শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১১:৩৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, July 23, 2017 7:31 am
A- A A+ Print

শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিতে তিন দিনের সময়

6

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন অধিভুক্ত সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের সাত দফা দাবি মেনে নিতে প্রশাসনকে ৭২ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা। তাঁরা পুলিশের ছোড়া কাঁদানে গ্যাসের শেলের আঘাতে আহত তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থী সিদ্দিকুর রহমানের চিকিৎসার দায়িত্ব নেওয়া, রুটিনসহ পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা ও শিক্ষার্থীদের নামে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন।

গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে চোখে কালো কাপড় বেঁধে সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে এসব দাবি জানিয়ে সময় বেঁধে দেওয়া হয়। তা না হলে পরে আরও কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে বলে ঘোষণা দেন আন্দোলনকারীরা। তাঁরা বলেন, শিক্ষাথীদের ওপর পুলিশের হামলার দুই দিন অতিবাহিত হলেও এখনো কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ও কলেজ প্রশাসন আহত শিক্ষার্থীদের খোঁজখবর নেয়নি। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।

এ ছাড়া রুটিনসহ পরীক্ষার তারিখ ঘোষণার দাবিতে আন্দোলনকারীদের ওপর গত বৃহস্পতিবারের পুলিশি হামলার প্রতিবাদে বিভিন্ন সংগঠন গতকালও সংহতি প্রকাশ, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ঢাকার সাতটি সরকারি কলেজকে গত ফেব্রুয়ারিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত করা হয়। কিন্তু এরপর পাঁচ মাস পেরিয়ে গেলেও পরীক্ষার রুটিন না হওয়ায় শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে নামেন। তাঁরা বলছেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্য কলেজগুলোর পরীক্ষা শেষ হয়ে যাওয়ায় তাঁরা পিছিয়ে পড়ছেন। গত বৃহস্পতিবার শাহবাগে তাঁদের অবস্থান কর্মসূচিতে বাধা দেয় পুলিশ। পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে ও লাঠিপেটা করে শিক্ষার্থীদের ছাত্রভঙ্গ করে দেয়। এ সময় ১৩ জনকে আটক করা হয়। পুলিশের ছোড়া কাঁদানে গ্যাসের আঘাতে দুই চোখ ক্ষতিগ্রস্ত হয় তিতুমীর কলেজের ছাত্র সিদ্দিকুর রহমানের। পরে পুলিশের কাজে বাধা দেওয়া এবং হত্যাচেষ্টার অভিযোগে অজ্ঞাতনামা ১ হাজার ২০০ জনকে আসামি করে মামলা করে পুলিশ।

শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বাহালুল হক চৌধুরী গতকাল শনিবার প্রথম আলোর কাছে দাবি করেছেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অসহযোগিতার কারণে পরীক্ষার তারিখ ও পরীক্ষার ফল ঘোষণা করতে দেরি হচ্ছে। এর একটি উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘স্নাতক চতুর্থ বর্ষের মৌখিক পরীক্ষা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নিয়েছে। কিন্তু লিখিত পরীক্ষা নিয়েছিল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। তাদের কাছে বারবার চাওয়ার পরও টেবুলেশন শিট পাওয়া যাচ্ছে না।’

বাহালুল হক চৌধুরী বলেন, ‘এটা তো বোর্ডের পরীক্ষা না যে দু-তিন মাস আগে পরীক্ষার রুটিন ঘোষণা করতে হবে। সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। সাধারণত আমরা ১৫-২০ দিন আগে রুটিন দিয়ে থাকি। তবে এবার একটু আগেই রুটিন দেওয়া হবে।’

গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ সমাবেশে সাত কলেজের পক্ষ থেকে সাতজন প্রতিনিধি বক্তব্য দেন। সরকারি তিতুমীর কলেজের ছাত্র রিয়াজ মাহমুদ ৭২ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়ে বলেন, সকল দাবি মেনে নিতে আগামী ২৫ তারিখ পর্যন্ত কর্তৃপক্ষকে আলটিমেটাম দেওয়া হলো। এ সময়ের মধ্যে দাবি মেনে নেওয়া না হলে ২৬ তারিখ বিকেল চারটায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আবারও অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে। তখন দাবি আদায়ের আরও কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে।

এর আগে সকালে নিজ নিজ কলেজে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন অধিভুক্ত কলেজের শিক্ষার্থীরা। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা কলেজ ও ইডেন কলেজের শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ কলেজের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। একাধিকবার মিছিল দুটি নীলক্ষেত-নিউমার্কেট মোড় ঘুরে যায়। পরে দুপুর ১২টার দিকে নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নেন দুই কলেজের শিক্ষার্থীরা। তাঁরা প্রায় আধঘণ্টা রাস্তা বন্ধ করে বিক্ষোভ করেন।

