মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৯:৫৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, December 5, 2016 11:30 pm
A- A A+ Print

রোহিঙ্গা ইস্যুতে বৌদ্ধ-হেফাজত বৈঠক

666

মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন নিয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সরব হতে বাংলাদেশের বৌদ্ধ নেতাদের প্রতি আহবান জানিয়েছে মাদ্রাসা-ভিত্তিক ইসলামপন্থী দল হেফাজতে ইসলাম। গত শনিবার বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের এক প্রতিনিধিদল হেফাজতের প্রধান আহমেদ শফীর সাথে দেখা করতে গেলে এই আহ্বান জানানো হয়। বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রামের হাটহাজারিতে আহমেদ শফীর কার্যালয়ে এই বৈঠক হয়। মূলত: বৌদ্ধ নেতাদের আগ্রহেই এই বৈঠক হয় বলে উভয়পক্ষ স্বীকার করছে। মায়ানমার যেহেতু বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ এবং সেখানকার রাখাইন প্রদেশে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর নির্যাতনের বিষয়টি যাতে সীমান্তের এপারে বৌদ্ধদের ওপর কোনো নেতিবাচক প্রভাব না ফেলে সেই লক্ষ্য নিয়ে বৌদ্ধ নেতারা ইদানীং নানা ধরনের বক্তব্য দিচ্ছেন। হেফাজতের আমীরের প্রেস সচিব মুনির আহমেদ জানান, মায়ানমারের ঘটনায় বাংলাদেশি বৌদ্ধরা যে ব্যথিত ও ক্ষুব্ধ বৈঠকে সেটাই তুলে ধরা হয়েছে। ২০১২ সালে কক্সবাজার জেলার রামুতে বৌদ্ধ ঘরবাড়ি এবং মন্দিরে ব্যাপক হামলা চালানো হয়। ওই হামলার আগে মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর নিপীড়নের খবর প্রচারিত হয়েছিল। বাংলাদেশে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় অংশের বসবাস বৃহত্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলে। সেখানে হেফাজতের প্রভাবও প্রবল। কিন্তু সম্ভাব্য আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে যদি বৌদ্ধদের কোনো উদ্বেগ থেকেই থাকে, তার জন্য কেনো তারা হেফাজতে ইসলামীর সাথে বৈঠক করলেন? ওই বৈঠকের উদ্যোক্তাদের একজন সম্মিলিত বৌদ্ধ নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক লোকপ্রিয় বড়ুয়া এই প্রশ্নটির কোনো সরাসরি জবাব না দিয়ে এড়িয়ে যান। তিনি জানান, এই বিষয় নিয়ে তারা সরকারের সাথেও কথাবার্তা বলছেন। বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের নেতারা অবশ্য অনানুষ্ঠানিকভাবে স্বীকার করছেন যে হেফাজতকে নিয়ে তাদের মধ্যে অস্বস্তি রয়েছে। তাই রোহিঙ্গা প্রশ্নে হেফাজতের মনোভাব বুঝতে এবং নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করতেই এই বৈঠকটি হলো। সূত্র: বিবিসি
 

Comments

Comments!

 রোহিঙ্গা ইস্যুতে বৌদ্ধ-হেফাজত বৈঠকAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

রোহিঙ্গা ইস্যুতে বৌদ্ধ-হেফাজত বৈঠক

Monday, December 5, 2016 11:30 pm
666

মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন নিয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সরব হতে বাংলাদেশের বৌদ্ধ নেতাদের প্রতি আহবান জানিয়েছে মাদ্রাসা-ভিত্তিক ইসলামপন্থী দল হেফাজতে ইসলাম।

গত শনিবার বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের এক প্রতিনিধিদল হেফাজতের প্রধান আহমেদ শফীর সাথে দেখা করতে গেলে এই আহ্বান জানানো হয়।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রামের হাটহাজারিতে আহমেদ শফীর কার্যালয়ে এই বৈঠক হয়। মূলত: বৌদ্ধ নেতাদের আগ্রহেই এই বৈঠক হয় বলে উভয়পক্ষ স্বীকার করছে।

মায়ানমার যেহেতু বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ এবং সেখানকার রাখাইন প্রদেশে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর নির্যাতনের বিষয়টি যাতে সীমান্তের এপারে বৌদ্ধদের ওপর কোনো নেতিবাচক প্রভাব না ফেলে সেই লক্ষ্য নিয়ে বৌদ্ধ নেতারা ইদানীং নানা ধরনের বক্তব্য দিচ্ছেন।

হেফাজতের আমীরের প্রেস সচিব মুনির আহমেদ জানান, মায়ানমারের ঘটনায় বাংলাদেশি বৌদ্ধরা যে ব্যথিত ও ক্ষুব্ধ বৈঠকে সেটাই তুলে ধরা হয়েছে।

২০১২ সালে কক্সবাজার জেলার রামুতে বৌদ্ধ ঘরবাড়ি এবং মন্দিরে ব্যাপক হামলা চালানো হয়। ওই হামলার আগে মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর নিপীড়নের খবর প্রচারিত হয়েছিল।

বাংলাদেশে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় অংশের বসবাস বৃহত্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলে। সেখানে হেফাজতের প্রভাবও প্রবল। কিন্তু সম্ভাব্য আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে যদি বৌদ্ধদের কোনো উদ্বেগ থেকেই থাকে, তার জন্য কেনো তারা হেফাজতে ইসলামীর সাথে বৈঠক করলেন?

ওই বৈঠকের উদ্যোক্তাদের একজন সম্মিলিত বৌদ্ধ নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক লোকপ্রিয় বড়ুয়া এই প্রশ্নটির কোনো সরাসরি জবাব না দিয়ে এড়িয়ে যান। তিনি জানান, এই বিষয় নিয়ে তারা সরকারের সাথেও কথাবার্তা বলছেন। বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের নেতারা অবশ্য অনানুষ্ঠানিকভাবে স্বীকার করছেন যে হেফাজতকে নিয়ে তাদের মধ্যে অস্বস্তি রয়েছে। তাই রোহিঙ্গা প্রশ্নে হেফাজতের মনোভাব বুঝতে এবং নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করতেই এই বৈঠকটি হলো।

সূত্র: বিবিসি

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X