মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১১:১২
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, December 2, 2016 11:24 pm
A- A A+ Print

সেরা দুই নিশ্চিত হলো সাকিবদের

%e0%a7%a8%e0%a7%a9

এবার বিপিএলে সবচেয়ে বেশি দর্শক হলো বোধ হয় আজই। পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দুটি দল খেলছে, দর্শকের ঢল তো নামবেই। তবে উপচে পড়া গ্যালারির বেশির ভাগই ঢাকা ডায়নামাইটসের দর্শক। শেষ পর্যন্ত তাদের হতাশও হতে হয়নি। ঢাকা জিতেছে ৬ উইকেটে। এই জয়ে প্রথম দল হিসেবে শেষ চার নিশ্চিত হলো ঢাকার। ১১ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিশ্চিত করল, শেষ ম্যাচটা হারলেও ঢাকা থাকবে সেরা দুইয়ে। তামিমের ৭৪ রানের দুর্দান্ত ইনিংসের পরও চট্টগ্রাম করেছিল ৬ উইকেটে ১৩৪। শেষ দিকে যে রানই বাড়িয়ে নিতে পারল সেভাবে। শোয়েব মালিকের ৩৩ ছাড়া আর কেউ সেভাবে রানই তুলতে পারলেন না। আন্দ্রে রাসেল ও আলউদ্দিন বাবুর ঝোড়ো ইনিংসে ১০ বল হাতে রেখেই সেই লক্ষ্য পেরিয়ে গেছে ঢাকা। পঞ্চম উইকেটে ৩৩ বলে ৫১ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েছেন এ দুজন। ওপেনার সাঙ্গাকারার ৩৫–ও রেখেছে বড় ভূমিকা। রাসেল ১৮ বলে ৩১ ও বাবু ২৭ বলে ৩৩ রানে অপরাজিত ছিলেন। চিটাগংকে অবশ্য মূল্য দিতে হয়েছে বাজে ফিল্ডিংয়েরও। দুটি ক্যাচ আর স্টাম্পিংয়ের সুযোগ ছেড়ে তারা। তবে চট্টগ্রামকে সবচেয়ে পোড়াল শেষ তিন ওভার। এ সময় যে তারা ১৮ বলে রান তুলতে পেরেছে মাত্র ১৫! অথচ টি–টোয়েন্টিতে শেষ ৩ ওভারে হাতে উইকেট থাকলে ৪০–৪৫ রান প্রত্যাশা করে দলগুলো। তামিমের গড়ে দেওয়া ভিত্তিটা কাজেই লাগাতে পারল না তারা। তামিম যেন একই সঙ্গে বিস্ফোরক আর ধারাবাহিক ব্যাটিংয়ের প্রতিজ্ঞা করে নেমেছেন। বিপিএলে নিয়মিতই রানের ফোয়ারা ছুটছে তামিমের ব্যাটে। ৬২* ও ৬৬*—এর পর ৫৯ বলে ৭৪। ফিফটির হ্যাটট্রিক হয়ে গেছে চিটাগং ভাইকিংস অধিনায়ক! ১১ ম্যাচে ৪২৫ রান করে আছেন সবার ওপরে। এখনো পর্যন্ত তাঁর নামের পাশে পাঁচটি ফিফটি, ছুঁয়েছেন বিপিএলে এক আসরে সবচেয়ে বেশি হাফ সেঞ্চুরির রেকর্ড। তামিম-শোয়েব মালিকের জুটি যেভাবে এগিয়েছে, রানটা আরও বড় হতে পারত। দুজন চতুর্থ উইকেট যোগ করেছেন ৫৬ বলে ৮৬ রান। ৭ রানে সানজামুল ইসলামের হাতে ক্যাচ দিয়ে বেঁচে যাওয়া মালিক শেষ পর্যন্ত আউট হয়েছেন ৩৩ রানে। তামিম উইকেটে থাকার পরও ১৩ ওভার চিটাগংয়ের রান রেট ছিল ছয়ের নিচে। তামিম নিজের মতো চেষ্টা করেছেন। ৫৯ বলে করেছেন ৭৪। কিন্তু শোয়েবের ২৫ বলে ৩৩ বাদে বাকি ৬ ব্যাটসম্যান মিলে যে করতে পারলেন মোটে ২০ রান। টুর্নামেন্টে সবচেয়ে শক্তিশালী দুটি দলের কালকের লড়াইকে তো অনেকেই বলছে ‘ফাইনালের রিহার্সেল’! এই মহড়ায় জিতে চিটাগং ও অন্যদ দলগুলোকে বড় বার্তাই দিয়ে রাখল ঢাকা। সংক্ষিপ্ত স্কোর: চিটাগং ভাইকিংস: ২০ ওভারে ১৩৪/৬ (তামিম ৭৪, গেইল ১, এনামুল ০, জহুরুল ৬, শোয়েব ৩৩, নবী ০, জাকির ৯*, ইমরান ৪*; জায়েদ ০/২৯, রাসেল ১/২৩, বিটন ২/৩০, সাকিব ০/২৪, ব্রাভো ৩/২৭)। ঢাকা ডায়নামাইটস: ১৮.২ ওভারে ১৩৫/৪ (মারুফ ৯, সাঙ্গাকারা ৩৫, নাসির ১৩, মোসাদ্দেক ৯, আলাউদ্দিন ৩৩*, রাসেল ৩১*; নবী ১/২, শুভাশিষ ০/৩৬, শোয়েব ১/২৩, ইমরান ১/২৭, তাসকিন ০/২৩, সাকলাইন ০/২০)। ফল: ঢাকা ডায়নামাইটস ৬ উইকেটে জয়ী । ম্যান অব দ্য ম্যাচ: ডোয়াইন ব্রাভো ।

