রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ২:২০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, July 22, 2016 8:31 am | আপডেটঃ July 22, 2016 12:53 PM
A- A A+ Print

হেঁটে ওজন কমানোর ক্ষেত্রে আপনি কি ভুল করেন?

1423626619_1

লাইফস্টাইল ডেস্ক: অনেকেই হাঁটেন। লক্ষ্য-ওজন কমিয়ে ফেলা। অনেকেই বলে থাকেন, হাঁটা তার জন্য কোন কাজ করছে না। কিন্তু অনেকেরই এই মনে করাটা সঠিক নয়। অন্তত গবেষণা বলছে সে কথা। গবেষণায় জানা যায়, প্রতিদিন ১ঘণ্ঠা করে এই হাঁটার অভ্যাস আপনার শরীরের বাড়তি ৫০০ ক্যালোরি পুড়িয়ে ফেলতে সক্ষম। 1423626619_1 তারপরও কেনো আপনার ওজন কমছে না? আসলে এখানে দোষটা হাঁটার নয়, দোষ আপনার হাঁটার সময়কার কিছু অভ্যাসের। হেঁটে ওজন কমানোর ক্ষেত্রে বেশ কিছু ভুল করে ফেলি আমরা নিজের অজান্তেই। ফলে ওজন কমার বদলে বেড়েও যেতে পারে! ওজন কমানোর জন্য হাঁটার পাশাপাশি আরো বেশ কিছু বিষয়ে আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে। চলুন জেনে সেসব বিষয়— :কোন বেলার খাবার বাদ দেবেন না ওজন কমানোর জন্য কখনই নিয়মিত কোন বেলার খাবার বন্ধ দেবেন না। খাবার বন্ধ করে আপনি দৌড়ে বা হেঁটে ওজন কমাতে পারবেন না। উল্টো আপনি দুর্বল হয়ে যেতে পারেন। এই ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ হল- দিনে ৬ বার আপনি অল্প করে খাবার খান। একেবারে বেশি না খেয়ে। কিন্তু এই পরামর্শ না মেনে আপনি যদি দুই বেলা বেশি করে খান, সেই ক্ষেত্রে বাড়তি চর্বি জমতে পারে আপনার শরীরে।   :নিজেকে দেয়া উপহারের বিষয়ে সচেতন হন আপনি নিজেকে কি উপহার দিতে চান? হয়ত সপ্তাহে একটি পিৎজা বা হ্যাম বার্গার। অথবা ঘুরতে বেড় হয়ে এনার্জি ড্রিংকস। কিন্তু সপ্তাহে একবার এ জাতীয় খাবার বা চকলেট নিজেকে খেতে দিয়ে আপনি ওজন কমাতে পারবেন না। প্রতিদিন দৌড়ে বা হেঁটে আপনি যে পরিমাণ ক্যালরি হারাবেন তার থেকে বেশি একদিনে গ্রহণ করে ওজন কমানো সম্ভব হবে না।   তাই এ সময় আপনি নিজেকে বই উপহার দিতে পারেন। অথবা কোথাও গিয়ে দেখা আসতে পারেন মুভি। কিন্তু মুভি দেখতে গিয়েও খাবার ক্ষেত্রে সাবধান। সকল চর্বি জাতীয় খাবার বন্ধ করবেন না: হেঁটে বা দৌঁড়ে ওজন কমানো সময় অনেকেই চান চর্বি জাতীয় খাবার না খেয়ে ওজন কমানোর জন্য। কিন্তু আমাদের শরীরে প্রতিনিয়ত কাজ করার জন্য এবং দ্রুত শক্তি উৎপাদনের জন্য চর্বির বিকল্প নেই। এ ক্ষেত্রে প্রাণীর শরীর থেকে পাওয়া ফ্যাট বা চিনি পরিহার করে বিভিন্ন মাছ বা গাছের বীজ থেকে তৈরি তেল খেতে হবে। তা না হলে প্রয়োজনের সময় আপনি শক্তি পাবেন না। পর্যাপ্ত পানি পান করুন আপনি যখন দৌঁড়াতে বা হাঁটতে যাবেন, তখন সঙ্গে পানির বোতল রাখুন। সেখান থেকে ফিরে এসেও প্রচুর পানি খাবেন। কেননা দৌড়লে বা হাঁটলে আপনার শরীরে পানির অভাব হবে এবং কিছুটা ক্লান্ত অনুভব করবেন। এ সময় হয়ত মনে হবে আপনার ক্ষুধা পেয়েছে। কিন্তু তখন কিছু খাওয়া উচিত হবে না। এ সময় বেশি করে পানি পান করে নিজের পেট ভরে ফেলুন। টাইমস অব ইন্ডিয়া। নিজের ক্ষুধাকে চিনতে শিখুন আপনি হয়ত রেগে আছেন, অথবা আপনার মন খারাপ। কখনও মনে করবেন না আপনি ক্ষুধার্ত বলে এমনটা হচ্ছে। অকারণে খাবার খাবেন না। নিজের রাগ বা মন খারাপ ভাব দূর করার জন্যও নয়।

Comments

Comments!

