সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৫:৪৯
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, January 26, 2017 7:06 pm
A- A A+ Print

সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্কাউটিং থাকবে : প্রধানমন্ত্রী

25

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘স্কাউটিংয়ের মাধ্যমে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির জন্য সরকার সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্কাউটিংকে অন্তর্ভুক্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আগামী প্রজন্মকে স্কাউটিংয়ের মাধ্যমে দক্ষ মানবসম্পদে পরিণত করতে বাংলাদেশ স্কাউটসকে সার্বিক সহায়তাদানে আমাদের সরকার আরো কার্যকর ও টেকসই পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।’ শেখ হাসিনা আরো বলেন, ‘সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অন্তত দুটি করে কাব স্কাউট দল, দুটি স্কাউট দল ও দুটি রোভার স্কাউট দল চালু করতে হবে। এ জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে সমন্বিতভাবে বাংলাদেশ স্কাউটকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানাচ্ছি। আমি আশা করি এই সহযোগিতা তারা করবে।’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বৃহস্পতিবার সকালে গোপালগঞ্জের মানিকদহ আবাসিক এলাকায় সপ্তাহব্যাপী ১১তম জাতীয় রোভার মুট উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন। স্কাউটিংয়ের গুণগত মান অক্ষুণ্ণ রেখে এর সংখ্যা আরো বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের ১৬ কোটি মানুষের দেশ। তাই আমাদের স্কাউটদের সংখ্যা আরো বৃদ্ধি করতে হবে।’ ‘শান্তিময় জীবন, উন্নত দেশ’ শীর্ষক প্রতিপাদ্য নিয়ে শুরু হওয়া সপ্তাহব্যাপী এই রোভার মুটে সার্ক এবং এশীয় প্যাসিফিক অঞ্চলের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত স্কাউটসহ প্রায় ১০ হাজার স্কাউট অংশগ্রহণ করেছে। এর আগে প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছালে বাংলাদেশ স্কাউটের সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি-বিষয়ক সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদ এবং বাংলাদেশ স্কাউটসের জাতীয় কমিশনার মোজাম্মেল হক খান প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান। প্রধানমন্ত্রীকে বাংলাদেশ স্কাউটসের পক্ষ থেকে কুচকাওয়াজের মাধ্যমে অভিবাদন জানানো হয়। প্রধানমন্ত্রী কুচকাওয়াজের সালাম গ্রহণ করেন। স্কাউটদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ ডিসপ্লেও উপভোগ করেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্কাউটিংয়ে মেয়েদের সম্পৃক্ততা বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘স্কাউটিং কার্যক্রমে মেয়েদের অংশগ্রহণ আরো বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে মেয়েদের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ও সহশিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মানসম্মত গার্ল-ইন- স্কাউটিং ইউনিট চালু করতে হবে।’ প্রাকৃতিক দুর্যোগ, ঘূর্ণিঝড়, বন্যা, অগ্নিদুর্ঘটনা ও শীতার্ত মানুষের সেবায় স্কাউটদের কর্মকাণ্ডের প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি জেনে আনন্দিত যে বাংলাদেশ স্কাউটস দুর্যোগে সেবাদানের লক্ষ্যে স্কাউটসদের জন্য প্রশিক্ষণ কর্মসূচি সম্প্রসারণ করেছে।’ তিনি বলেন, ‘পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় অধিক হারে বৃক্ষরোপণের লক্ষ্যে স্কাউটদের আরো বেশি করে সম্পৃক্ত করার জন্য অনুরোধ করছি। আশা করি, তোমাদের সেবাধর্মী কাজ আরো  বিস্তৃত হবে।’ বাংলাদেশে স্কাউট আন্দোলনকে জোরদার করতে তাঁর সরকারের পদক্ষেপ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার এরই মধ্যে ‘বাংলাদেশ স্কাউটিং সম্প্রসারণ ও স্কাউট শতাব্দী ভবন নির্মাণ’ শীর্ষক ১২২ কোটি ১০ লাখ টাকার একটি নতুন প্রকল্প অনুমোদন করেছে। তিনি বলেন, তাঁর সরকার মৌচাক জাতীয় স্কাউট প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের স্থান সংকুলান সমস্যা নিরসনের জন্য ৯৫ একর বনভূমি স্কাউটদের ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে। এ ছাড়া স্কাউট প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও ক্যাম্প সাইট স্থাপনের লক্ষ্যে চট্টগ্রাম, পঞ্চগড়, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া ও মানিকগঞ্জে জমি বরাদ্দ করা হয়েছে। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, সন্ত্রাস ও জঙ্গি দমনে সরকারের উদ্যোগ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সব বাধা ও ষড়যন্ত্র ছিন্ন করে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলছে। একের পর এক বিচারের রায় কার্যকর হচ্ছে। আমরা জাতির প্রত্যাশা অনুযায়ী সব যুদ্ধাপরাধীকে বিচারের আওতায় আনব এবং শাস্তি কার্যকর করব।’ তিনি বলেন, ‘জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে আমাদের সরকার ‘জিরো টলারেন্স’ নীতিতে কাজ করে যাচ্ছে।’ প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘গত নির্বাচনের মাধ্যমে আমরা জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার নিশ্চিত করেছি। অসাংবিধানিকভাবে ক্ষমতা দখলের সুযোগ বন্ধ করেছি।’ ‘নির্বাচিত ব্যক্তিরাই দেশ পরিচালনা করবে-এ পদ্ধতি নিশ্চিত করেছি,’ যোগ করেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ সকালে একাদশ জাতীয় রোভার মুট উদ্বোধন করতে দুদিনের সফরে গোপালগঞ্জ পৌঁছান। দুপুর ১টা ৪০ মিনিটের দিকে টুঙ্গিপাড়ায় পৌঁছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে তিনি বিশেষ মোনাজাত করেন। রাতে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় তাঁর পৈতৃক নিবাসে অবস্থান করবেন। কাল শুক্রবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর ঢাকা ফেরার কথা রয়েছে। অনুষ্ঠানে স্কাউটসের জাতীয় কমিশনার (পাবলিক রিলেশন অ্যান্ড মার্কেটিং) সারওয়ার মোহাম্মদ শাহরিয়ার লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানের শেষাংশে ১১তম জাতীয় রোভার মুট উপলক্ষে একটি স্মারক ডাকটিকেট অবমুক্ত করেন এবং স্কাউটদের তাঁবুগুলো পরিদর্শন করেন।

