শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১১:৫৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, October 26, 2017 12:30 am
A- A A+ Print

সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে গ্রেপ্তার বৌদ্ধ এনজিও প্রধান তিনদিনের রিমান্ডে

183526_1

ঢাকা: পুলিশ বুধবার ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে একটি বৌদ্ধ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের প্রধানকে সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে গ্রেপ্তার করেছে। উশিত মং নামের এই ব্যক্তি যখন ঢাকা থেকে মায়ানমার যাচ্ছিলেন, তখন তাকে আটক করা হয়। খবর বিবিসির। রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে মায়ানমারের সম্পর্কে টানাপড়েনের মধ্যে এই ঘটনা ঘটলো। পুলিশ বলছে, গ্রেপ্তার হওয়া উশিত মং বাংলাদেশের নাগরিক। তবে তার স্ত্রী মায়ানমারের নাগরিক এবং সেখানেই তিনি বসবাস করেন। তারা দু’জনই রাখাইন বলে পুলিশ দাবি করছে। ঢাকায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নূর-ই আজম মিয়া জানিয়েছেন, গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তি উশিত মং রাখাইন ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন নামের একটি এনজিও পরিচালনা করেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে উশিত মং পার্বত্য এলাকায় এবং কক্সবাজারে এই এনজিওর সেচ্ছাসেবীমূলক কর্মকাণ্ড থাকার কথা বললেও পুলিশ এখনো তার দৃশ্যমান কিছু প্রমাণ পায়নি। তবে পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে যে, উশিত মং-এর স্ত্রী মায়ানমারেও এই এনজিও’র কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেন। গ্রেপ্তারকৃত উশিত মং-এর বাড়ি ঝালকাঠি জেলায় বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছে। তবে উশিত মং পার্বত্য এলাকায় থাকতেন এবং মায়ানমার যাওয়া আসা করতেন। ঢাকায় পুলিশ তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাস দমন আইনে মামলা করেছে। কিন্তু তার বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযোগের ব্যাপারে উশিত মং-এর কোনো বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি। বিমান বন্দর থানা পুলিশের কর্মকর্তা নূর-ই আজম মিয়া বলেছেন, এই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তারের সময় তার কাছ থেকে অতিরিক্ত মায়ানমারের মুদ্রা এবং মার্কিন ডলার উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ একটি ল্যাপটপও পেয়েছে। সেই ল্যাপটপে উশিত মং এবং তার স্ত্রীর অস্ত্র নিয়ে কিছু ছবি রয়েছে। এর সাথে কিছু তথ্য পুলিশ পেয়েছে। এগুলোকে ভিত্তি করে এবং প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে পুলিশ ধারণা করছে, এনজিও’র আড়ালে উশিত মং মূলত অবৈধ অস্ত্রের কেনাবেচা করেন। পুলিশ সন্দেহ করছে, মায়ানমারের আরাকানের সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোকে এই ব্যক্তি অর্থ সহায়তা করে এবং অস্ত্র সরবরাহ করে থাকে। এই বিষয়কে অগ্রাধিকার দিয়ে পুলিশ তদন্ত করছে। গত ১৯ অক্টোবর মায়ানমার যাওয়ার সময় বিমানবন্দর থেকে এই উশিত মংকে র্যা ব আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। এরই মধ্যে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ আদালত থেকে তিনদিনের রিমান্ড পেয়েছে। এখন তাকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।
 

Comments

Comments!

 সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে গ্রেপ্তার বৌদ্ধ এনজিও প্রধান তিনদিনের রিমান্ডেAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে গ্রেপ্তার বৌদ্ধ এনজিও প্রধান তিনদিনের রিমান্ডে

Thursday, October 26, 2017 12:30 am
183526_1

ঢাকা: পুলিশ বুধবার ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে একটি বৌদ্ধ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের প্রধানকে সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে গ্রেপ্তার করেছে। উশিত মং নামের এই ব্যক্তি যখন ঢাকা থেকে মায়ানমার যাচ্ছিলেন, তখন তাকে আটক করা হয়। খবর বিবিসির।

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে মায়ানমারের সম্পর্কে টানাপড়েনের মধ্যে এই ঘটনা ঘটলো। পুলিশ বলছে, গ্রেপ্তার হওয়া উশিত মং বাংলাদেশের নাগরিক। তবে তার স্ত্রী মায়ানমারের নাগরিক এবং সেখানেই তিনি বসবাস করেন। তারা দু’জনই রাখাইন বলে পুলিশ দাবি করছে।

ঢাকায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নূর-ই আজম মিয়া জানিয়েছেন, গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তি উশিত মং রাখাইন ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন নামের একটি এনজিও পরিচালনা করেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে উশিত মং পার্বত্য এলাকায় এবং কক্সবাজারে এই এনজিওর সেচ্ছাসেবীমূলক কর্মকাণ্ড থাকার কথা বললেও পুলিশ এখনো তার দৃশ্যমান কিছু প্রমাণ পায়নি।

তবে পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে যে, উশিত মং-এর স্ত্রী মায়ানমারেও এই এনজিও’র কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেন। গ্রেপ্তারকৃত উশিত মং-এর বাড়ি ঝালকাঠি জেলায় বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছে। তবে উশিত মং পার্বত্য এলাকায় থাকতেন এবং মায়ানমার যাওয়া আসা করতেন।

ঢাকায় পুলিশ তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাস দমন আইনে মামলা করেছে। কিন্তু তার বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযোগের ব্যাপারে উশিত মং-এর কোনো বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি। বিমান বন্দর থানা পুলিশের কর্মকর্তা নূর-ই আজম মিয়া বলেছেন, এই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তারের সময় তার কাছ থেকে অতিরিক্ত মায়ানমারের মুদ্রা এবং মার্কিন ডলার উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ একটি ল্যাপটপও পেয়েছে। সেই ল্যাপটপে উশিত মং এবং তার স্ত্রীর অস্ত্র নিয়ে কিছু ছবি রয়েছে।

এর সাথে কিছু তথ্য পুলিশ পেয়েছে। এগুলোকে ভিত্তি করে এবং প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে পুলিশ ধারণা করছে, এনজিও’র আড়ালে উশিত মং মূলত অবৈধ অস্ত্রের কেনাবেচা করেন। পুলিশ সন্দেহ করছে, মায়ানমারের আরাকানের সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোকে এই ব্যক্তি অর্থ সহায়তা করে এবং অস্ত্র সরবরাহ করে থাকে।

এই বিষয়কে অগ্রাধিকার দিয়ে পুলিশ তদন্ত করছে। গত ১৯ অক্টোবর মায়ানমার যাওয়ার সময় বিমানবন্দর থেকে এই উশিত মংকে র্যা ব আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। এরই মধ্যে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ আদালত থেকে তিনদিনের রিমান্ড পেয়েছে।

এখন তাকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X