বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৩:৩৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, October 26, 2016 9:38 pm
A- A A+ Print

১৮০৮ কোটি টাকার নয়টি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন

gov1477491324

১ হাজার ৮০৮ কোটি ৮৩ লাখ টাকার নয়টি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন করেছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। এর মধ্যে বেসরকারি খাতে দুটি বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ কেনার প্রস্তাব রয়েছে।
বুধবার বিকেলে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এসব ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়। বৈঠকে কমিটির সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিবরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে অনুমোদিত প্রস্তাবের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান। মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন গ্রেটার ঢাকা সাসটেইনেবল ট্রান্সপোর্ট প্রজেক্টের আওতায় গাজীপুর থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত বিআরটি প্রকল্প বাস্তবায়নের প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে চীনের ঠিকাদার সংস্থা চায়না-গিঝুবা গ্লোবাল কনস্ট্রাকশন লিমিটেড। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ৮৫৫ কোটি ৩৭ লাখ টাকা। অতিরিক্ত সচিব বলেন, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের ‘পল্লী বিদ্যুতায়ন সম্প্রসারণের মাধ্যমে ১৫ লাখ গ্রাহক সংযোগ’শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় কন্ডাকটর ও আন্ডারগ্রাউন্ড কেবল কেনার একটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এ প্রকল্পের অধীনে পাঁচটি লটে এসব পণ্য ক্রয়ে ব্যয় হবে ৩৬২ কোটি ৭ লাখ টাকা। বৈঠকে সরাসরি ক্রয় পদ্ধতির আওতায় বিজেএমসির কাছ থেকে খাদ্য মন্ত্রণালয় ১ কোটি  ২৫ লাখ পিস হেসিয়ান বস্তা কেনার একটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান। প্রতিটি বস্তার দাম ৫৪ টাকা হিসেবে ব্যয় হবে ৬৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা। মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট অ্যাসোসিয়েশন (আইডিএ) এবং বাংলাদেশ সরকারের আর্থিক সহায়তায় এলজিইডির অধীনে ‘বহুমুখী দুর্যোগ আশ্রয়কেন্দ্র’শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ভোলা জেলায় ৪২টি সাইক্লোন শেল্টার ও এর সঙ্গেও সংযোগ সড়ক নির্মাণের একটি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান তমা কনস্ট্রাকশন। এতে ব্যয় হবে ২৪২ কোটি টাকা। উপজেলা ও  ইউনিয়নের সড়কে দীর্ঘ সেতু নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব উপজেলাধীন গজারিয়া জিসি-কুলিয়ারচর হেড কোয়ার্টার রাস্তায় ৫ হাজার ৩০০ মিটার চেইনেজে কালী নদীর ওপর ৫২০ দশমিক ৬০ মিটার দীর্ঘ পিসি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ কাজের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয় কমিটি। ব্রিজটি নির্মাণে ব্যয় হবে ৭১ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। এ প্রকল্পটিও বাস্তবায়ন করবে তমা কনস্ট্রাকশন। অতিরিক্ত সচিব বলেন, দেশর আটটি সিটি করপোরেশনে সোলার পাওয়ার ভিত্তিক এলইডি সড়ক বাতি স্থাপনের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছে বিদ্যুৎ বিভাগ। টার্নকি ভিত্তিতে এসব বাতি স্থাপন করা হবে। আটটি পৃথক ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান এসব বাতি স্থাপন করবে। এতে ব্যয় হবে ১৫০ কোটি ৭২ লাখ টাকা। বৈঠকে আইসিটি বিভাগের লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং ডেভেলপমেন্ট প্রকল্পের আওতায় প্রফেশনাল আউটসোর্সিং অ্যান্ড ট্রেনিং সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলে অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান জানান। চারটি লটে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে। এতে ব্যয় হবে ৫৮ কোটি ৭৪ লাখ টাকা। তিনি বলেন, বৈঠকে পঞ্চগড় ও লালমনিরহাটে বেসরকারি খাতে দুটি বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ কেনার দুটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে পঞ্চগড়ে বেক্সিমকো পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড এবং চীনের জিয়াংজু জংটিয়ান টেকনোলজি কোম্পানি লিমিটেডের স্থাপিত ৩০ মেগাওয়াট সৌর বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে প্রতি কিলোওয়াট বিদ্যুৎ কেনায় দাম পড়বে ১১ টাকা ১২ পয়সা। লালমনিরহাটের গ্রিন হাউজিং অ্যান্ড এনার্জি লিমিটেড ও সিইটিসি ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানি লিমিটেডের সোলার বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে প্রতি কিলোওয়াট বিদ্যুৎ কেনায় দাম পড়বে ১০ টাকা। উভয় কেন্দ্র থেকে ২০ বছর মেয়াদে বিদ্যুৎ কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এর আগে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক হয়। বৈঠকে কোম্পানি আইন, ১৯৯৪ এর আওতায় নিবন্ধিত সরকারি মালিকানাধীন কোম্পানির ক্রয় অনুমোদন এখতিয়ার পর্যালোচনা করা হয়। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ থেকে সরকারি কোম্পানিগুলোর ক্রয় ক্ষমতা কমানোর সুপারিশ করা হয়েছিল। এক্ষেত্রে কোম্পানিগুলো নির্দিষ্ট পরিমাণের বাইরে কোনো কেনাকাটা করতে পারবেন না বলে সুপারিশ করেছিল তারা। ক্যাটাগরি অনুযায়ী ৫০০, ২০০ ও ৫০ কোটি টাকার বেশি ক্রয় করতে হলে সংশ্লিষ্ট কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদকে মন্ত্রিসভা কমিটির অনুমোদন নেওয়ার প্রস্তাব করেছিল। বৈঠকে বলা হয়েছে, কোম্পানিগুলোর পরিচালনা পর্ষদের বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আহ্বান করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।  

