সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১:৩৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, June 18, 2017 9:59 am | আপডেটঃ June 18, 2017 10:07 AM
A- A A+ Print

সাত তলা থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা মডেলের

model_49878_1497758033

ছয় তলার ছাদের (সাত তলা) কার্নিশে (রেলিংয়ের বাইরে) দাঁড়িয়েছেন মা। লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করবেন। কাঁপছেন। লাফ না দিলেও একটু বাতাস হলেই মাত্র ছয় ইঞ্চির ওই কার্নিশ থেকে পড়ে যেতে পারেন তিনি। কিংবা ভারসাম্য হারালে। আর ওই ভবনের নিচে দাঁড়িয়ে আত্মহত্যা না করতে কেঁদে-কেটে মা মা বলে আকুল আর্তি জানিয়ে যাচ্ছে তার ৫ বছরের মেয়ে। দমকল কর্র্মী, আত্মীয়-স্বজন ও অন্যান্য মানুষও তাকে লাফ না দিতে অনুরোধ জানাচ্ছেন। কিন্তু কারও কথাই শুনবেন না তিনি। আবার ছাদেও কেউ তার কাছে যেতে পারছেন না। হুমকি দিচ্ছেন কাছে এলেই ঝাঁপ দেবেন নিচে। কোনো সিনেমা বা নাটকের দৃশ্য নয় এটি। শনিবার রাজধানীর উত্তরার ১০নং সেক্টরের ১২নং রোডের ৮০ নম্বর বাড়ির চিত্র এটি। আর লাফ দেয়ার জন্য যিনি কার্নিশে দাঁড়িয়েছেন তিনি একজন মডেল ও অভিনেত্রী। নাম নুশরাত জাহান (৩৫)। তবে ৩ ঘণ্টা ধরে চলা এ রুদ্ধশ্বাস ঘটনার সমাপ্তি বিয়োগান্তক হয়নি। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কৌশলে তাকে জাপটে ধরে কার্নিশ থেকে নিরাপদে টেনে নেন দমকল বাহিনীর এক কর্মকর্তা। তার নাম মো. সফিকুল ইসলাম। তিনি উত্তরা ফায়ার সার্ভিসের জ্যেষ্ঠ দমকল কর্মকর্তা। নুশরাতকে উদ্ধারের পর সবাই তার সাহসিকতা ও বুদ্ধির প্রশংসা করছেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নুশরাতকে উদ্ধার করা অবশ্য এতটা সহজ ছিল না। আর জাপটে ধরামাত্রই নুশরাত শরীর শূন্যে ছেড়ে দেন, নিচে পড়ার জন্য ছটফট করতে থাকেন। দমকল বাহিনীর অন্য সদস্যরা মুহূর্তেই সফিকুলকে ধরে পড়ে যাওয়া থেকে বাঁচান। আর তাকে বাঁচানোর পর সফিকুলকে গালাগাল করেন নুশরাত। কেন তিনি আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন? উত্তরা পশ্চিম থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) শাহ আলম যুগান্তরকে জানান, ‘স্বামী রফিকুল কবির সুজনের সঙ্গে ঝগড়া করে আত্মহত্যার জন্য ছাদের কার্নিশে আসেন নুশরাত। রফিকুল কবির এইচএসবিসি ব্যাংকে চাকরি করেন।’ পরিবারের সদস্যরা জানান, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া, এমনকি হাতাহাতি পর্যন্ত হয়। সফিকুল ইসলাম বলেন, ‘বেলা ৩টার দিকে ওই নারী আত্মহত্যার জন্য ছাদের কার্নিশে আসেন। খবর পেয়ে কিছুক্ষণের মধ্যেই আমরা আসি। ৫টা পেরিয়ে গেলেও তাকে নিবৃত্ত করা না গেলে ইন্সপেক্টর শাহ আলম আমাকে যে কোনোভাবে উদ্ধারের বুদ্ধি বের করতে বলেন। পরে ৬টার দিকে তাকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়।’ এ বিষয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

Comments

Comments!

