রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ২:৫৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, September 30, 2016 12:34 pm
A- A A+ Print

‘হামলার জবাব দেয়ার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আছে ভারতের’

154712_1

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেছেন, নিজের স্বার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতার বিরুদ্ধে যেকোনো হামলার জবাব দেয়ার ‘সকল আইনগত ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃত অধিকার’ আছে ভারতের। পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত আজাদ কাশ্মিরে নিয়ন্ত্রণ রেখায় ভারতীয় সেনাবাহিনীর চালানো ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের’ পর সৃষ্ট উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে এমন মন্তব্য করেছেন তিনি। ইকবাল সোবহান চৌধুরী আরো বলেছেন, কোনো সন্ত্রাসী গ্রুপের ঘাঁটি হিসেবে বাংলাদেশকে ব্যবহার করতে দেয়া হবে না। ভারতের সরকারি বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের বরাতে এ খবর প্রকাশ করেছে অনলাইন দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া। বুধবার রাতে আজাদ কাশ্মিরে ওই ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ চালায় বলে ভারতের সেনাবাহিনীর দাবি। এতে পাকিস্তানের দু’জন সেনা সদস্য নিহত হয়েছেন। কিন্তু এটা সার্জিক্যাল স্ট্রাইক ছিল না বলে ভারতের দাবি জোর দিয়ে প্রত্যাখ্যান করেছে পাকিস্তান। এ নিয়ে দু’দেশের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। এ অবস্থায় ইকবাল সোবহান চৌধুরী সব পক্ষকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। কাশ্মির ইস্যুতে তিনি বলেছেন, এটা একটি ‘দ্বিপক্ষীয় বিরোধ’। অন্যপক্ষ থেকে এখানে নিয়ম লঙ্ঘন হচ্ছে (দেয়ার হ্যাস বিন এ ভায়োলেশন ফ্রম দ্য আদার সাইড)। এটা (কাশ্মির ইস্যু) দীর্ঘদিনের, অব্যাহত একটি বিরোধ। তিনি বলেন, সব সময়ই বাংলাদেশ বিশ্বাস করে যে, কোনো একটি স্বাধীন দেশের স্বার্বভৌমত্ব ও আইনগত অধিকারের ওপর আগ্রাসন বা আক্রমণ গ্রহণযোগ্য নয়। বাংলাদেশ সব সময় মনে করে যে, যেকোনো দেশকে অবশ্যই তৃতীয় একটি দেশের স্বার্বভৌমত্বকে সম্মান করতে হবে। ইকবাল সোবহান চৌধুরী আরো বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর, তিনি বলেছেন, ভারত বিরোধিতায় কোনো সন্ত্রাসী গ্রুপের ঘাঁটি হিসেবে বাংলাদেশের মাটিকে ব্যবহার করতে দেয়া হবে না। ভারতের বিরুদ্ধে তাদেরকে কোনো হামলা পরিকল্পনা বা সংগঠিত করতে দেয়া হবে না। এমন যেকোনো কর্মকাণ্ডে শূন্য সহনশীলতা প্রদর্শনের প্রতি জোরালো প্রতিশ্রুতি রয়েছে। ভারতের একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে ইকবাল সোবহান চৌধুরী আরো বলেছেন, আমি মনে করি যেকোনো পক্ষ থেকে, হোক সেটা কোনো প্রতিবেশী দেশ, যেকোনো ধরনের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা ও লড়াই করার সকল অধিকার ভারত সরকার ও জনগণের আছে। তবে তিনি শান্তিপূর্ণ প্রতিবেশীর রীতির জন্য সব পক্ষকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি  বলেছেন, সব সময়ই বাংলাদেশ মনে করে, সব পক্ষকেই বিরত থাকা উচিত। কারণ, আমরা বিশ্বাস করি সার্কভুক্ত দেশগুলোতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখা ও একে অন্যের স্বার্বভৌমত্বের প্রতি সম্মান দেখানো উচিত।

Comments

Comments!

