রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:১৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, December 26, 2016 9:37 am | আপডেটঃ December 26, 2016 1:35 PM
A- A A+ Print

শেষের ঝড়ে শেষের প্রতিরোধে নিউজিল্যান্ডের ৩৪১

9

সাকিব আল হাসানের শেষ ওভারটা হলো অদ্ভুত। প্রথম তিন বলেই ‘উইকেট’ পাওয়া বোলিং। প্রথমে ডিপে তাঁর ক্যাচ ফেললেন মোসাদ্দেক। দ্বিতীয় বলে এলবিডব্লুর জোরালো আবেদন নাকচ হলো। তৃতীয় বলে আর রক্ষা পেলেন না কলিন মুনরো। এবার ক্যাচ পয়েন্টে তাসকিনের হাতে। ইনিংসের সেটা ৪৭তম ওভার। শেষ তিন ওভারে উজ্জীবিত প্রতিরোধ গড়লেন বাংলাদেশের বোলাররা। রানের পাহাড়ের দিকে ছুটতে থাকা নিউজিল্যান্ড অবশ্য শেষ চার ওভারে ২৯ তুলেও বাংলাদেশকে ছুড়ে দিল ৩৪২ রানের কঠিন চ্যালেঞ্জ। ৭ উইকেটে ৩৪১ বাংলাদেশের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের সবচেয়ে বড় স্কোর। আগেরটি ছিল সেই ২৬ বছর আগে দুই দলের প্রথম দেখা হওয়া ম্যাচে। সেবার ১৫৮ রানের জুটি গড়েছিলেন মার্টিন ক্রো আর জন রাইট। বাংলাদেশের বিপক্ষে সেটিও ছিল নিউজিল্যান্ডের সর্বোচ্চ জুটি। আজও ঠিক ১৫৮ রানেরই একটা জুটি গড়ে দিল ইনিংসের ভিত্তি। পঞ্চম উইকেটে ওভারে নয়ের কাছাকাছি গড়ে এই রান যোগ করেছেন মুনরো-ল্যাথাম। মুনরো শেষ পর্যন্ত ৮৭ রান করে আউট হলেও নিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে সেঞ্চুরিটা ১৩৭ রানে নিয়ে গেছেন টম ল্যাথাম। ১৫৮ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলা নিউজিল্যান্ডকে পথ হারাতে দেননি এই দুজনই। ওই অবস্থায় আর এক-দুটি উইকেট ফেলতে পারলে নিউজিল্যান্ড চাপে পড়ে যেত। কিন্তু বোলাররা সেভাবে রাশ টেনে ধরতে না পারায় উল্টো বাংলাদেশই চাপে পড়ে যায়। শেষ চার ওভারে অমন প্রতিরোধ না গড়লে স্কোরটা একসময় ৩৬০-৩৭০-এর পূর্বাভাসই কিন্তু দিচ্ছিল। ৪৭তম ওভারের আগের ৫ ওভারে যে নিউজিল্যান্ড তুলে ফেলেছিল ৬৭ রান। তবে তাতেও ক্রাইস্টচার্চের এ মাঠে নিউজিল্যান্ড সর্বোচ্চ ইনিংসটার রেকর্ড ছুঁল। বাংলাদেশের জন্য কাজটা কঠিন কোনো সন্দেহ নেই। নিউজিল্যান্ডও ৩৩০ পেরোনো স্কোরে মাত্র একবারই হেরেছে এর আগে। তবে ব্যাটিং নামার আগেই যেন বাংলাদেশকে ভয় পেয়ে না বসে। উইকেটে কোনো জুজু নেই। কন্ডিশন প্রতিকূল নয় মোটেও। মাঠও ছোট। কিন্তু স্কোরটাও যে অনেক বড়, তাও অস্বীকার করার উপায় নেই। বাংলাদেশের তিন শর বেশি লক্ষ্য ছোঁয়া জয় আছে তিনটি। তবে আশার কথা, এর একটি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেই। বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডকে দ্বিতীয় বাংলাওয়াশ নিশ্চিত করেছিল ৩০৮ রানের লক্ষ্য মিলিয়ে দিয়েই। এখন পর্যন্ত ম্যাচে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় পাওয়া অবশ্য মোস্তাফিজুর রহমানকে ফিরে পাওয়া। গত মার্চের পর আবার মাঠে ফিরছেন মোস্তাফিজ। নিজের তৃতীয় ও ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে পেসে বিভ্রান্ত করে গাপটিলকে সৌম্যের ক্যাচ বানিয়ে প্রথম আঘাতও হেনেছেন। চোট পাওয়ার আগে ২০১৫ বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেই শেষ ওয়ানডেটি খেলেছিলেন। প্রথম স্পেলে ৪ ওভারে মাত্র ১৩ রান দিয়ে ১ উইকেট নিলেও শেষ পর্যন্ত অবশ্য বোলিং ​​ফিগারটা মোস্তাফিজ–সুলভ নয়। ১০ ওভারে ৬২ রান দিয়ে ২ উইকেট। এই প্রথম গোটা ক্যারিয়ারেই ৬০ রান হজম করলেন কাটার মাস্টার।

Comments

Comments!

