বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৯:৩৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, January 14, 2017 7:55 pm
A- A A+ Print

হবিগঞ্জে মাছের মেলা জমে উঠেছে বেশ

৩৬

হাওর, খাল-বিল ও নদ-নদীর মাছে জমে উঠেছে হবিগঞ্জের পইলের মেলা। দেশি এ মাছ কিনতে ও দেখতে হাজারো মানুষের সমাগম ঘটেছে মেলাপ্রাঙ্গণে। আজ শনিবার বিকেল থেকে শুরু হয়েছে এ মাছের মেলা। চলবে মধ্যরাত পর্যন্ত। এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, প্রায় শত বছর আগ থেকে ঐতিহ্যবাহী এ মাছের মেলা পয়লা মাঘে বসে হবিগঞ্জ সদর উপজেলার পইল গ্রামে। আজ শনিবার বিকেলে সরেজমিন মেলাপ্রাঙ্গণে গিয়ে দেখা গেছে, হাজারো মানুষের ঢল। হবিগঞ্জ জেলা সদরের শায়েস্তানগর থেকে পইলের মাছ মেলা পর্যন্ত যানজটের সৃষ্টি হয়েছে এ মেলাকে ঘিরে। সবাই মাছ কিনতে ও দেখতে এসেছে। মেলার চারপাশে মাছ ক্রেতা-বিক্রেতার দর-কষাকষি ও হুড়োহুড়ি শোরগালের শব্দে সরব হয়ে ওঠে এ মেলাপ্রাঙ্গণ। মেলায় শুধু হবিগঞ্জের ভাটি এলাকার হাওর, বিল বা নদ-নদীর মাছই নয়, জেলার বাইরে সুনামগঞ্জ, সিলেট, মৌলভীবাজার, পাশের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ও ভৈরবের মৎস্য আড়ত থেকেও ব্যবসায়ীরা বড় বড় মাছ নিয়ে এসেছেন। পাশাপাশি স্থানীয় ছোট-বড় নানা জাতের মাছের ডালা সাজিয়ে বসেছেন খুচরা ব্যবসায়ীরাও। তাঁদের সাজানো পসরায় ছিল রুই-কাতল, চিতল, আইড়, বাগাড়, বোয়ালসহ নানা জাতের মাছ। ঝলমলে এ মাছগুলোকে শিশুদেরও মন্ত্রমুগ্ধ দৃষ্টিতে পরখ করতে দেখা গেছে। মেলায় এক বিক্রেতা তাঁর আনা বিশাল বোয়াল দেখা​চ্ছেন।মেলায় মাছ বিক্রেতা রজব আলী ২৫ কেজি ওজনের একটি বোয়াল মাছের দাম হাঁকেন ৩০ হাজার টাকা। আরেক বিক্রেতা ১৮ কেজি ওজনের আইড় মাছের দাম চাইলেন ২৫ হাজার টাকা। ভৈরব থেকে আসা আরেক মাছ বিক্রেতা আরব আলী ৩০ কেজি ওজনের একটি বাগাড় মাছের দাম হাঁকেন ৪০ হাজার টাকা। মাছ বিক্রেতা সমুজ আলী বলেন, এ মেলার স্থানীয় ও দেশি মাছেই বেশি। যে মাছগুলো সিলেট অঞ্চলের ভাটি এলাকা হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ এলাকার হাওর, খাল-বিল ও নদ-নদী থেকে আসা। যে কারণে এ মাছের চাহিদা একটু বেশি এবং বেচাকেনাও ভালো হচ্ছে। মাছের সারি পইলের মেলায়। উৎ​সুক ক্রেতারা।পইল গ্রামের অধিবাসী রিপন মিয়া বলেন, এ মেলাকে ঘিরে আমাদের প্রতিটি বাড়িতে দূর-দূরান্ত থেকে আত্মীয়স্বজন এসেছেন বেড়াতে। খাওয়াদাওয়ার ধুম এবং তাঁদের এ আগমনে উৎসবে পরিণত হয়েছে পুরো গ্রামটি। মেলা আয়োজক কমিটির সভাপতি ও পইল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মঈনুল হক আরিফ বলেন, প্রতিবছর এ মেলার জন্য অপেক্ষায় থাকে মানুষ। জেলার বাইরে থেকেও অনেকই আসে এ মেলা দেখতে। গ্রামের স্বেচ্ছাসেবকদের সমন্বয়ে এ মেলা পরিচালনা হয়ে থাকে। যে-কেউ এ মেলায় বেচাকেনা করতে পারেন। আড়ত ব্যবসায়ী বা খুচরা মাছ বিক্রেতা কারও কাছ থেকে মেলার আয়োজকদের পক্ষ থেকে কোনো অর্থকড়ি নেওয়া হয় না। পইলের এ মাছের মেলার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের হাতের তৈরি বাঁশ-বেতের বা কাঠের জিনিসপত্র, নানা রঙের মাটির বাসন, মৌসুমি ফল, খাবারের দোকান এনিকি কৃষি যন্ত্রাংশও ছিল। আজ শনিবার মধ্যরাত পর্যন্ত চলবে এ মেলার বেচাকেনা। বিরাট বাঘা আইর, আইর, কাতল। পইলের মেলায় এমন মাছের সম্ভার দেখা গেছে।

Comments

Comments!