Comments

Comments!

 সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্কাউটিং থাকবে : প্রধানমন্ত্রীAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্কাউটিং থাকবে : প্রধানমন্ত্রী

Thursday, January 26, 2017 7:06 pm
25

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘স্কাউটিংয়ের মাধ্যমে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির জন্য সরকার সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্কাউটিংকে অন্তর্ভুক্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আগামী প্রজন্মকে স্কাউটিংয়ের মাধ্যমে দক্ষ মানবসম্পদে পরিণত করতে বাংলাদেশ স্কাউটসকে সার্বিক সহায়তাদানে আমাদের সরকার আরো কার্যকর ও টেকসই পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।’

শেখ হাসিনা আরো বলেন, ‘সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অন্তত দুটি করে কাব স্কাউট দল, দুটি স্কাউট দল ও দুটি রোভার স্কাউট দল চালু করতে হবে। এ জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে সমন্বিতভাবে বাংলাদেশ স্কাউটকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানাচ্ছি। আমি আশা করি এই সহযোগিতা তারা করবে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বৃহস্পতিবার সকালে গোপালগঞ্জের মানিকদহ আবাসিক এলাকায় সপ্তাহব্যাপী ১১তম জাতীয় রোভার মুট উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন।

স্কাউটিংয়ের গুণগত মান অক্ষুণ্ণ রেখে এর সংখ্যা আরো বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের ১৬ কোটি মানুষের দেশ। তাই আমাদের স্কাউটদের সংখ্যা আরো বৃদ্ধি করতে হবে।’

‘শান্তিময় জীবন, উন্নত দেশ’ শীর্ষক প্রতিপাদ্য নিয়ে শুরু হওয়া সপ্তাহব্যাপী এই রোভার মুটে সার্ক এবং এশীয় প্যাসিফিক অঞ্চলের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত স্কাউটসহ প্রায় ১০ হাজার স্কাউট অংশগ্রহণ করেছে।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছালে বাংলাদেশ স্কাউটের সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি-বিষয়ক সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদ এবং বাংলাদেশ স্কাউটসের জাতীয় কমিশনার মোজাম্মেল হক খান প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান।

