মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৬:০৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, May 11, 2017 9:15 am
A- A A+ Print

সৌদি জোটের বৈঠকে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী,সম্মেলনে অংশ নেবেন ট্রাম্প

৭

বছর দেড়েক আগে প্রতিষ্ঠিত সৌদি নেতৃত্বাধীন সন্ত্রাসবাদবিরোধী সামরিক জোট গঠনের পর এই প্রথমবারের মতো বড় পরিসরে আলোচনায় বসছেন সদস্যদেশগুলোর শীর্ষ নেতারা। রিয়াদে এ মাসের ২১ তারিখের ‘ইউএস-অ্যারাব অ্যান্ড ইসলামিক সামিট’ শীর্ষক ওই বৈঠকে যোগ দিচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ঢাকা ও রিয়াদের কূটনৈতিক সূত্রগুলো গতকাল বুধবার দুপুরে প্রথম আলোকে এ তথ্য জানিয়েছে। জানতে চাইলে সরকারের একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা গতকাল দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০ মে রিয়াদ যাচ্ছেন। সৌদি আরবের সংস্কৃতি ও তথ্যবিষয়ক মন্ত্রী আওয়াদ বিন-সালেহ-আল আওয়াদ সৌদি বাদশাহর পক্ষ থেকে গত মঙ্গলবার ঢাকায় এসে প্রধানমন্ত্রীকে রিয়াদের সম্মেলনে অংশ নেওয়ার আমন্ত্রণ জানান। এর আগে তিনি ইসলামাবাদে গিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকেও আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন গণমাধ্যম ও সৌদি আরবের কূটনৈতিক সূত্রগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা গেছে, মাস তিনেক আগে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রথম বিদেশ সফরের জন্য সৌদি আরবকে বেছে নিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রভাবশালী দৈনিক গালফ নিউজের এক খবরে বলা হয়েছে, এই সফরে তিনি সৌদি বাদশাহর সঙ্গে দুই দেশের সম্পর্ক নিয়ে কথা বলবেন। এ ছাড়া তেলসমৃদ্ধ দেশগুলোর উপসাগরীয় সহযোগিতা জোট (জিসিসি) এবং মুসলিম বিশ্বের, বিশেষ করে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের দেশগুলোর শীর্ষ নেতাদের সঙ্গেও আলোচনায় বসার সুযোগ নিতে চাইছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তাঁর মূল লক্ষ্য মূলত দুটি। প্রথমত, আরব বিশ্বের সঙ্গে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে মার্কিন প্রশাসনের যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে তা কমিয়ে আনা। দ্বিতীয়ত, মুসলিম বিশ্বের সঙ্গে তাঁর যে বৈরিতা নেই তা স্পষ্ট করা। রিয়াদের কূটনৈতিক সূত্রগুলো এই প্রতিবেদককে জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত ২১ মের আলোচনায় যোগ দিতে বাংলাদেশ ছাড়াও কাতার, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন, ওমান, কুয়েত, মিসর, আলজেরিয়া, পাকিস্তান, তিউনিসিয়া, মালয়েশিয়াসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধানেরা যোগ দিচ্ছেন। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক লড়াইয়ে মুসলিম দেশের সঙ্গে পাশ্চাত্য, বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের সখ্য পুরোনো। তবে সৌদি সামরিক জোট যাতে আঞ্চলিক বলয়ে সীমিত না হয়, সেই ভাবনাটাও রিয়াদের আছে। তাই এবারের বৈঠক শেষে যৌথ বিবৃতির আদলে একটি নীতিগত ঘোষণা আসতে পারে। জানতে চাইলে নিরাপত্তা বিশ্লেষক ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব পিস অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজের (বিআইপিএসএস) প্রেসিডেন্ট মেজর জেনারেল (অব.) আ ন ম মুনীরুজ্জামান গতকাল সন্ধ্যায় প্রথম আলোকে বলেন, ‘সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের লক্ষ্য কিন্তু এখনো স্পষ্ট নয়। ফলে জোটের অংশগ্রহণকারী দেশের ভূমিকাও ঠিক হয়নি। কারণ জোট কি আইএসের মতো আন্তর্জাতিক জঙ্গি গোষ্ঠীর সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে অবস্থান নেবে নাকি কোনো দেশের বিরুদ্ধে সংঘাতে (যেমন ইয়েমেনে সৌদি নেতৃত্বাধীন অভিযান) জড়াবে, তা এখনো ঠিক হয়নি। কাজেই বাংলাদেশ যেহেতু জোটে যোগ দিয়েছে, সেখানে কী ভূমিকা থাকছে, তা জানতে এ ধরনের বৈঠকে যোগ দেওয়া জরুরি। তবে এটা মনে রাখতে হবে, আমাদের এমন কিছুতে জড়িয়ে পড়া ঠিক হবে না, যা নিয়ে আন্তর্জাতিক বিতর্ক তৈরি হবে এবং যা জাতীয় স্বার্থের পরিপন্থী হয়।’ বাংলাদেশের কূটনীতিকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এখন পর্যন্ত সম্মেলনের বাইরে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কোনো দেশের নেতাদের বৈঠকের কথা নেই। তবে এবারের রিয়াদ সফরটি বাংলাদেশের জন্য রাজনৈতিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ সৌদি বাদশাহ ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ছাড়াও প্রায় ২০টি দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর মতবিনিময়ের সুযোগ হবে। সেই সঙ্গে সৌদি নেতৃত্বের সঙ্গে সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ করার সুযোগ থাকছে। এর পাশাপাশি জোটে যোগ দিলেও লড়াই করবে না বলে বাংলাদেশ স্পষ্ট করলেও শেষ পর্যন্ত জোটের ভূমিকা এখনো পরিষ্কার নয়। এবারের আলোচনায় অংশ নিয়ে জোটের লক্ষ্য কী, সেটাও বাংলাদেশের কাছে স্পষ্ট হবে।