 হবিগঞ্জে মাছের মেলা জমে উঠেছে বেশAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

হবিগঞ্জে মাছের মেলা জমে উঠেছে বেশ

Saturday, January 14, 2017 7:55 pm
৩৬

হাওর, খাল-বিল ও নদ-নদীর মাছে জমে উঠেছে হবিগঞ্জের পইলের মেলা। দেশি এ মাছ কিনতে ও দেখতে হাজারো মানুষের সমাগম ঘটেছে মেলাপ্রাঙ্গণে। আজ শনিবার বিকেল থেকে শুরু হয়েছে এ মাছের মেলা। চলবে মধ্যরাত পর্যন্ত।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, প্রায় শত বছর আগ থেকে ঐতিহ্যবাহী এ মাছের মেলা পয়লা মাঘে বসে হবিগঞ্জ সদর উপজেলার পইল গ্রামে।
আজ শনিবার বিকেলে সরেজমিন মেলাপ্রাঙ্গণে গিয়ে দেখা গেছে, হাজারো মানুষের ঢল। হবিগঞ্জ জেলা সদরের শায়েস্তানগর থেকে পইলের মাছ মেলা পর্যন্ত যানজটের সৃষ্টি হয়েছে এ মেলাকে ঘিরে। সবাই মাছ কিনতে ও দেখতে এসেছে। মেলার চারপাশে মাছ ক্রেতা-বিক্রেতার দর-কষাকষি ও হুড়োহুড়ি শোরগালের শব্দে সরব হয়ে ওঠে এ মেলাপ্রাঙ্গণ।
মেলায় শুধু হবিগঞ্জের ভাটি এলাকার হাওর, বিল বা নদ-নদীর মাছই নয়, জেলার বাইরে সুনামগঞ্জ, সিলেট, মৌলভীবাজার, পাশের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ও ভৈরবের মৎস্য আড়ত থেকেও ব্যবসায়ীরা বড় বড় মাছ নিয়ে এসেছেন। পাশাপাশি স্থানীয় ছোট-বড় নানা জাতের মাছের ডালা সাজিয়ে বসেছেন খুচরা ব্যবসায়ীরাও। তাঁদের সাজানো পসরায় ছিল রুই-কাতল, চিতল, আইড়, বাগাড়, বোয়ালসহ নানা জাতের মাছ। ঝলমলে এ মাছগুলোকে শিশুদেরও মন্ত্রমুগ্ধ দৃষ্টিতে পরখ করতে দেখা গেছে।
মেলায় এক বিক্রেতা তাঁর আনা বিশাল বোয়াল দেখা​চ্ছেন।মেলায় মাছ বিক্রেতা রজব আলী ২৫ কেজি ওজনের একটি বোয়াল মাছের দাম হাঁকেন ৩০ হাজার টাকা। আরেক বিক্রেতা ১৮ কেজি ওজনের আইড় মাছের দাম চাইলেন ২৫ হাজার টাকা। ভৈরব থেকে আসা আরেক মাছ বিক্রেতা আরব আলী ৩০ কেজি ওজনের একটি বাগাড় মাছের দাম হাঁকেন ৪০ হাজার টাকা।
মাছ বিক্রেতা সমুজ আলী বলেন, এ মেলার স্থানীয় ও দেশি মাছেই বেশি। যে মাছগুলো সিলেট অঞ্চলের ভাটি এলাকা হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ এলাকার হাওর, খাল-বিল ও নদ-নদী থেকে আসা। যে কারণে এ মাছের চাহিদা একটু বেশি এবং বেচাকেনাও ভালো হচ্ছে।
মাছের সারি পইলের মেলায়। উৎ​সুক ক্রেতারা।পইল গ্রামের অধিবাসী রিপন মিয়া বলেন, এ মেলাকে ঘিরে আমাদের প্রতিটি বাড়িতে দূর-দূরান্ত থেকে আত্মীয়স্বজন এসেছেন বেড়াতে। খাওয়াদাওয়ার ধুম এবং তাঁদের এ আগমনে উৎসবে পরিণত হয়েছে পুরো গ্রামটি।
মেলা আয়োজক কমিটির সভাপতি ও পইল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মঈনুল হক আরিফ বলেন, প্রতিবছর এ মেলার জন্য অপেক্ষায় থাকে মানুষ। জেলার বাইরে থেকেও অনেকই আসে এ মেলা দেখতে। গ্রামের স্বেচ্ছাসেবকদের সমন্বয়ে এ মেলা পরিচালনা হয়ে থাকে। যে-কেউ এ মেলায় বেচাকেনা করতে পারেন। আড়ত ব্যবসায়ী বা খুচরা মাছ বিক্রেতা কারও কাছ থেকে মেলার আয়োজকদের পক্ষ থেকে কোনো অর্থকড়ি নেওয়া হয় না।
পইলের এ মাছের মেলার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের হাতের তৈরি বাঁশ-বেতের বা কাঠের জিনিসপত্র, নানা রঙের মাটির বাসন, মৌসুমি ফল, খাবারের দোকান এনিকি কৃষি যন্ত্রাংশও ছিল। আজ শনিবার মধ্যরাত পর্যন্ত চলবে এ মেলার বেচাকেনা।

বিরাট বাঘা আইর, আইর, কাতল। পইলের মেলায় এমন মাছের সম্ভার দেখা গেছে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X