সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১১:৫৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, July 1, 2017 9:20 am
A- A A+ Print

সুইডেনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে তলব

3

সুইডেনে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত গোলাম সারওয়ারকে তলব করে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বাংলাদেশি এক সাংবাদিকের ওপর সেন্সরশিপ আরোপ করতে সুইডেনের কর্তৃপক্ষ সম্মত হয়েছিল বলে তিনি দাবি করেন। এরপরই তাকে তলব করা হয়। এ খবর দিয়েছে রেডিও সুইডেন। খবরে বলা হয়, রাষ্ট্রদূত গোলাম সারওয়ার সুইডিশ রেডিওকে বৃহস্পতিবার বলেছিলেন, তিনি বিশ্বাস করেন- সাংবাদিক আনওয়ার হোসেইনকে ছবি মুছে ফেলতে বাধ্য করার সিদ্ধান্তে সুইডেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিরাপত্তা ও মিডিয়া কর্মকর্তারা জড়িত ছিল। খবরে আরো বলা হয়, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুইডেন সফরের সময় ১৫ই জুন সুইডেন সরকারের রোসেনব্যাড ভবনে ঘটনাটি ঘটেছিল। রেডিও সুইডেনের পৃথক এক প্রতিবেদনে ঘটনার বিবরণে বলা হয়, রোসেনব্যাডে সুইডিশ প্রধানমন্ত্রী স্টেফান লোফভেন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি তোলার সময় বাংলাদেশি নিরাপত্তা সদস্যরা আনওয়ার হোসেইনকে ঘর থেকে বের করে দেয়। তার পরিচয় সম্পর্কে বলা হয়, আনওয়ার হোসেইন ভিন্নমতাবলম্বী এক সাংবাদিক যার বিরুদ্ধে বাংলাদেশে হত্যার মিথ্যা অভিযোগ আসার পর সে সুইডেন পালিয়ে যায়। দুই প্রধানমন্ত্রীর ছবি তোলার সময় সুইডেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে বাংলাদেশি অফিসিয়ালরা তার কাছে তোলা ছবিগুলো মুছে ফেলতে বাধ্য করে। এ ঘটনায় সুইডেনের শীর্ষ এক আইনজীবী তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। ওই সাংবাদিককে বের করা ঠেকাতে ব্যর্থ হওয়ায় তিনি সুইডেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়েল কর্মকর্তাদের সমালোচনা করেন। সুইডিং বার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অ্যান র‌্যামবার্গ সুইডিশ রেডিও নিউজকে বলেন, ‘বিদেশি পুলিশ একজন সাংবাদিককে তার তোলা ছবি মুছে ফেলতে বাধ্য করতে পারে এই ভাবনাটাও অত্যন্ত মারাত্মক। এটা আমাদের মৌলিক গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের ওপর হামলা। তিনি সুইডেন সরকারের কাছে দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূতের কাছ থেকে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানান। ২৯ তারিখের রিপোর্টে বলা হয়, সুইডিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ ঘটনা নিয়ে দুখঃপ্রকাশ করেছে। তারা ইস্যুটি বাংলাদেশের কাছে উত্থাপন করবে বলে ইঙ্গিত দেয়।  গতকালের পৃথক এক রিপোর্টে জানা যায়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত গোলাম সারওয়ারকে তলব করে। রাষ্ট্রদূতের কাছে সুইডিশ সরকারি কার্যালয়ে নিরাপত্তা বাহিনীগুলোর আচরণ নিয়ে জানতে চাওয়া হয়। রিপোর্টে এর বেশি কিছু জানা যায় নি।

Comments

Comments!

 সুইডেনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে তলবAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

সুইডেনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে তলব

Saturday, July 1, 2017 9:20 am
3

সুইডেনে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত গোলাম সারওয়ারকে তলব করে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বাংলাদেশি এক সাংবাদিকের ওপর সেন্সরশিপ আরোপ করতে সুইডেনের কর্তৃপক্ষ সম্মত হয়েছিল বলে তিনি দাবি করেন। এরপরই তাকে তলব করা হয়। এ খবর দিয়েছে রেডিও সুইডেন। খবরে বলা হয়, রাষ্ট্রদূত গোলাম সারওয়ার সুইডিশ রেডিওকে বৃহস্পতিবার বলেছিলেন, তিনি বিশ্বাস করেন- সাংবাদিক আনওয়ার হোসেইনকে ছবি মুছে ফেলতে বাধ্য করার সিদ্ধান্তে সুইডেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিরাপত্তা ও মিডিয়া কর্মকর্তারা জড়িত ছিল। খবরে আরো বলা হয়, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুইডেন সফরের সময় ১৫ই জুন সুইডেন সরকারের রোসেনব্যাড ভবনে ঘটনাটি ঘটেছিল। রেডিও সুইডেনের পৃথক এক প্রতিবেদনে ঘটনার বিবরণে বলা হয়, রোসেনব্যাডে সুইডিশ প্রধানমন্ত্রী স্টেফান লোফভেন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি তোলার সময় বাংলাদেশি নিরাপত্তা সদস্যরা আনওয়ার হোসেইনকে ঘর থেকে বের করে দেয়। তার পরিচয় সম্পর্কে বলা হয়, আনওয়ার হোসেইন ভিন্নমতাবলম্বী এক সাংবাদিক যার বিরুদ্ধে বাংলাদেশে হত্যার মিথ্যা অভিযোগ আসার পর সে সুইডেন পালিয়ে যায়। দুই প্রধানমন্ত্রীর ছবি তোলার সময় সুইডেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে বাংলাদেশি অফিসিয়ালরা তার কাছে তোলা ছবিগুলো মুছে ফেলতে বাধ্য করে। এ ঘটনায় সুইডেনের শীর্ষ এক আইনজীবী তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। ওই সাংবাদিককে বের করা ঠেকাতে ব্যর্থ হওয়ায় তিনি সুইডেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়েল কর্মকর্তাদের সমালোচনা করেন। সুইডিং বার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অ্যান র‌্যামবার্গ সুইডিশ রেডিও নিউজকে বলেন, ‘বিদেশি পুলিশ একজন সাংবাদিককে তার তোলা ছবি মুছে ফেলতে বাধ্য করতে পারে এই ভাবনাটাও অত্যন্ত মারাত্মক। এটা আমাদের মৌলিক গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের ওপর হামলা। তিনি সুইডেন সরকারের কাছে দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূতের কাছ থেকে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানান। ২৯ তারিখের রিপোর্টে বলা হয়, সুইডিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ ঘটনা নিয়ে দুখঃপ্রকাশ করেছে। তারা ইস্যুটি বাংলাদেশের কাছে উত্থাপন করবে বলে ইঙ্গিত দেয়।  গতকালের পৃথক এক রিপোর্টে জানা যায়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত গোলাম সারওয়ারকে তলব করে। রাষ্ট্রদূতের কাছে সুইডিশ সরকারি কার্যালয়ে নিরাপত্তা বাহিনীগুলোর আচরণ নিয়ে জানতে চাওয়া হয়। রিপোর্টে এর বেশি কিছু জানা যায় নি।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X