Comments

Comments!

 সৌদি জোটের বৈঠকে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী,সম্মেলনে অংশ নেবেন ট্রাম্পAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

সৌদি জোটের বৈঠকে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী,সম্মেলনে অংশ নেবেন ট্রাম্প

Thursday, May 11, 2017 9:15 am
৭

বছর দেড়েক আগে প্রতিষ্ঠিত সৌদি নেতৃত্বাধীন সন্ত্রাসবাদবিরোধী সামরিক জোট গঠনের পর এই প্রথমবারের মতো বড় পরিসরে আলোচনায় বসছেন সদস্যদেশগুলোর শীর্ষ নেতারা। রিয়াদে এ মাসের ২১ তারিখের ‘ইউএস-অ্যারাব অ্যান্ড ইসলামিক সামিট’ শীর্ষক ওই বৈঠকে যোগ দিচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
ঢাকা ও রিয়াদের কূটনৈতিক সূত্রগুলো গতকাল বুধবার দুপুরে প্রথম আলোকে এ তথ্য জানিয়েছে।
জানতে চাইলে সরকারের একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা গতকাল দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০ মে রিয়াদ যাচ্ছেন।
সৌদি আরবের সংস্কৃতি ও তথ্যবিষয়ক মন্ত্রী আওয়াদ বিন-সালেহ-আল আওয়াদ সৌদি বাদশাহর পক্ষ থেকে গত মঙ্গলবার ঢাকায় এসে প্রধানমন্ত্রীকে রিয়াদের সম্মেলনে অংশ নেওয়ার আমন্ত্রণ জানান। এর আগে তিনি ইসলামাবাদে গিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকেও আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।
মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন গণমাধ্যম ও সৌদি আরবের কূটনৈতিক সূত্রগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা গেছে, মাস তিনেক আগে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রথম বিদেশ সফরের জন্য সৌদি আরবকে বেছে নিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রভাবশালী দৈনিক গালফ নিউজের এক খবরে বলা হয়েছে, এই সফরে তিনি সৌদি বাদশাহর সঙ্গে দুই দেশের সম্পর্ক নিয়ে কথা বলবেন। এ ছাড়া তেলসমৃদ্ধ দেশগুলোর উপসাগরীয় সহযোগিতা জোট (জিসিসি) এবং মুসলিম বিশ্বের, বিশেষ করে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের দেশগুলোর শীর্ষ নেতাদের সঙ্গেও আলোচনায় বসার সুযোগ নিতে চাইছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তাঁর মূল লক্ষ্য মূলত দুটি। প্রথমত, আরব বিশ্বের সঙ্গে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে মার্কিন প্রশাসনের যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে তা কমিয়ে আনা। দ্বিতীয়ত, মুসলিম বিশ্বের সঙ্গে তাঁর যে বৈরিতা নেই তা স্পষ্ট করা।