 হেঁটে ওজন কমানোর ক্ষেত্রে আপনি কি ভুল করেন?AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

হেঁটে ওজন কমানোর ক্ষেত্রে আপনি কি ভুল করেন?

Friday, July 22, 2016 8:31 am | আপডেটঃ July 22, 2016 12:53 PM
1423626619_1

লাইফস্টাইল ডেস্ক: অনেকেই হাঁটেন। লক্ষ্য-ওজন কমিয়ে ফেলা। অনেকেই বলে থাকেন, হাঁটা তার জন্য কোন কাজ করছে না। কিন্তু অনেকেরই এই মনে করাটা সঠিক নয়। অন্তত গবেষণা বলছে সে কথা। গবেষণায় জানা যায়, প্রতিদিন ১ঘণ্ঠা করে এই হাঁটার অভ্যাস আপনার শরীরের বাড়তি ৫০০ ক্যালোরি পুড়িয়ে ফেলতে সক্ষম।

1423626619_1

তারপরও কেনো আপনার ওজন কমছে না? আসলে এখানে দোষটা হাঁটার নয়, দোষ আপনার হাঁটার সময়কার কিছু অভ্যাসের। হেঁটে ওজন কমানোর ক্ষেত্রে বেশ কিছু ভুল করে ফেলি আমরা নিজের অজান্তেই। ফলে ওজন কমার বদলে বেড়েও যেতে পারে!

ওজন কমানোর জন্য হাঁটার পাশাপাশি আরো বেশ কিছু বিষয়ে আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে। চলুন জেনে সেসব বিষয়—

:কোন বেলার খাবার বাদ দেবেন না

ওজন কমানোর জন্য কখনই নিয়মিত কোন বেলার খাবার বন্ধ দেবেন না। খাবার বন্ধ করে আপনি দৌড়ে বা হেঁটে ওজন কমাতে পারবেন না। উল্টো আপনি দুর্বল হয়ে যেতে পারেন। এই ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ হল- দিনে ৬ বার আপনি অল্প করে খাবার খান। একেবারে বেশি না খেয়ে। কিন্তু এই পরামর্শ না মেনে আপনি যদি দুই বেলা বেশি করে খান, সেই ক্ষেত্রে বাড়তি চর্বি জমতে পারে আপনার শরীরে।

 

:নিজেকে দেয়া উপহারের বিষয়ে সচেতন হন

আপনি নিজেকে কি উপহার দিতে চান? হয়ত সপ্তাহে একটি পিৎজা বা হ্যাম বার্গার। অথবা ঘুরতে বেড় হয়ে এনার্জি ড্রিংকস। কিন্তু সপ্তাহে একবার এ জাতীয় খাবার বা চকলেট নিজেকে খেতে দিয়ে আপনি ওজন কমাতে পারবেন না। প্রতিদিন দৌড়ে বা হেঁটে আপনি যে পরিমাণ ক্যালরি হারাবেন তার থেকে বেশি একদিনে গ্রহণ করে ওজন কমানো সম্ভব হবে না।

 

তাই এ সময় আপনি নিজেকে বই উপহার দিতে পারেন। অথবা কোথাও গিয়ে দেখা আসতে পারেন মুভি। কিন্তু মুভি দেখতে গিয়েও খাবার ক্ষেত্রে সাবধান।

সকল চর্বি জাতীয় খাবার বন্ধ করবেন না:

হেঁটে বা দৌঁড়ে ওজন কমানো সময় অনেকেই চান চর্বি জাতীয় খাবার না খেয়ে ওজন কমানোর জন্য। কিন্তু আমাদের শরীরে প্রতিনিয়ত কাজ করার জন্য এবং দ্রুত শক্তি উৎপাদনের জন্য চর্বির বিকল্প নেই। এ ক্ষেত্রে প্রাণীর শরীর থেকে পাওয়া ফ্যাট বা চিনি পরিহার করে বিভিন্ন মাছ বা গাছের বীজ থেকে তৈরি তেল খেতে হবে। তা না হলে প্রয়োজনের সময় আপনি শক্তি পাবেন না।

পর্যাপ্ত পানি পান করুন

আপনি যখন দৌঁড়াতে বা হাঁটতে যাবেন, তখন সঙ্গে পানির বোতল রাখুন। সেখান থেকে ফিরে এসেও প্রচুর পানি খাবেন। কেননা দৌড়লে বা হাঁটলে আপনার শরীরে পানির অভাব হবে এবং কিছুটা ক্লান্ত অনুভব করবেন। এ সময় হয়ত মনে হবে আপনার ক্ষুধা পেয়েছে। কিন্তু তখন কিছু খাওয়া উচিত হবে না। এ সময় বেশি করে পানি পান করে নিজের পেট ভরে ফেলুন। টাইমস অব ইন্ডিয়া।

নিজের ক্ষুধাকে চিনতে শিখুন

আপনি হয়ত রেগে আছেন, অথবা আপনার মন খারাপ। কখনও মনে করবেন না আপনি ক্ষুধার্ত বলে এমনটা হচ্ছে। অকারণে খাবার খাবেন না। নিজের রাগ বা মন খারাপ ভাব দূর করার জন্যও নয়।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X