Comments

Comments!

 সেরা দুই নিশ্চিত হলো সাকিবদেরAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

সেরা দুই নিশ্চিত হলো সাকিবদের

Friday, December 2, 2016 11:24 pm
%e0%a7%a8%e0%a7%a9

এবার বিপিএলে সবচেয়ে বেশি দর্শক হলো বোধ হয় আজই। পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দুটি দল খেলছে, দর্শকের ঢল তো নামবেই। তবে উপচে পড়া গ্যালারির বেশির ভাগই ঢাকা ডায়নামাইটসের দর্শক। শেষ পর্যন্ত তাদের হতাশও হতে হয়নি। ঢাকা জিতেছে ৬ উইকেটে। এই জয়ে প্রথম দল হিসেবে শেষ চার নিশ্চিত হলো ঢাকার। ১১ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিশ্চিত করল, শেষ ম্যাচটা হারলেও ঢাকা থাকবে সেরা দুইয়ে।

তামিমের ৭৪ রানের দুর্দান্ত ইনিংসের পরও চট্টগ্রাম করেছিল ৬ উইকেটে ১৩৪। শেষ দিকে যে রানই বাড়িয়ে নিতে পারল সেভাবে। শোয়েব মালিকের ৩৩ ছাড়া আর কেউ সেভাবে রানই তুলতে পারলেন না। আন্দ্রে রাসেল ও আলউদ্দিন বাবুর ঝোড়ো ইনিংসে ১০ বল হাতে রেখেই সেই লক্ষ্য পেরিয়ে গেছে ঢাকা। পঞ্চম উইকেটে ৩৩ বলে ৫১ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েছেন এ দুজন। ওপেনার সাঙ্গাকারার ৩৫–ও রেখেছে বড় ভূমিকা।
রাসেল ১৮ বলে ৩১ ও বাবু ২৭ বলে ৩৩ রানে অপরাজিত ছিলেন। চিটাগংকে অবশ্য মূল্য দিতে হয়েছে বাজে ফিল্ডিংয়েরও। দুটি ক্যাচ আর স্টাম্পিংয়ের সুযোগ ছেড়ে তারা। তবে চট্টগ্রামকে সবচেয়ে পোড়াল শেষ তিন ওভার। এ সময় যে তারা ১৮ বলে রান তুলতে পেরেছে মাত্র ১৫! অথচ টি–টোয়েন্টিতে শেষ ৩ ওভারে হাতে উইকেট থাকলে ৪০–৪৫ রান প্রত্যাশা করে দলগুলো। তামিমের গড়ে দেওয়া ভিত্তিটা কাজেই লাগাতে পারল না তারা।
