শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১০:২০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, July 26, 2016 11:04 am
A- A A+ Print

লালমনিরহাটে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি: পানিবন্দী লক্ষাধিক মানুষ

islampur flood_136214

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে লালমনিরহাটে সৃষ্ট বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। বাড়ি ঘরে ফের পানি ওঠেছে। বন্যা কবলিত এলাকায় দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানি ও খাদ্য সংকট। ফলে বিশুদ্ধ পানির অভাবে দেখা দিচ্ছে পানিবাহিত নানান রোগ। পানিতে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। সদর এলাকার কুলাঘাটে  ধরলা নদীর ফ্লাড বাইপাস ভেঙ্গে ৩টি গ্রাম পানিতে তলিয়ে গেছে। পানিতে নিমজ্জিত রয়েছে দুই হাজার হেক্টর জমির বীজতলা, রোপা আমন ধান, কলা বাগান, সবজি ও ভূট্টা ক্ষেত। মাছের ঘের, পুকুর ও জলাশয়  পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় ১০ লাখ টাকার মাছ পানিতে ভেসে গেছে। এদিকে পানি বন্দী এলাকায় মানবেতর জীবন কাটাচ্ছেন বন্যার্তরা। ঘরে পানি ওঠায় লোকজন রাস্তায়, উঁচু জায়গায় রাত্রি যাপন করছে। অপরদিকে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ভাঙ্গন রক্ষা বাঁধ এখন পড়েছে তিস্তা নদীর ভাঙ্গন গ্রাসে। লালমনিরহাট সদর উপজেলার রাজপুর ইউনিয়নে এ বাঁধটি ভাঙছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহায়তায় স্থানীয় লোকজন বালু ভর্তি জিও ব্যাগ পানিতে ফেলে বাঁধটি ভাঙ্গনের কবল থেকে রক্ষার চেষ্টা করছেন। বাঁধটিতে তিস্তা নদীর ভাঙ্গন সৃষ্টি হওয়ায় শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন ওই ইউনিয়নের ছয়টি গ্রামের সহস্রাধিক পরিবারের লোকজন। কারণ বাঁধটি ভেঙ্গে গেলে এ সকল পরিবারের লোকজন বসতভিটা হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে যাবেন। নদী গর্ভে চলে যাবে সহস্রাধিক বিঘা আবাদি জমি, শতাধিক ফলের বাগান, কয়েকটি স্কুল মাদ্রাসা, মসজিদ, মন্দির ও স্থাপনা।  ডালিয়া  উন্নয়ন বোর্ডের  নির্বাহী  প্রকৌশলী ও লালমনিরহাট পানি  উন্নয়ন বোর্ডের  উপ-  বিভাগীয়  প্রকৌশলী  আবদুল্লাহ  আল  মামুন  জানান,  তিস্তা  ও ধরলার পানি প্রচণ্ড  গতিতে  বাংলাদেশের  দিকে ধেয়ে আসছে । ফলে বিভিন্নস্থানে দেখা দিয়েছে প্রবল ভাঙ্গন। বন্যা  পরিস্থিতি  সার্বক্ষণিক মনিটরিং  করা  হচ্ছে  বলে  তারা  জানান ।

Comments

Comments!

 লালমনিরহাটে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি: পানিবন্দী লক্ষাধিক মানুষAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

লালমনিরহাটে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি: পানিবন্দী লক্ষাধিক মানুষ

Tuesday, July 26, 2016 11:04 am
islampur flood_136214
উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে লালমনিরহাটে সৃষ্ট বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। বাড়ি ঘরে ফের পানি ওঠেছে। বন্যা কবলিত এলাকায় দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানি ও খাদ্য সংকট। ফলে বিশুদ্ধ পানির অভাবে দেখা দিচ্ছে পানিবাহিত নানান রোগ।

পানিতে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। সদর এলাকার কুলাঘাটে  ধরলা নদীর ফ্লাড বাইপাস ভেঙ্গে ৩টি গ্রাম পানিতে তলিয়ে গেছে। পানিতে নিমজ্জিত রয়েছে দুই হাজার হেক্টর জমির বীজতলা, রোপা আমন ধান, কলা বাগান, সবজি ও ভূট্টা ক্ষেত। মাছের ঘের, পুকুর ও জলাশয়  পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় ১০ লাখ টাকার মাছ পানিতে ভেসে গেছে।

এদিকে পানি বন্দী এলাকায় মানবেতর জীবন কাটাচ্ছেন বন্যার্তরা। ঘরে পানি ওঠায় লোকজন রাস্তায়, উঁচু জায়গায় রাত্রি যাপন করছে। অপরদিকে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ভাঙ্গন রক্ষা বাঁধ এখন পড়েছে তিস্তা নদীর ভাঙ্গন গ্রাসে। লালমনিরহাট সদর উপজেলার রাজপুর ইউনিয়নে এ বাঁধটি ভাঙছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহায়তায় স্থানীয় লোকজন বালু ভর্তি জিও ব্যাগ পানিতে ফেলে বাঁধটি ভাঙ্গনের কবল থেকে রক্ষার চেষ্টা করছেন।

বাঁধটিতে তিস্তা নদীর ভাঙ্গন সৃষ্টি হওয়ায় শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন ওই ইউনিয়নের ছয়টি গ্রামের সহস্রাধিক পরিবারের লোকজন। কারণ বাঁধটি ভেঙ্গে গেলে এ সকল পরিবারের লোকজন বসতভিটা হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে যাবেন। নদী গর্ভে চলে যাবে সহস্রাধিক বিঘা আবাদি জমি, শতাধিক ফলের বাগান, কয়েকটি স্কুল মাদ্রাসা, মসজিদ, মন্দির ও স্থাপনা।  ডালিয়া  উন্নয়ন বোর্ডের  নির্বাহী  প্রকৌশলী ও লালমনিরহাট পানি  উন্নয়ন বোর্ডের  উপ-  বিভাগীয়  প্রকৌশলী  আবদুল্লাহ  আল  মামুন  জানান,  তিস্তা  ও ধরলার পানি প্রচণ্ড  গতিতে  বাংলাদেশের  দিকে ধেয়ে আসছে । ফলে বিভিন্নস্থানে দেখা দিয়েছে প্রবল ভাঙ্গন। বন্যা  পরিস্থিতি  সার্বক্ষণিক মনিটরিং  করা  হচ্ছে  বলে  তারা  জানান ।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X