শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৯:৫০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, November 24, 2016 7:26 am
A- A A+ Print

সহযোগী দেশগুলোর টি-টোয়েন্টি আসর, থাকবে বাংলাদেশও?

5

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খুব বেশি খেলার সুযোগ হয় না আইসিসির সহযোগী দেশগুলোর। এ বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে হাতে গোনা কয়েকটি ম্যাচ খেলেই বিদায় নিতে হয়েছে স্কটল্যান্ড, আয়ারল্যান্ডের মতো দলগুলোকে। সেখানেও বেশ কয়েকটি ম্যাচ ভেস্তে গেছে বৃষ্টির জন্য। এ নিয়ে অনেক আক্ষেপ-আফসোসও করেছিলেন আইসিসির সহযোগী দেশগুলোর ক্রিকেটাররা। তবে এবার তাদের জন্য নতুন এক টুর্নামেন্ট আয়োজনের কথা চিন্তা করছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা। সেখানে অংশগ্রহণের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়েকেও। সহযোগী দেশের মোট আটটি দলকে আরো বেশি করে খেলার সুযোগ করে দিতেই এই নতুন উদ্যোগটি হাতে নিয়েছে আইসিসি। ২০১৭ সালের শুরুতেই আয়োজিত হতে পারে রাউন্ড-রবিন পদ্ধতির নতুন এক টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। আর এখানে অংশ নেওয়ার জন্য আইসিসির পূর্ণ সদস্য দেশগুলোর মধ্যে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়েকে। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি স্ট্যাটাস পাওয়া আয়ারল্যান্ড, আফগানিস্তান, স্কটল্যান্ড, হংকং, আরব আমিরাত ও পাপুয়া নিউ গিনি এই সম্ভাব্য টুর্নামেন্টে থাকবে প্রথম সারিতে। বাকি দুটি দল নেদারল্যান্ডস ও ওমান । ২০১৬ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে উত্তীর্ণ হয়েই তারা অর্জন করেছে টি-টোয়েন্টি স্ট্যাটাস। এই টুর্নামেন্টের সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ৬ জানুয়ারি থেকে ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত। বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে দল অবশ্য এখনো এ ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত জানায়নি। জানুয়ারিতে বাংলাদেশকে ব্যস্ত থাকতে হবে নিউজিল্যান্ড সফর নিয়ে। ২৬ ডিসেম্বর থেকে শুরু হয়ে আগামী বছরের ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট সিরিজ। আইসিসির এক সূত্রের মাধ্যমে জানা যায়, ২০১৮ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের কথা থাকলেও তা এখনো নিশ্চিত করেনি আইসিসি। তবে এই আসরটি সফলভাবে আয়োজন করতে পারলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন করার ক্ষেত্রে তা সবুজ সংকেত হিসেবে কাজ করবে।

Comments

Comments!

 সহযোগী দেশগুলোর টি-টোয়েন্টি আসর, থাকবে বাংলাদেশও?AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

সহযোগী দেশগুলোর টি-টোয়েন্টি আসর, থাকবে বাংলাদেশও?

Thursday, November 24, 2016 7:26 am
5

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খুব বেশি খেলার সুযোগ হয় না আইসিসির সহযোগী দেশগুলোর। এ বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে হাতে গোনা কয়েকটি ম্যাচ খেলেই বিদায় নিতে হয়েছে স্কটল্যান্ড, আয়ারল্যান্ডের মতো দলগুলোকে। সেখানেও বেশ কয়েকটি ম্যাচ ভেস্তে গেছে বৃষ্টির জন্য। এ নিয়ে অনেক আক্ষেপ-আফসোসও করেছিলেন আইসিসির সহযোগী দেশগুলোর ক্রিকেটাররা। তবে এবার তাদের জন্য নতুন এক টুর্নামেন্ট আয়োজনের কথা চিন্তা করছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা। সেখানে অংশগ্রহণের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়েকেও।

সহযোগী দেশের মোট আটটি দলকে আরো বেশি করে খেলার সুযোগ করে দিতেই এই নতুন উদ্যোগটি হাতে নিয়েছে আইসিসি। ২০১৭ সালের শুরুতেই আয়োজিত হতে পারে রাউন্ড-রবিন পদ্ধতির নতুন এক টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। আর এখানে অংশ নেওয়ার জন্য আইসিসির পূর্ণ সদস্য দেশগুলোর মধ্যে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়েকে।

ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি স্ট্যাটাস পাওয়া আয়ারল্যান্ড, আফগানিস্তান, স্কটল্যান্ড, হংকং, আরব আমিরাত ও পাপুয়া নিউ গিনি এই সম্ভাব্য টুর্নামেন্টে থাকবে প্রথম সারিতে। বাকি দুটি দল নেদারল্যান্ডস ও ওমান । ২০১৬ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে উত্তীর্ণ হয়েই তারা অর্জন করেছে টি-টোয়েন্টি স্ট্যাটাস। এই টুর্নামেন্টের সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ৬ জানুয়ারি থেকে ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত।

বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে দল অবশ্য এখনো এ ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত জানায়নি। জানুয়ারিতে বাংলাদেশকে ব্যস্ত থাকতে হবে নিউজিল্যান্ড সফর নিয়ে। ২৬ ডিসেম্বর থেকে শুরু হয়ে আগামী বছরের ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট সিরিজ।

আইসিসির এক সূত্রের মাধ্যমে জানা যায়, ২০১৮ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের কথা থাকলেও তা এখনো নিশ্চিত করেনি আইসিসি। তবে এই আসরটি সফলভাবে আয়োজন করতে পারলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন করার ক্ষেত্রে তা সবুজ সংকেত হিসেবে কাজ করবে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X