আলাদা রকমের রোদচশমা রয়েছে। সেখান থেকে যাচাই-বাছাই করে পছন্দমতো রোদচশমা কিনতে পারেন আগ্রহী ব্যক্তিরা। চোখের চারপাশের ত্বক রোদে পুড়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করতে রোদচশমা ব্যবহার জরুরি৷ প্রখর রোদে চশমা আরাম দেয় চোখে ৷ তবে সব রোদচশমা আরাম না দিয়ে ক্ষতি করতে পারে৷ যেমন বাঁকা গ্লাস বা ফ্রেম শক্ত হলে চোখে ব্যথা হতে পারে। বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে৷ ভালো রোদচশমার লেন্স অতিবেগুনি রশ্মির ৯৯ থেকে ১০০ শতাংশ আটকে দিতে পারে। এ ছাড়া দৃশ্যমান রোদের ৭৫ থেকে ৯০ শতাংশ থেকে চোখকে আড়াল করে রাখে। এই রোদচশমা রং ও আলো শোষণে সঠিকভাবে সামঞ্জস্যপূর্ণ এবং বিকৃতি ও অসম্পূর্ণতা থেকে মুক্ত। আলো ও রং সঠিকভাবে বুঝতে হলে ধূসর সানগ্লাস ভালো। রোদচশমা বা সানগ্লাস কেনার আছে যেগুলো মনে রাখবেন: ১. রোদচশমার লক্ষ্য হচ্ছে চোখের সুরক্ষা। এই শীতেও সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি যাতে চোখে না পড়ে, সে জন্য চশমা কেনার সময় তা আলট্রাভায়োলেট লাইট সুরক্ষিত কি না, তা অবশ্যই দেখে নেবেন। ২. চশমার ফ্রেম আপনার মুখের গড়নের সঙ্গে যায় কি না, তা দেখে নিন। মুখের আকারের সঙ্গে ফ্রেমের আকার বাছাই করতে কয়েকটি চশমা পরে দেখুন। মুখ বড় হলে বড় ফ্রেম নিন। মুখের গড়ন ছোট হলে ছোট ফ্রেমই ভালো। চশমা কিনতে যাওয়ার আগে নিজের মুখের সঙ্গে কেমন চশমা মানাবে, তা ধারণা করে নিন। ৩. ফ্রেম কিসে তৈরি, সে বিষয়টি বিবেচনায় নিন। কারণ, ফ্রেমের কারণে চশমা পরে অস্বস্তি হতে পারে। চশমার ব্যবহার, যত্ন ও স্বস্তির কথা বিবেচনায় ফ্রেমের উপাদান কিসে তৈরি, তা ঠিক করুন। আপনার সঙ্গে মানানসই হবে, এমন ধাতব, প্লাস্টিক বা টাইটেনিয়াম ফ্রেম নিতে পারেন। ৪. গ্ল্যামার হিসেবে চশমার লেন্সের বিভিন্ন রং থেকে বেছে নিতে পারেন। সবুজ, ধূসর, বাদামি, হলুদ, সোনালি, গোলাপি বা নীল রঙের মধ্যে থেকে পছন্দ করুন। ৫. চশমা কেনার সময় মানের সঙ্গে আপস করবেন না। চশমা যাতে কিছুদিন টেকে, এমন চশমা কিনুন। তথ্যসূত্র: আইএএনএস।

Comments

Comments!

 রোদচশমা পছন্দ করার ৫ পরামর্শAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

রোদচশমা পছন্দ করার ৫ পরামর্শ

Tuesday, January 10, 2017 4:26 pm
e42d64ecb74999ff86980132adb3cb2a-sunglass3

এই শীতে চোখের যত্নে চশমা পরা জরুরি। চোখে যাতে অতিবেগুনি রশ্মি সরাসরি না পড়ে বা ধুলোবালুতে চোখের ক্ষতি না হয়, তা খেয়াল রাখা জরুরি। এ জন্য চশমা কেনার সময় কয়েকটি বিষয় খেয়াল রাখতে পারেন। এর মধ্যে চশমা অতিবেগুনি রশ্মি প্রতিরোধক কি না এবং চশমা মুখের গড়নের সঙ্গে যায় কি না, তা বিবেচনায় রাখতে হবে।

