সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৮:১২
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, September 5, 2016 8:33 am
A- A A+ Print

হাইপারটেশনে যেসব খাবার নয়

hypertension1473040641

রক্তচাপ স্বাভাবিকের চেয়ে কম বা বেশি, কোনোটিই শরীরের জন্য ভালো নয়। বিশেষ করে হাইপারটেনশন বা উচ্চ রক্তচাপ তো নিম্ন রক্তচাপের চেয়ে আরো বেশি ভয়ংকর কিছু ঘটাতে পারে। কারণ হৃদক্রিয়া বন্ধ, কিডনি নষ্ট হওয়া থেকে মস্তিষ্কের ক্ষতির মতো মারাত্মক ঘটনার ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায় উচ্চ রক্তচাপের কারণে।কারো কারো ক্ষেত্রে উচ্চ রক্তচাপ ব্যাপারটা বংশগত। তবে অনেকের ক্ষেত্রে জীবনযাপনের কারণেই উচ্চ রক্তচাপ দেখা যায়।উচ্চ রক্তচাপ সমস্যার ফলে শরীরের যে ক্ষতি হচ্ছে, সেটা প্রথমে ধরা পড়ে না। কোনো লক্ষণ দেখা যায় না। ফলে অনেক সময়ই বিপদ এড়ানো সম্ভব হয় না। তাই বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই নিয়মিত ডাক্তারি পরীক্ষা ভীষনভাবে জরুরি। এছাড়া কয়েকটি খাবার ডায়েটে না রাখলে উচ্চ রক্তচাপ বা হাইপারটেনশন থেকে সহজেই মুক্তি পেতে পারেন। জেনে নিন, কোন খাবারকে ডায়েটে রাখবেন না।   * প্রক্রিয়াজাত খাবার: বিভিন্ন ধরনের প্রক্রিয়াজাত খাবার খাওয়া কমিয়ে দিন। প্রক্রিয়াজাত মাংস, পাউরুটি- এ ধরনের খাবার রক্তচাপ বাড়িয়ে তোলে। * তেল: খাবারে যত কম পারবেন তেল ব্যবহার করুন। তেলে অনেক বেশি পরিমাণে ফ্যাট থাকে, যা রক্তের কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়িয়ে তোলে। যার ফলে রক্তচাপও অনেকটা বেড়ে যায়। * লবণ: বেশিমাত্রায় লবণ খেলে তা রক্তচাপ বাড়িয়ে দেয়। বেশি লবণ খেলে শরীর পানি ধরে রাখে। ফলে রক্তচাপ বেড়ে যায়। ফলে বেশি পরিমাণে সস, টিনজাত খাবার খাওয়া একেবারে বন্ধ করুন। * অ্যালকোহল: বেশি পরিমাণে অ্যালকোহল খেলে সবধরনের শারীরিক জটিলতা তৈরি হয়। এর মধ্যে একেবারে প্রথম সারিতেই রয়েছে উচ্চ রক্তচাপ বা হাইপারটেনশনের সমস্যা। * কফি: কফিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যাফেইন যা বেশি পরিমাণে শরীরে গেলে রক্তচাপ নিমেষে বাড়িয়ে তোলে। তাই যাদের সমস্যা রয়েছে তারা নিয়মিত কফি না খেলেই ভালো হয়। * ধূমপান: সিগারেট বা বিড়িতে নিকোটিন থাকে যা শরীরের জন্য খারাপ। এটি রক্তচাপ বাড়িয়ে তোলে এবং ধমনীর গতিপথ আটকে দেয়। এর ফলে হাইপারটেনশন ও স্ট্রোকের সম্ভাবনা বহুল পরিমাণে বেড়ে যায়। চর্বিজাতীয় খাবার: গরুর মাংস, খাসির মাংস, কলিজা, ডিমের কুসুম, বাটার, ঘি, ইত্যাদি খাওয়া কমিয়ে আনতে হবে। তাহলেই রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে এবং হাইপারটেনশন থেকে আপনি দূরে থাকবেন। তথ্যসূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া

Comments

Comments!