তামিম যেন একই সঙ্গে বিস্ফোরক আর ধারাবাহিক ব্যাটিংয়ের প্রতিজ্ঞা করে নেমেছেন। বিপিএলে নিয়মিতই রানের ফোয়ারা ছুটছে তামিমের ব্যাটে। ৬২* ও ৬৬*—এর পর ৫৯ বলে ৭৪। ফিফটির হ্যাটট্রিক হয়ে গেছে চিটাগং ভাইকিংস অধিনায়ক! ১১ ম্যাচে ৪২৫ রান করে আছেন সবার ওপরে। এখনো পর্যন্ত তাঁর নামের পাশে পাঁচটি ফিফটি, ছুঁয়েছেন বিপিএলে এক আসরে সবচেয়ে বেশি হাফ সেঞ্চুরির রেকর্ড।
তামিম-শোয়েব মালিকের জুটি যেভাবে এগিয়েছে, রানটা আরও বড় হতে পারত। দুজন চতুর্থ উইকেট যোগ করেছেন ৫৬ বলে ৮৬ রান। ৭ রানে সানজামুল ইসলামের হাতে ক্যাচ দিয়ে বেঁচে যাওয়া মালিক শেষ পর্যন্ত আউট হয়েছেন ৩৩ রানে। তামিম উইকেটে থাকার পরও ১৩ ওভার চিটাগংয়ের রান রেট ছিল ছয়ের নিচে। তামিম নিজের মতো চেষ্টা করেছেন। ৫৯ বলে করেছেন ৭৪। কিন্তু শোয়েবের ২৫ বলে ৩৩ বাদে বাকি ৬ ব্যাটসম্যান মিলে যে করতে পারলেন মোটে ২০ রান।
টুর্নামেন্টে সবচেয়ে শক্তিশালী দুটি দলের কালকের লড়াইকে তো অনেকেই বলছে ‘ফাইনালের রিহার্সেল’! এই মহড়ায় জিতে চিটাগং ও অন্যদ দলগুলোকে বড় বার্তাই দিয়ে রাখল ঢাকা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
চিটাগং ভাইকিংস: ২০ ওভারে ১৩৪/৬ (তামিম ৭৪, গেইল ১, এনামুল ০, জহুরুল ৬, শোয়েব ৩৩, নবী ০, জাকির ৯*, ইমরান ৪*; জায়েদ ০/২৯, রাসেল ১/২৩, বিটন ২/৩০, সাকিব ০/২৪, ব্রাভো ৩/২৭)।
ঢাকা ডায়নামাইটস: ১৮.২ ওভারে ১৩৫/৪ (মারুফ ৯, সাঙ্গাকারা ৩৫, নাসির ১৩, মোসাদ্দেক ৯, আলাউদ্দিন ৩৩*, রাসেল ৩১*; নবী ১/২, শুভাশিষ ০/৩৬, শোয়েব ১/২৩, ইমরান ১/২৭, তাসকিন ০/২৩, সাকলাইন ০/২০)।
ফল: ঢাকা ডায়নামাইটস ৬ উইকেটে জয়ী ।
ম্যান অব দ্য ম্যাচ: ডোয়াইন ব্রাভো ।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X