মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সন্ধ্যা ৭:৩৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, November 1, 2016 6:11 pm
A- A A+ Print

সম্মান রক্ষায় মেয়েকে হত্যা করল বাবা!

158189_1

   
নরসিংদী: এবার অনার কিলিংয়ের শিকার হলো নরসিংদীর এক কলেজ ছাত্রী। পরিবারের সম্মান রক্ষায় নরসিংদীর শিবপুরে কলেজ ছাত্রী মুনিরাকে (১৮) হত্যা করেছে তার পাষণ্ড বাবা। ঘটনার সাতদিন পর শিবপুর উপজেলার শেরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে খোরশেদ আলমের বাড়ি থেকে মাটি খুঁড়ে মুনিরার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানায়, নরসিংদী ইমপিরিয়াল কলেজের এইচএসসি ২য় বর্ষের ছাত্রী মুনিরা আক্তারকে সোমবার রাতের কোনো এক সময় তার নিজঘরে কে বা কারা হত্যা করে ঘরের ফ্যানে লাশ ঝুলিয়ে রাখে। সে খোরশেদ আলমের চতুর্থ কন্যা ছিল।
পরে বাড়ির পাশে রাতের অন্ধকারে নিহতের বাবা খোরশেদ আলম ও ভাই সোহেল লাশটি গুম করার উদ্দেশ্যে মাটিতে পুঁতে রাখে। পুলিশ জানিয়েছে, গত সোমবার থেকে মুনিরা নিখোঁজ ছিল। রবিবার বিকেলে তার বড় বোন নাদিরা বেগম পাশের বাড়ির খাদিজা বেগমের সঙ্গে আক্ষেপ করতে গিয়ে পরিবারের ন্যাক্কারজনক ঘটনাটি বলে দেয়। আড়ালে গিয়ে ঘটনাটি খাদিজা এলাকার ইউপি সদস্য আমির চাঁন মিয়াকে জানায়। আমির চাঁন মিয়া বলেন, সন্ধ্যায় বিষয়টি শিবপুর থানায় জানানো হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মাটি খুড়ে লাশ উদ্ধার করে। নিহতের স্বজনরা আরো জানান, মুনিরা আক্তারের সঙ্গে বাড়ির পাশে বিল্লাল মিয়ার টেক্সটাইল মিলের ম্যানেজার নোবেলের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এই অভিযোগে মুনিরাকে নিজঘরে হত্যা করে তাকে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে বাবা খোরশেদ আলম ও ভাই সোহেল। এরই অংশ হিসেবে গুম করার জন্য বাড়ির পাশে নির্জন স্থানে গর্ত করে রাতের অন্ধকারে মৃতদেহ মাটিচাপা দেয়া হয়। মুনিরা আক্তার নিখোঁজের বিষয়টি নিয়ে এলাকায় গুঞ্জন সৃষ্টি হলে সোমবার বিকেলে লাশ গুমের বিষয়টি প্রকাশ পায়। পরে এলাকার ইউপি সদস্য শিবপুর থানা পুলিশকে খবর দিলে এসআই আমিনুল হকের নেতৃত্বে মাটি খুড়ে নিহত কলেজ ছাত্রী মুনিরার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এস আই আমিনুল হক বলেন, আমরা লাশ উদ্ধার করেছি। এখন ময়না তদন্ত হবে। আর ময়না তদন্তেই বেরিয়ে আসবে তাকে হত্যা করা হয়েছিল না সে আত্মহত্যা করেছে। ইউপি সদস্য আমির চাঁন মিয়া জানান, বিকেলে পরিবারের সকল সদস্যদের নিয়ে খোরশেদ আলম পালিয়ে যান। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

Comments

Comments!

 সম্মান রক্ষায় মেয়েকে হত্যা করল বাবা!AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

সম্মান রক্ষায় মেয়েকে হত্যা করল বাবা!

Tuesday, November 1, 2016 6:11 pm
158189_1

 

 

নরসিংদী: এবার অনার কিলিংয়ের শিকার হলো নরসিংদীর এক কলেজ ছাত্রী। পরিবারের সম্মান রক্ষায় নরসিংদীর শিবপুরে কলেজ ছাত্রী মুনিরাকে (১৮) হত্যা করেছে তার পাষণ্ড বাবা।

ঘটনার সাতদিন পর শিবপুর উপজেলার শেরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে খোরশেদ আলমের বাড়ি থেকে মাটি খুঁড়ে মুনিরার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানায়, নরসিংদী ইমপিরিয়াল কলেজের এইচএসসি ২য় বর্ষের ছাত্রী মুনিরা আক্তারকে সোমবার রাতের কোনো এক সময় তার নিজঘরে কে বা কারা হত্যা করে ঘরের ফ্যানে লাশ ঝুলিয়ে রাখে। সে খোরশেদ আলমের চতুর্থ কন্যা ছিল।

পরে বাড়ির পাশে রাতের অন্ধকারে নিহতের বাবা খোরশেদ আলম ও ভাই সোহেল লাশটি গুম করার উদ্দেশ্যে মাটিতে পুঁতে রাখে।

পুলিশ জানিয়েছে, গত সোমবার থেকে মুনিরা নিখোঁজ ছিল। রবিবার বিকেলে তার বড় বোন নাদিরা বেগম পাশের বাড়ির খাদিজা বেগমের সঙ্গে আক্ষেপ করতে গিয়ে পরিবারের ন্যাক্কারজনক ঘটনাটি বলে দেয়। আড়ালে গিয়ে ঘটনাটি খাদিজা এলাকার ইউপি সদস্য আমির চাঁন মিয়াকে জানায়।

আমির চাঁন মিয়া বলেন, সন্ধ্যায় বিষয়টি শিবপুর থানায় জানানো হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মাটি খুড়ে লাশ উদ্ধার করে।

নিহতের স্বজনরা আরো জানান, মুনিরা আক্তারের সঙ্গে বাড়ির পাশে বিল্লাল মিয়ার টেক্সটাইল মিলের ম্যানেজার নোবেলের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এই অভিযোগে মুনিরাকে নিজঘরে হত্যা করে তাকে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে বাবা খোরশেদ আলম ও ভাই সোহেল। এরই অংশ হিসেবে গুম করার জন্য বাড়ির পাশে নির্জন স্থানে গর্ত করে রাতের অন্ধকারে মৃতদেহ মাটিচাপা দেয়া হয়।

মুনিরা আক্তার নিখোঁজের বিষয়টি নিয়ে এলাকায় গুঞ্জন সৃষ্টি হলে সোমবার বিকেলে লাশ গুমের বিষয়টি প্রকাশ পায়।

পরে এলাকার ইউপি সদস্য শিবপুর থানা পুলিশকে খবর দিলে এসআই আমিনুল হকের নেতৃত্বে মাটি খুড়ে নিহত কলেজ ছাত্রী মুনিরার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

এস আই আমিনুল হক বলেন, আমরা লাশ উদ্ধার করেছি। এখন ময়না তদন্ত হবে। আর ময়না তদন্তেই বেরিয়ে আসবে তাকে হত্যা করা হয়েছিল না সে আত্মহত্যা করেছে।

ইউপি সদস্য আমির চাঁন মিয়া জানান, বিকেলে পরিবারের সকল সদস্যদের নিয়ে খোরশেদ আলম পালিয়ে যান। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X