এদিকে, সিদ্দিকুর আহত হওয়ার ঘটনায় পরস্পরবিরোধী বক্তব্য পাওয়া যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। গতকাল ডিএমপির হেডকোয়ার্টার্সে এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘পুলিশ আমাকে বলেছে, ছাত্রদের ছোড়া ইট–পাটকেলের আঘাতে তাঁর এমন হয়েছে। ছাত্ররা দাবি করেছে, টিয়ার শেল তাঁর কপালে লেগেছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি।’

বিক্ষোভে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে এবং তাঁদের বিরুদ্ধে করা ‘মিথ্যা মামলা’ প্রত্যাহারের দাবিতে গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে চোখে কালো কাপড় বেঁধে মানববন্ধন করেন শিক্ষার্থীরা।

অব্যাহত প্রতিবাদ-সংহতি

আহত সিদ্দিকুর রহমানের ওপর পুলিশের ‘নৃশংস হামলার’ প্রতিবাদে ছাত্র-জনতার বিক্ষোভ ও সংহতি সমাবেশ হয়েছে শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে। বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের আয়োজনে সেখানে সংহতি জানাতে আসেন গণসংহতি আন্দোলন, বাংলাদেশ বহুমুখী শ্রমজীবী ও হকার সমিতি, বাংলাদেশ গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতি, চানচিয়া ও বাগাছাসের নেতা-কর্মীরা।

সন্ধ্যা ছয়টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় মিছিল ও সমাবেশ করে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট। মিছিলটি ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) থেকে শুরু হয়ে কলাভবন, শাহবাগ হয়ে রাজু ভাস্কর্যের সামনে গিয়ে সমাবেশ করে। বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি জি এম জিলানী ও সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দী গতকাল এক বিবৃতিতে বলেন, রাষ্ট্র যে ক্রমেই স্বৈরতান্ত্রিক হয়ে উঠছে, এই ঘটনা তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ।

আজ রোববার সকালে নিজ নিজ কলেজের সামনে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করবেন। এ ছাড়া প্রগতিশীল ছাত্র জোট ও ছাত্র ইউনিয়ন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছে। বিকেলে ঐকবদ্ধ ছাত্রসমাজ নামের একটি সংগঠন জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ করবে।

Comments

Comments!

 শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিতে তিন দিনের সময়AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিতে তিন দিনের সময়

Sunday, July 23, 2017 7:31 am
6

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন অধিভুক্ত সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের সাত দফা দাবি মেনে নিতে প্রশাসনকে ৭২ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা। তাঁরা পুলিশের ছোড়া কাঁদানে গ্যাসের শেলের আঘাতে আহত তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থী সিদ্দিকুর রহমানের চিকিৎসার দায়িত্ব নেওয়া, রুটিনসহ পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা ও শিক্ষার্থীদের নামে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন।

গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে চোখে কালো কাপড় বেঁধে সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে এসব দাবি জানিয়ে সময় বেঁধে দেওয়া হয়। তা না হলে পরে আরও কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে বলে ঘোষণা দেন আন্দোলনকারীরা। তাঁরা বলেন, শিক্ষাথীদের ওপর পুলিশের হামলার দুই দিন অতিবাহিত হলেও এখনো কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ও কলেজ প্রশাসন আহত শিক্ষার্থীদের খোঁজখবর নেয়নি। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।

এ ছাড়া রুটিনসহ পরীক্ষার তারিখ ঘোষণার দাবিতে আন্দোলনকারীদের ওপর গত বৃহস্পতিবারের পুলিশি হামলার প্রতিবাদে বিভিন্ন সংগঠন গতকালও সংহতি প্রকাশ, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ঢাকার সাতটি সরকারি কলেজকে গত ফেব্রুয়ারিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত করা হয়। কিন্তু এরপর পাঁচ মাস পেরিয়ে গেলেও পরীক্ষার রুটিন না হওয়ায় শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে নামেন। তাঁরা বলছেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্য কলেজগুলোর পরীক্ষা শেষ হয়ে যাওয়ায় তাঁরা পিছিয়ে পড়ছেন। গত বৃহস্পতিবার শাহবাগে তাঁদের অবস্থান কর্মসূচিতে বাধা দেয় পুলিশ। পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে ও লাঠিপেটা করে শিক্ষার্থীদের ছাত্রভঙ্গ করে দেয়। এ সময় ১৩ জনকে আটক করা হয়। পুলিশের ছোড়া কাঁদানে গ্যাসের আঘাতে দুই চোখ ক্ষতিগ্রস্ত হয় তিতুমীর কলেজের ছাত্র সিদ্দিকুর রহমানের। পরে পুলিশের কাজে বাধা দেওয়া এবং হত্যাচেষ্টার অভিযোগে অজ্ঞাতনামা ১ হাজার ২০০ জনকে আসামি করে মামলা করে পুলিশ।

শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বাহালুল হক চৌধুরী গতকাল শনিবার প্রথম আলোর কাছে দাবি করেছেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অসহযোগিতার কারণে পরীক্ষার তারিখ ও পরীক্ষার ফল ঘোষণা করতে দেরি হচ্ছে। এর একটি উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘স্নাতক চতুর্থ বর্ষের মৌখিক পরীক্ষা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নিয়েছে। কিন্তু লিখিত পরীক্ষা নিয়েছিল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। তাদের কাছে বারবার চাওয়ার পরও টেবুলেশন শিট পাওয়া যাচ্ছে না।’

বাহালুল হক চৌধুরী বলেন, ‘এটা তো বোর্ডের পরীক্ষা না যে দু-তিন মাস আগে পরীক্ষার রুটিন ঘোষণা করতে হবে। সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। সাধারণত আমরা ১৫-২০ দিন আগে রুটিন দিয়ে থাকি। তবে এবার একটু আগেই রুটিন দেওয়া হবে।’

গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ সমাবেশে সাত কলেজের পক্ষ থেকে সাতজন প্রতিনিধি বক্তব্য দেন। সরকারি তিতুমীর কলেজের ছাত্র রিয়াজ মাহমুদ ৭২ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়ে বলেন, সকল দাবি মেনে নিতে আগামী ২৫ তারিখ পর্যন্ত কর্তৃপক্ষকে আলটিমেটাম দেওয়া হলো। এ সময়ের মধ্যে দাবি মেনে নেওয়া না হলে ২৬ তারিখ বিকেল চারটায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আবারও অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে। তখন দাবি আদায়ের আরও কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে।

এর আগে সকালে নিজ নিজ কলেজে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন অধিভুক্ত কলেজের শিক্ষার্থীরা। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা কলেজ ও ইডেন কলেজের শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ কলেজের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। একাধিকবার মিছিল দুটি নীলক্ষেত-নিউমার্কেট মোড় ঘুরে যায়। পরে দুপুর ১২টার দিকে নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নেন দুই কলেজের শিক্ষার্থীরা। তাঁরা প্রায় আধঘণ্টা রাস্তা বন্ধ করে বিক্ষোভ করেন।

এদিকে, সিদ্দিকুর আহত হওয়ার ঘটনায় পরস্পরবিরোধী বক্তব্য পাওয়া যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। গতকাল ডিএমপির হেডকোয়ার্টার্সে এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘পুলিশ আমাকে বলেছে, ছাত্রদের ছোড়া ইট–পাটকেলের আঘাতে তাঁর এমন হয়েছে। ছাত্ররা দাবি করেছে, টিয়ার শেল তাঁর কপালে লেগেছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি।’

বিক্ষোভে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে এবং তাঁদের বিরুদ্ধে করা ‘মিথ্যা মামলা’ প্রত্যাহারের দাবিতে গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে চোখে কালো কাপড় বেঁধে মানববন্ধন করেন শিক্ষার্থীরা।

অব্যাহত প্রতিবাদ-সংহতি

আহত সিদ্দিকুর রহমানের ওপর পুলিশের ‘নৃশংস হামলার’ প্রতিবাদে ছাত্র-জনতার বিক্ষোভ ও সংহতি সমাবেশ হয়েছে শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে। বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের আয়োজনে সেখানে সংহতি জানাতে আসেন গণসংহতি আন্দোলন, বাংলাদেশ বহুমুখী শ্রমজীবী ও হকার সমিতি, বাংলাদেশ গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতি, চানচিয়া ও বাগাছাসের নেতা-কর্মীরা।

সন্ধ্যা ছয়টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় মিছিল ও সমাবেশ করে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট। মিছিলটি ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) থেকে শুরু হয়ে কলাভবন, শাহবাগ হয়ে রাজু ভাস্কর্যের সামনে গিয়ে সমাবেশ করে। বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি জি এম জিলানী ও সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দী গতকাল এক বিবৃতিতে বলেন, রাষ্ট্র যে ক্রমেই স্বৈরতান্ত্রিক হয়ে উঠছে, এই ঘটনা তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ।

আজ রোববার সকালে নিজ নিজ কলেজের সামনে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করবেন। এ ছাড়া প্রগতিশীল ছাত্র জোট ও ছাত্র ইউনিয়ন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছে। বিকেলে ঐকবদ্ধ ছাত্রসমাজ নামের একটি সংগঠন জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ করবে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X