বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ভোর ৫:১৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, November 5, 2016 12:19 am
A- A A+ Print

হঠাৎ​ বন্ধ কারাগার দর্শন

9

বৃষ্টিতে ভিজে বেলা দুইটা থেকে অপেক্ষায় ছিলেন মিজান। রাজশাহী থেকে সপরিবারে তিনি এসেছেন। তাঁর সঙ্গে আছে এক বছর বয়সী ছেলে ও স্ত্রী। তিনি জানতেন বেলা তিনটায় কারাফটক খুলবে। তখন তিনি টিকিট কেটে সোজা ঢুকে যাবেন কারাগারের ভেতর। দেখবেন অনেক কিছু। কিন্তু মিজানের কিছুই দেখা হলো না। কারাগার না দেখেই ফিরে যেতে হলো মিজানকে। বেলা তিনটার দিকে কারা কর্তৃপক্ষ মাইকে ঘোষণা দেয়, অনিবার্য কারণে দর্শনার্থীদের কারাগারে ঢুকতে দেওয়া যাচ্ছে না। কারা কর্তৃপক্ষের এমন ঘোষণায় রীতিমতো হতবাক মিজান। তাঁর মতো শতাধিক লোকও হতাশ। যাঁরা সবাই ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে অপেক্ষায় ছিলেন। ক্ষোভের সুরে মিজান প্রথম আলোকে বলেন, অনেক দিনের স্বপ্ন, তিনি ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে ঢুকবেন। দেখবেন কারাগারের সবকিছু। কিন্তু কিছুই দেখতে পেলেন না। আগে থেকে যদি কারা কর্তৃপক্ষ ঘোষণা দিত, তাহলে বৃষ্টিতে ভিজতে হতো না। এমন বিড়ম্বনাও পড়তে হতো না। কারা কর্তৃপক্ষের ঘোষণা অনুযায়ী, ২ নভেম্বর থেকে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত ১০০ টাকার টিকিটের বিনিময়ে কারাগার সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকার কথা। সরেজমিনে দেখা যায়, বেলা দুইটার পর থেকে কারাগারের সামনে ছিল দর্শনার্থীদের ভিড়। তারা জানত, তিনটায় কারা ফটক খুলবে। তাই গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে ভিজেও এসব দর্শনার্থী অপেক্ষায় ছিলেন। কিন্তু বেলা তিনটার দিকে কারাগারে ঢুকতে দেওয়া হবে না—এমন ঘোষণা শোনার পর বেশির ভাগ দর্শনার্থী ক্ষুব্ধ হন। রাজধানীর শান্তিবাগ থেকে আসা আবদুল আহাদ কারারক্ষীদের উদ্দেশে বলতে থাকেন, ‘কারারক্ষী ভাই, আপনাদের আগে থেকে ঘোষণা দেওয়ার দরকার ছিল। আপনারাই ঘোষণা দিয়েছিলেন, ৫ নভেম্বর পর্যন্ত কারাগারে সাধারণ দর্শনার্থীরা ঢুকতে পারবেন। ছোট বাচ্চাদের নিয়ে এখানে এসেছি। বৃষ্টিতে ভিজেছি। এখন ফিরে যেতে হচ্ছে। এটা মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে।’ সংবাদ সম্মেলন করে কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দীন ২৯ অক্টোবর বলেন, জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে ‘সংগ্রামী জীবনগাথা’ শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর বিষয়ে জানাতে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। প্রদর্শনী উপলক্ষে ২ নভেম্বর কারাগার সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হবে। ৫ নভেম্বর পর্যন্ত দর্শনার্থীরা কারাগার ঘুরে দেখার সুযোগ পাবেন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ১ নভেম্বর আলোকচিত্র প্রদর্শনী উদ্বোধন করা হলেও সেটি সাধারণ মানুষের জন্য পরদিন থেকে উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে। বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার দুর্লভ ১৪৫টি আলোকচিত্র থাকবে প্রদর্শনীতে। ১০০ টাকা দিয়ে যে কেউ সেটি দেখার জন্য কারাগারে ঢুকতে পারবেন। একজন দর্শনার্থী সর্বোচ্চ দুই ঘণ্টা সেখানে থাকতে পারবেন। কারাগার দর্শন বন্ধ ঘোষণার পরেও ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে অপেক্ষায় দর্শনার্থীরা। ছবি: আসাদুজ্জামানসেখানে গিয়ে দেখা গেল, কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে রোলার দিয়ে রাস্তা ঠিক করা হচ্ছে। যে কারণে কারাগার অভিমুখের রাস্তাঘাট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তারপরও হেঁটে দর্শনার্থীরা কারাগারের সামনে ভিড় করতে থাকেন। বেলা তিনটার পর কারা কর্তৃপক্ষ মাইকে ঘোষণা দিচ্ছিল, ‘অনিবার্য কারণে আপনাদের কারাগারে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। এ জন্য দুঃখিত।’ ঘোষণা ছাড়াই কেন দর্শনার্থীদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না, জানতে চাওয়া হলে সহকারী কারা মহাপরিদর্শক আবদুল্লাহ আল মামুন প্রথম আলোকে বলেন, ‘অনিবার্য কারণে দর্শনার্থীদের আজ কারাগারের ভেতরে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। আগামীকাল শনিবারও সাধারণ দর্শনার্থীরা কারাগারে ভেতরে ঢুকতে পারবেন না।’ আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ভবিষ্যতে সাধারণ দর্শনার্থীদের কারাগারে ভেতরে ঢোকার সুযোগ করে দেওয়া হবে।

Comments

Comments!