 সাত তলা থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা মডেলেরAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

সাত তলা থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা মডেলের

Sunday, June 18, 2017 9:59 am | আপডেটঃ June 18, 2017 10:07 AM
model_49878_1497758033

ছয় তলার ছাদের (সাত তলা) কার্নিশে (রেলিংয়ের বাইরে) দাঁড়িয়েছেন মা। লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করবেন। কাঁপছেন। লাফ না দিলেও একটু বাতাস হলেই মাত্র ছয় ইঞ্চির ওই কার্নিশ থেকে পড়ে যেতে পারেন তিনি। কিংবা ভারসাম্য হারালে। আর ওই ভবনের নিচে দাঁড়িয়ে আত্মহত্যা না করতে কেঁদে-কেটে মা মা বলে আকুল আর্তি জানিয়ে যাচ্ছে তার ৫ বছরের মেয়ে। দমকল কর্র্মী, আত্মীয়-স্বজন ও অন্যান্য মানুষও তাকে লাফ না দিতে অনুরোধ জানাচ্ছেন। কিন্তু কারও কথাই শুনবেন না তিনি। আবার ছাদেও কেউ তার কাছে যেতে পারছেন না। হুমকি দিচ্ছেন কাছে এলেই ঝাঁপ দেবেন নিচে।

কোনো সিনেমা বা নাটকের দৃশ্য নয় এটি। শনিবার রাজধানীর উত্তরার ১০নং সেক্টরের ১২নং রোডের ৮০ নম্বর বাড়ির চিত্র এটি। আর লাফ দেয়ার জন্য যিনি কার্নিশে দাঁড়িয়েছেন তিনি একজন মডেল ও অভিনেত্রী। নাম নুশরাত জাহান (৩৫)। তবে ৩ ঘণ্টা ধরে চলা এ রুদ্ধশ্বাস ঘটনার সমাপ্তি বিয়োগান্তক হয়নি। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কৌশলে তাকে জাপটে ধরে কার্নিশ থেকে নিরাপদে টেনে নেন দমকল বাহিনীর এক কর্মকর্তা। তার নাম মো. সফিকুল ইসলাম। তিনি উত্তরা ফায়ার সার্ভিসের জ্যেষ্ঠ দমকল কর্মকর্তা। নুশরাতকে উদ্ধারের পর সবাই তার সাহসিকতা ও বুদ্ধির প্রশংসা করছেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নুশরাতকে উদ্ধার করা অবশ্য এতটা সহজ ছিল না। আর জাপটে ধরামাত্রই নুশরাত শরীর শূন্যে ছেড়ে দেন, নিচে পড়ার জন্য ছটফট করতে থাকেন। দমকল বাহিনীর অন্য সদস্যরা মুহূর্তেই সফিকুলকে ধরে পড়ে যাওয়া থেকে বাঁচান। আর তাকে বাঁচানোর পর সফিকুলকে গালাগাল করেন নুশরাত।

কেন তিনি আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন? উত্তরা পশ্চিম থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) শাহ আলম যুগান্তরকে জানান, ‘স্বামী রফিকুল কবির সুজনের সঙ্গে ঝগড়া করে আত্মহত্যার জন্য ছাদের কার্নিশে আসেন নুশরাত। রফিকুল কবির এইচএসবিসি ব্যাংকে চাকরি করেন।’ পরিবারের সদস্যরা জানান, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া, এমনকি হাতাহাতি পর্যন্ত হয়।

সফিকুল ইসলাম বলেন, ‘বেলা ৩টার দিকে ওই নারী আত্মহত্যার জন্য ছাদের কার্নিশে আসেন। খবর পেয়ে কিছুক্ষণের মধ্যেই আমরা আসি। ৫টা পেরিয়ে গেলেও তাকে নিবৃত্ত করা না গেলে ইন্সপেক্টর শাহ আলম আমাকে যে কোনোভাবে উদ্ধারের বুদ্ধি বের করতে বলেন। পরে ৬টার দিকে তাকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়।’ এ বিষয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X