প্রধানমন্ত্রীকে বাংলাদেশ স্কাউটসের পক্ষ থেকে কুচকাওয়াজের মাধ্যমে অভিবাদন জানানো হয়। প্রধানমন্ত্রী কুচকাওয়াজের সালাম গ্রহণ করেন।

স্কাউটদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ ডিসপ্লেও উপভোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্কাউটিংয়ে মেয়েদের সম্পৃক্ততা বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘স্কাউটিং কার্যক্রমে মেয়েদের অংশগ্রহণ আরো বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে মেয়েদের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ও সহশিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মানসম্মত গার্ল-ইন- স্কাউটিং ইউনিট চালু করতে হবে।’

প্রাকৃতিক দুর্যোগ, ঘূর্ণিঝড়, বন্যা, অগ্নিদুর্ঘটনা ও শীতার্ত মানুষের সেবায় স্কাউটদের কর্মকাণ্ডের প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি জেনে আনন্দিত যে বাংলাদেশ স্কাউটস দুর্যোগে সেবাদানের লক্ষ্যে স্কাউটসদের জন্য প্রশিক্ষণ কর্মসূচি সম্প্রসারণ করেছে।’ তিনি বলেন, ‘পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় অধিক হারে বৃক্ষরোপণের লক্ষ্যে স্কাউটদের আরো বেশি করে সম্পৃক্ত করার জন্য অনুরোধ করছি। আশা করি, তোমাদের সেবাধর্মী কাজ আরো  বিস্তৃত হবে।’

বাংলাদেশে স্কাউট আন্দোলনকে জোরদার করতে তাঁর সরকারের পদক্ষেপ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার এরই মধ্যে ‘বাংলাদেশ স্কাউটিং সম্প্রসারণ ও স্কাউট শতাব্দী ভবন নির্মাণ’ শীর্ষক ১২২ কোটি ১০ লাখ টাকার একটি নতুন প্রকল্প অনুমোদন করেছে। তিনি বলেন, তাঁর সরকার মৌচাক জাতীয় স্কাউট প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের স্থান সংকুলান সমস্যা নিরসনের জন্য ৯৫ একর বনভূমি স্কাউটদের ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে। এ ছাড়া স্কাউট প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও ক্যাম্প সাইট স্থাপনের লক্ষ্যে চট্টগ্রাম, পঞ্চগড়, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া ও মানিকগঞ্জে জমি বরাদ্দ করা হয়েছে।

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, সন্ত্রাস ও জঙ্গি দমনে সরকারের উদ্যোগ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সব বাধা ও ষড়যন্ত্র ছিন্ন করে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলছে। একের পর এক বিচারের রায় কার্যকর হচ্ছে। আমরা জাতির প্রত্যাশা অনুযায়ী সব যুদ্ধাপরাধীকে বিচারের আওতায় আনব এবং শাস্তি কার্যকর করব।’ তিনি বলেন, ‘জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে আমাদের সরকার ‘জিরো টলারেন্স’ নীতিতে কাজ করে যাচ্ছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘গত নির্বাচনের মাধ্যমে আমরা জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার নিশ্চিত করেছি। অসাংবিধানিকভাবে ক্ষমতা দখলের সুযোগ বন্ধ করেছি।’ ‘নির্বাচিত ব্যক্তিরাই দেশ পরিচালনা করবে-এ পদ্ধতি নিশ্চিত করেছি,’ যোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ সকালে একাদশ জাতীয় রোভার মুট উদ্বোধন করতে দুদিনের সফরে গোপালগঞ্জ পৌঁছান। দুপুর ১টা ৪০ মিনিটের দিকে টুঙ্গিপাড়ায় পৌঁছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে তিনি বিশেষ মোনাজাত করেন। রাতে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় তাঁর পৈতৃক নিবাসে অবস্থান করবেন। কাল শুক্রবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর ঢাকা ফেরার কথা রয়েছে।

অনুষ্ঠানে স্কাউটসের জাতীয় কমিশনার (পাবলিক রিলেশন অ্যান্ড মার্কেটিং) সারওয়ার মোহাম্মদ শাহরিয়ার লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন।

প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানের শেষাংশে ১১তম জাতীয় রোভার মুট উপলক্ষে একটি স্মারক ডাকটিকেট অবমুক্ত করেন এবং স্কাউটদের তাঁবুগুলো পরিদর্শন করেন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X