শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ২:০২
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, October 24, 2016 10:03 pm | আপডেটঃ October 24, 2016 11:16 PM
A- A A+ Print

স্কুলশিক্ষিকাকে পিটিয়ে হত্যা, স্বামীকে পুলিশে সোপর্দ

photo-1477323877

সাভারে এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিহতের স্বজনদের আহাজারি। ছবি: এনটিভি
সাভারে আছমা আফরিন মিতু (২৮) নামের এক শিক্ষিকাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই শিক্ষিকার স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সাভার পৌর এলাকার আনন্দপুর সিটি লেন এলাকায় নিহতের বাবার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শিক্ষিকার পরিবারের সদস্যরা জানান, এক বছর আগে আনন্দপুর এলাকার ব্যবসায়ী আলতাফ হোসেনের মেয়ে আছমা আফরিন মিতুর সঙ্গে চাঁদপুর এলাকার মুরাদ মিয়ার প্রেমের সম্পর্কের পরিণতিতে বিয়ে হয়। বিয়ের আগে তাঁরা দুজনই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলেন। বিয়ের পর তাঁরা দুজনে ঢাকায় একটি ভাড়া বাসা নিয়ে বসবাস শুরু করেন। ওই সময়েই আছমা ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজে বাংলা বিভাগে শিক্ষকতা শুরু করেন। দিনকয়েক আগে আছমা তাঁর স্বামীকে নিয়ে বাবার বাড়ি আনন্দপুর এলাকায় বেড়াতে আসেন। এরপর আজ রাতে পারিবারিক কলহের জেরে বাবার বাড়িতেই আছমাকে পিটিয়ে হত্যা করেন স্বামী মুরাদ। এরপর ওই শিক্ষিকার মরদেহ ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রেখে পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকাবাসী তাঁকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। পরিবারের সদস্যদের দাবি, ঘটনার সময় পরিবারের কেউ বাড়িতে ছিল না। পরে প্রতিবেশীদের কাছে খবর পেয়ে পরিবারের সদস্যরা আছমাকে এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। এরপর সাভার মডেল থানা পুলিশ নিহত স্কুলশিক্ষিকার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এ বিষয়ে সাভার মডেল থানার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মাহাবুবুর রহমান বলেন হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি আমরা তদন্ত করে দেখছি। এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

Comments

Comments!

 স্কুলশিক্ষিকাকে পিটিয়ে হত্যা, স্বামীকে পুলিশে সোপর্দAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

স্কুলশিক্ষিকাকে পিটিয়ে হত্যা, স্বামীকে পুলিশে সোপর্দ

Monday, October 24, 2016 10:03 pm | আপডেটঃ October 24, 2016 11:16 PM
photo-1477323877
সাভারে এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিহতের স্বজনদের আহাজারি। ছবি: এনটিভি

সাভারে আছমা আফরিন মিতু (২৮) নামের এক শিক্ষিকাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই শিক্ষিকার স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সাভার পৌর এলাকার আনন্দপুর সিটি লেন এলাকায় নিহতের বাবার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শিক্ষিকার পরিবারের সদস্যরা জানান, এক বছর আগে আনন্দপুর এলাকার ব্যবসায়ী আলতাফ হোসেনের মেয়ে আছমা আফরিন মিতুর সঙ্গে চাঁদপুর এলাকার মুরাদ মিয়ার প্রেমের সম্পর্কের পরিণতিতে বিয়ে হয়। বিয়ের আগে তাঁরা দুজনই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলেন।

বিয়ের পর তাঁরা দুজনে ঢাকায় একটি ভাড়া বাসা নিয়ে বসবাস শুরু করেন। ওই সময়েই আছমা ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজে বাংলা বিভাগে শিক্ষকতা শুরু করেন।

দিনকয়েক আগে আছমা তাঁর স্বামীকে নিয়ে বাবার বাড়ি আনন্দপুর এলাকায় বেড়াতে আসেন। এরপর আজ রাতে পারিবারিক কলহের জেরে বাবার বাড়িতেই আছমাকে পিটিয়ে হত্যা করেন স্বামী মুরাদ। এরপর ওই শিক্ষিকার মরদেহ ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রেখে পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকাবাসী তাঁকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।

পরিবারের সদস্যদের দাবি, ঘটনার সময় পরিবারের কেউ বাড়িতে ছিল না। পরে প্রতিবেশীদের কাছে খবর পেয়ে পরিবারের সদস্যরা আছমাকে এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

এরপর সাভার মডেল থানা পুলিশ নিহত স্কুলশিক্ষিকার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ বিষয়ে সাভার মডেল থানার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মাহাবুবুর রহমান বলেন হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি আমরা তদন্ত করে দেখছি। এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X