 ‘হামলার জবাব দেয়ার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আছে ভারতের’AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

‘হামলার জবাব দেয়ার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আছে ভারতের’

Friday, September 30, 2016 12:34 pm
154712_1

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেছেন, নিজের স্বার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতার বিরুদ্ধে যেকোনো হামলার জবাব দেয়ার ‘সকল আইনগত ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃত অধিকার’ আছে ভারতের।

পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত আজাদ কাশ্মিরে নিয়ন্ত্রণ রেখায় ভারতীয় সেনাবাহিনীর চালানো ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের’ পর সৃষ্ট উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে এমন মন্তব্য করেছেন তিনি।

ইকবাল সোবহান চৌধুরী আরো বলেছেন, কোনো সন্ত্রাসী গ্রুপের ঘাঁটি হিসেবে বাংলাদেশকে ব্যবহার করতে দেয়া হবে না।

ভারতের সরকারি বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের বরাতে এ খবর প্রকাশ করেছে অনলাইন দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া।

বুধবার রাতে আজাদ কাশ্মিরে ওই ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ চালায় বলে ভারতের সেনাবাহিনীর দাবি। এতে পাকিস্তানের দু’জন সেনা সদস্য নিহত হয়েছেন। কিন্তু এটা সার্জিক্যাল স্ট্রাইক ছিল না বলে ভারতের দাবি জোর দিয়ে প্রত্যাখ্যান করেছে পাকিস্তান।

এ নিয়ে দু’দেশের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। এ অবস্থায় ইকবাল সোবহান চৌধুরী সব পক্ষকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

কাশ্মির ইস্যুতে তিনি বলেছেন, এটা একটি ‘দ্বিপক্ষীয় বিরোধ’। অন্যপক্ষ থেকে এখানে নিয়ম লঙ্ঘন হচ্ছে (দেয়ার হ্যাস বিন এ ভায়োলেশন ফ্রম দ্য আদার সাইড)। এটা (কাশ্মির ইস্যু) দীর্ঘদিনের, অব্যাহত একটি বিরোধ।

তিনি বলেন, সব সময়ই বাংলাদেশ বিশ্বাস করে যে, কোনো একটি স্বাধীন দেশের স্বার্বভৌমত্ব ও আইনগত অধিকারের ওপর আগ্রাসন বা আক্রমণ গ্রহণযোগ্য নয়। বাংলাদেশ সব সময় মনে করে যে, যেকোনো দেশকে অবশ্যই তৃতীয় একটি দেশের স্বার্বভৌমত্বকে সম্মান করতে হবে।

ইকবাল সোবহান চৌধুরী আরো বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর, তিনি বলেছেন, ভারত বিরোধিতায় কোনো সন্ত্রাসী গ্রুপের ঘাঁটি হিসেবে বাংলাদেশের মাটিকে ব্যবহার করতে দেয়া হবে না। ভারতের বিরুদ্ধে তাদেরকে কোনো হামলা পরিকল্পনা বা সংগঠিত করতে দেয়া হবে না। এমন যেকোনো কর্মকাণ্ডে শূন্য সহনশীলতা প্রদর্শনের প্রতি জোরালো প্রতিশ্রুতি রয়েছে।

ভারতের একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে ইকবাল সোবহান চৌধুরী আরো বলেছেন, আমি মনে করি যেকোনো পক্ষ থেকে, হোক সেটা কোনো প্রতিবেশী দেশ, যেকোনো ধরনের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা ও লড়াই করার সকল অধিকার ভারত সরকার ও জনগণের আছে।

তবে তিনি শান্তিপূর্ণ প্রতিবেশীর রীতির জন্য সব পক্ষকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি  বলেছেন, সব সময়ই বাংলাদেশ মনে করে, সব পক্ষকেই বিরত থাকা উচিত। কারণ, আমরা বিশ্বাস করি সার্কভুক্ত দেশগুলোতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখা ও একে অন্যের স্বার্বভৌমত্বের প্রতি সম্মান দেখানো উচিত।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X