 শেষের ঝড়ে শেষের প্রতিরোধে নিউজিল্যান্ডের ৩৪১AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

শেষের ঝড়ে শেষের প্রতিরোধে নিউজিল্যান্ডের ৩৪১

Monday, December 26, 2016 9:37 am | আপডেটঃ December 26, 2016 1:35 PM
9

সাকিব আল হাসানের শেষ ওভারটা হলো অদ্ভুত। প্রথম তিন বলেই ‘উইকেট’ পাওয়া বোলিং। প্রথমে ডিপে তাঁর ক্যাচ ফেললেন মোসাদ্দেক। দ্বিতীয় বলে এলবিডব্লুর জোরালো আবেদন নাকচ হলো। তৃতীয় বলে আর রক্ষা পেলেন না কলিন মুনরো। এবার ক্যাচ পয়েন্টে তাসকিনের হাতে। ইনিংসের সেটা ৪৭তম ওভার। শেষ তিন ওভারে উজ্জীবিত প্রতিরোধ গড়লেন বাংলাদেশের বোলাররা। রানের পাহাড়ের দিকে ছুটতে থাকা নিউজিল্যান্ড অবশ্য শেষ চার ওভারে ২৯ তুলেও বাংলাদেশকে ছুড়ে দিল ৩৪২ রানের কঠিন চ্যালেঞ্জ।

৭ উইকেটে ৩৪১ বাংলাদেশের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের সবচেয়ে বড় স্কোর। আগেরটি ছিল সেই ২৬ বছর আগে দুই দলের প্রথম দেখা হওয়া ম্যাচে। সেবার ১৫৮ রানের জুটি গড়েছিলেন মার্টিন ক্রো আর জন রাইট। বাংলাদেশের বিপক্ষে সেটিও ছিল নিউজিল্যান্ডের সর্বোচ্চ জুটি। আজও ঠিক ১৫৮ রানেরই একটা জুটি গড়ে দিল ইনিংসের ভিত্তি। পঞ্চম উইকেটে ওভারে নয়ের কাছাকাছি গড়ে এই রান যোগ করেছেন মুনরো-ল্যাথাম। মুনরো শেষ পর্যন্ত ৮৭ রান করে আউট হলেও নিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে সেঞ্চুরিটা ১৩৭ রানে নিয়ে গেছেন টম ল্যাথাম।

১৫৮ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলা নিউজিল্যান্ডকে পথ হারাতে দেননি এই দুজনই। ওই অবস্থায় আর এক-দুটি উইকেট ফেলতে পারলে নিউজিল্যান্ড চাপে পড়ে যেত। কিন্তু বোলাররা সেভাবে রাশ টেনে ধরতে না পারায় উল্টো বাংলাদেশই চাপে পড়ে যায়। শেষ চার ওভারে অমন প্রতিরোধ না গড়লে স্কোরটা একসময় ৩৬০-৩৭০-এর পূর্বাভাসই কিন্তু দিচ্ছিল। ৪৭তম ওভারের আগের ৫ ওভারে যে নিউজিল্যান্ড তুলে ফেলেছিল ৬৭ রান। তবে তাতেও ক্রাইস্টচার্চের এ মাঠে নিউজিল্যান্ড সর্বোচ্চ ইনিংসটার রেকর্ড ছুঁল। বাংলাদেশের জন্য কাজটা কঠিন কোনো সন্দেহ নেই। নিউজিল্যান্ডও ৩৩০ পেরোনো স্কোরে মাত্র একবারই হেরেছে এর আগে।

তবে ব্যাটিং নামার আগেই যেন বাংলাদেশকে ভয় পেয়ে না বসে। উইকেটে কোনো জুজু নেই। কন্ডিশন প্রতিকূল নয় মোটেও। মাঠও ছোট। কিন্তু স্কোরটাও যে অনেক বড়, তাও অস্বীকার করার উপায় নেই। বাংলাদেশের তিন শর বেশি লক্ষ্য ছোঁয়া জয় আছে তিনটি। তবে আশার কথা, এর একটি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেই। বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডকে দ্বিতীয় বাংলাওয়াশ নিশ্চিত করেছিল ৩০৮ রানের লক্ষ্য মিলিয়ে দিয়েই।

এখন পর্যন্ত ম্যাচে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় পাওয়া অবশ্য মোস্তাফিজুর রহমানকে ফিরে পাওয়া। গত মার্চের পর আবার মাঠে ফিরছেন মোস্তাফিজ। নিজের তৃতীয় ও ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে পেসে বিভ্রান্ত করে গাপটিলকে সৌম্যের ক্যাচ বানিয়ে প্রথম আঘাতও হেনেছেন। চোট পাওয়ার আগে ২০১৫ বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেই শেষ ওয়ানডেটি খেলেছিলেন। প্রথম স্পেলে ৪ ওভারে মাত্র ১৩ রান দিয়ে ১ উইকেট নিলেও শেষ পর্যন্ত অবশ্য বোলিং ​​ফিগারটা মোস্তাফিজ–সুলভ নয়। ১০ ওভারে ৬২ রান দিয়ে ২ উইকেট। এই প্রথম গোটা ক্যারিয়ারেই ৬০ রান হজম করলেন কাটার মাস্টার।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X