রোদচশমা ব্যবহারের ক্ষেত্রে কোনো বাঁধাধরা নিয়ম নেই। ব্যবহারিক দিক থেকে যেটি সুবিধাজনক এবং মুখের সঙ্গে মানানসই, সেটি কেনা যেতে পারে। বাজারে পুরুষ ও নারীদের জন্য আলাদা রকমের রোদচশমা রয়েছে। সেখান থেকে যাচাই-বাছাই করে পছন্দমতো রোদচশমা কিনতে পারেন আগ্রহী ব্যক্তিরা।

চোখের চারপাশের ত্বক রোদে পুড়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করতে রোদচশমা ব্যবহার জরুরি৷ প্রখর রোদে চশমা আরাম দেয় চোখে ৷ তবে সব রোদচশমা আরাম না দিয়ে ক্ষতি করতে পারে৷ যেমন বাঁকা গ্লাস বা ফ্রেম শক্ত হলে চোখে ব্যথা হতে পারে। বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে৷

ভালো রোদচশমার লেন্স অতিবেগুনি রশ্মির ৯৯ থেকে ১০০ শতাংশ আটকে দিতে পারে। এ ছাড়া দৃশ্যমান রোদের ৭৫ থেকে ৯০ শতাংশ থেকে চোখকে আড়াল করে রাখে। এই রোদচশমা রং ও আলো শোষণে সঠিকভাবে সামঞ্জস্যপূর্ণ এবং বিকৃতি ও অসম্পূর্ণতা থেকে মুক্ত। আলো ও রং সঠিকভাবে বুঝতে হলে ধূসর সানগ্লাস ভালো।

রোদচশমা বা সানগ্লাস কেনার আছে যেগুলো মনে রাখবেন:
১. রোদচশমার লক্ষ্য হচ্ছে চোখের সুরক্ষা। এই শীতেও সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি যাতে চোখে না পড়ে, সে জন্য চশমা কেনার সময় তা আলট্রাভায়োলেট লাইট সুরক্ষিত কি না, তা অবশ্যই দেখে নেবেন।
২. চশমার ফ্রেম আপনার মুখের গড়নের সঙ্গে যায় কি না, তা দেখে নিন। মুখের আকারের সঙ্গে ফ্রেমের আকার বাছাই করতে কয়েকটি চশমা পরে দেখুন। মুখ বড় হলে বড় ফ্রেম নিন। মুখের গড়ন ছোট হলে ছোট ফ্রেমই ভালো। চশমা কিনতে যাওয়ার আগে নিজের মুখের সঙ্গে কেমন চশমা মানাবে, তা ধারণা করে নিন।
৩. ফ্রেম কিসে তৈরি, সে বিষয়টি বিবেচনায় নিন। কারণ, ফ্রেমের কারণে চশমা পরে অস্বস্তি হতে পারে। চশমার ব্যবহার, যত্ন ও স্বস্তির কথা বিবেচনায় ফ্রেমের উপাদান কিসে তৈরি, তা ঠিক করুন। আপনার সঙ্গে মানানসই হবে, এমন ধাতব, প্লাস্টিক বা টাইটেনিয়াম ফ্রেম নিতে পারেন।
৪. গ্ল্যামার হিসেবে চশমার লেন্সের বিভিন্ন রং থেকে বেছে নিতে পারেন। সবুজ, ধূসর, বাদামি, হলুদ, সোনালি, গোলাপি বা নীল রঙের মধ্যে থেকে পছন্দ করুন।
৫. চশমা কেনার সময় মানের সঙ্গে আপস করবেন না। চশমা যাতে কিছুদিন টেকে, এমন চশমা কিনুন। তথ্যসূত্র: আইএএনএস।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X