সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১:৩৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, October 24, 2016 11:36 am
A- A A+ Print

হবিগঞ্জে আসামি ধরতে গিয়ে হামলার শিকার চার পুলিশ

photo-1477277309

হবিগঞ্জে ডাকাতিসহ একাধিক মামলার পলাতক আসামি দীপক সরকার ওরফে সাজুকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে চার পুলিশ সদস্য হামলার শিকার হয়েছেন। গতকাল রোববার রাত ১২টার দিকে হবিগঞ্জ সদরে এ ঘটনা ঘটে। আহত চার পুলিশ হলেন উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান, সুমন হাজরা, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আক্তার হোসেন ও কনস্টেবল ইয়াসির। তাঁদের হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। আহত এসআই মিজানুর রহমান জানান, সম্প্রতি হবিগঞ্জ শহরের বিভিন্ন স্থানে চুরি-ডাকাতিসহ অপরাধ প্রবণতা বৃদ্ধি পাওয়ায় পুলিশ প্রতিদিন রাতে শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করছে। পাশাপাশি তালিকাভুক্ত চোর, ডাকাত, সন্ত্রাসীসহ বিভিন্ন মামলার পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের বিশেষ অভিযান চলছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার একদল পুলিশ সন্ত্রাসী দীপকের বাসা ঘেরাও করে। এসআই আরো জানান, দীপকের বাসায় গিয়ে তাঁকে ডাকাডাকি করলেও তিনি দরজা খোলেননি। একপর্যায়ে পুলিশ দরজায় লাথি দিলে দীপকের স্ত্রী দরজা খুলে দেন। পুলিশ দীপককে গ্রেপ্তার করতে চাইলে তাঁর স্ত্রী দা নিয়ে এসে পুলিশকে বাধা দেন। এ নিয়ে তাঁদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এ সময় দীপক ও তাঁর স্ত্রী ক্ষিপ্ত হয়ে এসআই মিজানুর ও এএসআই আক্তার হোসেনের ওপর দা দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। এসআই মিজানের হাতে একটি কোপ লাগলে তিনি মাটিতে পড়ে যান এবং দীপকের স্ত্রী এএসআই আক্তার হোসেনকে দা দিয়ে কোপ দেন। এতে আক্তার হোসেনও আহত হন। খবর পেয়ে এসআই সুমন হাজরা ও এসআই আবদুর রহমানের নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। এর পর হামলায় এসআই সুমন হাজরাও আহত হন। একপর্যায়ে পুলিশ দীপককে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। তবে দীপকের স্ত্রী পালিয়ে যান। দীপককে পুলিশ পাহারায় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়াছিনুল হক জানান, দীপক পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী, অপহরণকারী ও চাঁদাবাজ। বহু মামলার পলাতক আসামি দীপককে গ্রেপ্তারের জন্য রাতে পুলিশ তাঁর বাসায় গিয়ে অভিযান পরিচালনা করলে দীপক ও তাঁর লোকজন দেশি অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে পুলিশের ওপর অতর্কিতে হামলা চালান। এতে চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Comments

Comments!

 হবিগঞ্জে আসামি ধরতে গিয়ে হামলার শিকার চার পুলিশAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

হবিগঞ্জে আসামি ধরতে গিয়ে হামলার শিকার চার পুলিশ

Monday, October 24, 2016 11:36 am
photo-1477277309

হবিগঞ্জে ডাকাতিসহ একাধিক মামলার পলাতক আসামি দীপক সরকার ওরফে সাজুকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে চার পুলিশ সদস্য হামলার শিকার হয়েছেন।

গতকাল রোববার রাত ১২টার দিকে হবিগঞ্জ সদরে এ ঘটনা ঘটে। আহত চার পুলিশ হলেন উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান, সুমন হাজরা, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আক্তার হোসেন ও কনস্টেবল ইয়াসির। তাঁদের হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

আহত এসআই মিজানুর রহমান জানান, সম্প্রতি হবিগঞ্জ শহরের বিভিন্ন স্থানে চুরি-ডাকাতিসহ অপরাধ প্রবণতা বৃদ্ধি পাওয়ায় পুলিশ প্রতিদিন রাতে শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করছে। পাশাপাশি তালিকাভুক্ত চোর, ডাকাত, সন্ত্রাসীসহ বিভিন্ন মামলার পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের বিশেষ অভিযান চলছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার একদল পুলিশ সন্ত্রাসী দীপকের বাসা ঘেরাও করে।

এসআই আরো জানান, দীপকের বাসায় গিয়ে তাঁকে ডাকাডাকি করলেও তিনি দরজা খোলেননি। একপর্যায়ে পুলিশ দরজায় লাথি দিলে দীপকের স্ত্রী দরজা খুলে দেন। পুলিশ দীপককে গ্রেপ্তার করতে চাইলে তাঁর স্ত্রী দা নিয়ে এসে পুলিশকে বাধা দেন। এ নিয়ে তাঁদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এ সময় দীপক ও তাঁর স্ত্রী ক্ষিপ্ত হয়ে এসআই মিজানুর ও এএসআই আক্তার হোসেনের ওপর দা দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। এসআই মিজানের হাতে একটি কোপ লাগলে তিনি মাটিতে পড়ে যান এবং দীপকের স্ত্রী এএসআই আক্তার হোসেনকে দা দিয়ে কোপ দেন। এতে আক্তার হোসেনও আহত হন। খবর পেয়ে এসআই সুমন হাজরা ও এসআই আবদুর রহমানের নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। এর পর হামলায় এসআই সুমন হাজরাও আহত হন। একপর্যায়ে পুলিশ দীপককে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। তবে দীপকের স্ত্রী পালিয়ে যান।

দীপককে পুলিশ পাহারায় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়াছিনুল হক জানান, দীপক পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী, অপহরণকারী ও চাঁদাবাজ। বহু মামলার পলাতক আসামি দীপককে গ্রেপ্তারের জন্য রাতে পুলিশ তাঁর বাসায় গিয়ে অভিযান পরিচালনা করলে দীপক ও তাঁর লোকজন দেশি অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে পুলিশের ওপর অতর্কিতে হামলা চালান। এতে চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X