 হঠাৎ​ বন্ধ কারাগার দর্শনAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

হঠাৎ​ বন্ধ কারাগার দর্শন

Saturday, November 5, 2016 12:19 am
9

বৃষ্টিতে ভিজে বেলা দুইটা থেকে অপেক্ষায় ছিলেন মিজান। রাজশাহী থেকে সপরিবারে তিনি এসেছেন। তাঁর সঙ্গে আছে এক বছর বয়সী ছেলে ও স্ত্রী। তিনি জানতেন বেলা তিনটায় কারাফটক খুলবে। তখন তিনি টিকিট কেটে সোজা ঢুকে যাবেন কারাগারের ভেতর। দেখবেন অনেক কিছু। কিন্তু মিজানের কিছুই দেখা হলো না। কারাগার না দেখেই ফিরে যেতে হলো মিজানকে। বেলা তিনটার দিকে কারা কর্তৃপক্ষ মাইকে ঘোষণা দেয়, অনিবার্য কারণে দর্শনার্থীদের কারাগারে ঢুকতে দেওয়া যাচ্ছে না।

কারা কর্তৃপক্ষের এমন ঘোষণায় রীতিমতো হতবাক মিজান। তাঁর মতো শতাধিক লোকও হতাশ। যাঁরা সবাই ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে অপেক্ষায় ছিলেন। ক্ষোভের সুরে মিজান প্রথম আলোকে বলেন, অনেক দিনের স্বপ্ন, তিনি ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে ঢুকবেন। দেখবেন কারাগারের সবকিছু। কিন্তু কিছুই দেখতে পেলেন না। আগে থেকে যদি কারা কর্তৃপক্ষ ঘোষণা দিত, তাহলে বৃষ্টিতে ভিজতে হতো না। এমন বিড়ম্বনাও পড়তে হতো না।

কারা কর্তৃপক্ষের ঘোষণা অনুযায়ী, ২ নভেম্বর থেকে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত ১০০ টাকার টিকিটের বিনিময়ে কারাগার সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকার কথা।

সরেজমিনে দেখা যায়, বেলা দুইটার পর থেকে কারাগারের সামনে ছিল দর্শনার্থীদের ভিড়। তারা জানত, তিনটায় কারা ফটক খুলবে। তাই গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে ভিজেও এসব দর্শনার্থী অপেক্ষায় ছিলেন। কিন্তু বেলা তিনটার দিকে কারাগারে ঢুকতে দেওয়া হবে না—এমন ঘোষণা শোনার পর বেশির ভাগ দর্শনার্থী ক্ষুব্ধ হন।

রাজধানীর শান্তিবাগ থেকে আসা আবদুল আহাদ কারারক্ষীদের উদ্দেশে বলতে থাকেন, ‘কারারক্ষী ভাই, আপনাদের আগে থেকে ঘোষণা দেওয়ার দরকার ছিল। আপনারাই ঘোষণা দিয়েছিলেন, ৫ নভেম্বর পর্যন্ত কারাগারে সাধারণ দর্শনার্থীরা ঢুকতে পারবেন। ছোট বাচ্চাদের নিয়ে এখানে এসেছি। বৃষ্টিতে ভিজেছি। এখন ফিরে যেতে হচ্ছে। এটা মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে।’

সংবাদ সম্মেলন করে কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দীন ২৯ অক্টোবর বলেন, জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে ‘সংগ্রামী জীবনগাথা’ শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর বিষয়ে জানাতে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। প্রদর্শনী উপলক্ষে ২ নভেম্বর কারাগার সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হবে। ৫ নভেম্বর পর্যন্ত দর্শনার্থীরা কারাগার ঘুরে দেখার সুযোগ পাবেন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ১ নভেম্বর আলোকচিত্র প্রদর্শনী উদ্বোধন করা হলেও সেটি সাধারণ মানুষের জন্য পরদিন থেকে উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে। বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার দুর্লভ ১৪৫টি আলোকচিত্র থাকবে প্রদর্শনীতে। ১০০ টাকা দিয়ে যে কেউ সেটি দেখার জন্য কারাগারে ঢুকতে পারবেন। একজন দর্শনার্থী সর্বোচ্চ দুই ঘণ্টা সেখানে থাকতে পারবেন।

কারাগার দর্শন বন্ধ ঘোষণার পরেও ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে অপেক্ষায় দর্শনার্থীরা। ছবি: আসাদুজ্জামানসেখানে গিয়ে দেখা গেল, কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে রোলার দিয়ে রাস্তা ঠিক করা হচ্ছে। যে কারণে কারাগার অভিমুখের রাস্তাঘাট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তারপরও হেঁটে দর্শনার্থীরা কারাগারের সামনে ভিড় করতে থাকেন। বেলা তিনটার পর কারা কর্তৃপক্ষ মাইকে ঘোষণা দিচ্ছিল, ‘অনিবার্য কারণে আপনাদের কারাগারে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। এ জন্য দুঃখিত।’

ঘোষণা ছাড়াই কেন দর্শনার্থীদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না, জানতে চাওয়া হলে সহকারী কারা মহাপরিদর্শক আবদুল্লাহ আল মামুন প্রথম আলোকে বলেন, ‘অনিবার্য কারণে দর্শনার্থীদের আজ কারাগারের ভেতরে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। আগামীকাল শনিবারও সাধারণ দর্শনার্থীরা কারাগারে ভেতরে ঢুকতে পারবেন না।’ আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ভবিষ্যতে সাধারণ দর্শনার্থীদের কারাগারে ভেতরে ঢোকার সুযোগ করে দেওয়া হবে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X