 হাইপারটেশনে যেসব খাবার নয়AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

হাইপারটেশনে যেসব খাবার নয়

Monday, September 5, 2016 8:33 am
hypertension1473040641

রক্তচাপ স্বাভাবিকের চেয়ে কম বা বেশি, কোনোটিই শরীরের জন্য ভালো নয়। বিশেষ করে হাইপারটেনশন বা উচ্চ রক্তচাপ তো নিম্ন রক্তচাপের চেয়ে আরো বেশি ভয়ংকর কিছু ঘটাতে পারে। কারণ হৃদক্রিয়া বন্ধ, কিডনি নষ্ট হওয়া থেকে মস্তিষ্কের ক্ষতির মতো মারাত্মক ঘটনার ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায় উচ্চ রক্তচাপের কারণে।কারো কারো ক্ষেত্রে উচ্চ রক্তচাপ ব্যাপারটা বংশগত। তবে অনেকের ক্ষেত্রে জীবনযাপনের কারণেই উচ্চ রক্তচাপ দেখা যায়।উচ্চ রক্তচাপ সমস্যার ফলে শরীরের যে ক্ষতি হচ্ছে, সেটা প্রথমে ধরা পড়ে না। কোনো লক্ষণ দেখা যায় না। ফলে অনেক সময়ই বিপদ এড়ানো সম্ভব হয় না। তাই বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই নিয়মিত ডাক্তারি পরীক্ষা ভীষনভাবে জরুরি। এছাড়া কয়েকটি খাবার ডায়েটে না রাখলে উচ্চ রক্তচাপ বা হাইপারটেনশন থেকে সহজেই মুক্তি পেতে পারেন। জেনে নিন, কোন খাবারকে ডায়েটে রাখবেন না।

 

* প্রক্রিয়াজাত খাবার: বিভিন্ন ধরনের প্রক্রিয়াজাত খাবার খাওয়া কমিয়ে দিন। প্রক্রিয়াজাত মাংস, পাউরুটি- এ ধরনের খাবার রক্তচাপ বাড়িয়ে তোলে।

* তেল: খাবারে যত কম পারবেন তেল ব্যবহার করুন। তেলে অনেক বেশি পরিমাণে ফ্যাট থাকে, যা রক্তের কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়িয়ে তোলে। যার ফলে রক্তচাপও অনেকটা বেড়ে যায়।

* লবণ: বেশিমাত্রায় লবণ খেলে তা রক্তচাপ বাড়িয়ে দেয়। বেশি লবণ খেলে শরীর পানি ধরে রাখে। ফলে রক্তচাপ বেড়ে যায়। ফলে বেশি পরিমাণে সস, টিনজাত খাবার খাওয়া একেবারে বন্ধ করুন।

* অ্যালকোহল: বেশি পরিমাণে অ্যালকোহল খেলে সবধরনের শারীরিক জটিলতা তৈরি হয়। এর মধ্যে একেবারে প্রথম সারিতেই রয়েছে উচ্চ রক্তচাপ বা হাইপারটেনশনের সমস্যা।

* কফি: কফিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যাফেইন যা বেশি পরিমাণে শরীরে গেলে রক্তচাপ নিমেষে বাড়িয়ে তোলে। তাই যাদের সমস্যা রয়েছে তারা নিয়মিত কফি না খেলেই ভালো হয়।

* ধূমপান: সিগারেট বা বিড়িতে নিকোটিন থাকে যা শরীরের জন্য খারাপ। এটি রক্তচাপ বাড়িয়ে তোলে এবং ধমনীর গতিপথ আটকে দেয়। এর ফলে হাইপারটেনশন ও স্ট্রোকের সম্ভাবনা বহুল পরিমাণে বেড়ে যায়।

চর্বিজাতীয় খাবার: গরুর মাংস, খাসির মাংস, কলিজা, ডিমের কুসুম, বাটার, ঘি, ইত্যাদি খাওয়া কমিয়ে আনতে হবে। তাহলেই রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে এবং হাইপারটেনশন থেকে আপনি দূরে থাকবেন।

তথ্যসূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X