রিয়াদের কূটনৈতিক সূত্রগুলো এই প্রতিবেদককে জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত ২১ মের আলোচনায় যোগ দিতে বাংলাদেশ ছাড়াও কাতার, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন, ওমান, কুয়েত, মিসর, আলজেরিয়া, পাকিস্তান, তিউনিসিয়া, মালয়েশিয়াসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধানেরা যোগ দিচ্ছেন। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক লড়াইয়ে মুসলিম দেশের সঙ্গে পাশ্চাত্য, বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের সখ্য পুরোনো। তবে সৌদি সামরিক জোট যাতে আঞ্চলিক বলয়ে সীমিত না হয়, সেই ভাবনাটাও রিয়াদের আছে। তাই এবারের বৈঠক শেষে যৌথ বিবৃতির আদলে একটি নীতিগত ঘোষণা আসতে পারে।
জানতে চাইলে নিরাপত্তা বিশ্লেষক ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব পিস অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজের (বিআইপিএসএস) প্রেসিডেন্ট মেজর জেনারেল (অব.) আ ন ম মুনীরুজ্জামান গতকাল সন্ধ্যায় প্রথম আলোকে বলেন, ‘সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের লক্ষ্য কিন্তু এখনো স্পষ্ট নয়। ফলে জোটের অংশগ্রহণকারী দেশের ভূমিকাও ঠিক হয়নি। কারণ জোট কি আইএসের মতো আন্তর্জাতিক জঙ্গি গোষ্ঠীর সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে অবস্থান নেবে নাকি কোনো দেশের বিরুদ্ধে সংঘাতে (যেমন ইয়েমেনে সৌদি নেতৃত্বাধীন অভিযান) জড়াবে, তা এখনো ঠিক হয়নি। কাজেই বাংলাদেশ যেহেতু জোটে যোগ দিয়েছে, সেখানে কী ভূমিকা থাকছে, তা জানতে এ ধরনের বৈঠকে যোগ দেওয়া জরুরি। তবে এটা মনে রাখতে হবে, আমাদের এমন কিছুতে জড়িয়ে পড়া ঠিক হবে না, যা নিয়ে আন্তর্জাতিক বিতর্ক তৈরি হবে এবং যা জাতীয় স্বার্থের পরিপন্থী হয়।’
বাংলাদেশের কূটনীতিকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এখন পর্যন্ত সম্মেলনের বাইরে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কোনো দেশের নেতাদের বৈঠকের কথা নেই। তবে এবারের রিয়াদ সফরটি বাংলাদেশের জন্য রাজনৈতিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ সৌদি বাদশাহ ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ছাড়াও প্রায় ২০টি দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর মতবিনিময়ের সুযোগ হবে। সেই সঙ্গে সৌদি নেতৃত্বের সঙ্গে সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ করার সুযোগ থাকছে। এর পাশাপাশি জোটে যোগ দিলেও লড়াই করবে না বলে বাংলাদেশ স্পষ্ট করলেও শেষ পর্যন্ত জোটের ভূমিকা এখনো পরিষ্কার নয়। এবারের আলোচনায় অংশ নিয়ে জোটের লক্ষ্য কী, সেটাও বাংলাদেশের কাছে স্পষ্ট হবে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X