Comments

Comments!

 ১৮০৮ কোটি টাকার নয়টি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদনAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

১৮০৮ কোটি টাকার নয়টি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন

Wednesday, October 26, 2016 9:38 pm
gov1477491324

১ হাজার ৮০৮ কোটি ৮৩ লাখ টাকার নয়টি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন করেছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। এর মধ্যে বেসরকারি খাতে দুটি বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ কেনার প্রস্তাব রয়েছে।

বুধবার বিকেলে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এসব ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়।

বৈঠকে কমিটির সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিবরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে অনুমোদিত প্রস্তাবের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান।

মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন গ্রেটার ঢাকা সাসটেইনেবল ট্রান্সপোর্ট প্রজেক্টের আওতায় গাজীপুর থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত বিআরটি প্রকল্প বাস্তবায়নের প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে চীনের ঠিকাদার সংস্থা চায়না-গিঝুবা গ্লোবাল কনস্ট্রাকশন লিমিটেড। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ৮৫৫ কোটি ৩৭ লাখ টাকা।

অতিরিক্ত সচিব বলেন, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের ‘পল্লী বিদ্যুতায়ন সম্প্রসারণের মাধ্যমে ১৫ লাখ গ্রাহক সংযোগ’শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় কন্ডাকটর ও আন্ডারগ্রাউন্ড কেবল কেনার একটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এ প্রকল্পের অধীনে পাঁচটি লটে এসব পণ্য ক্রয়ে ব্যয় হবে ৩৬২ কোটি ৭ লাখ টাকা।

বৈঠকে সরাসরি ক্রয় পদ্ধতির আওতায় বিজেএমসির কাছ থেকে খাদ্য মন্ত্রণালয় ১ কোটি  ২৫ লাখ পিস হেসিয়ান বস্তা কেনার একটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান। প্রতিটি বস্তার দাম ৫৪ টাকা হিসেবে ব্যয় হবে ৬৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট অ্যাসোসিয়েশন (আইডিএ) এবং বাংলাদেশ সরকারের আর্থিক সহায়তায় এলজিইডির অধীনে ‘বহুমুখী দুর্যোগ আশ্রয়কেন্দ্র’শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ভোলা জেলায় ৪২টি সাইক্লোন শেল্টার ও এর সঙ্গেও সংযোগ সড়ক নির্মাণের একটি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান তমা কনস্ট্রাকশন। এতে ব্যয় হবে ২৪২ কোটি টাকা।

উপজেলা ও  ইউনিয়নের সড়কে দীর্ঘ সেতু নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব উপজেলাধীন গজারিয়া জিসি-কুলিয়ারচর হেড কোয়ার্টার রাস্তায় ৫ হাজার ৩০০ মিটার চেইনেজে কালী নদীর ওপর ৫২০ দশমিক ৬০ মিটার দীর্ঘ পিসি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ কাজের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয় কমিটি। ব্রিজটি নির্মাণে ব্যয় হবে ৭১ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। এ প্রকল্পটিও বাস্তবায়ন করবে তমা কনস্ট্রাকশন।

অতিরিক্ত সচিব বলেন, দেশর আটটি সিটি করপোরেশনে সোলার পাওয়ার ভিত্তিক এলইডি সড়ক বাতি স্থাপনের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছে বিদ্যুৎ বিভাগ। টার্নকি ভিত্তিতে এসব বাতি স্থাপন করা হবে। আটটি পৃথক ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান এসব বাতি স্থাপন করবে। এতে ব্যয় হবে ১৫০ কোটি ৭২ লাখ টাকা।

বৈঠকে আইসিটি বিভাগের লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং ডেভেলপমেন্ট প্রকল্পের আওতায় প্রফেশনাল আউটসোর্সিং অ্যান্ড ট্রেনিং সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলে অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান জানান। চারটি লটে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে। এতে ব্যয় হবে ৫৮ কোটি ৭৪ লাখ টাকা।

তিনি বলেন, বৈঠকে পঞ্চগড় ও লালমনিরহাটে বেসরকারি খাতে দুটি বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ কেনার দুটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে পঞ্চগড়ে বেক্সিমকো পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড এবং চীনের জিয়াংজু জংটিয়ান টেকনোলজি কোম্পানি লিমিটেডের স্থাপিত ৩০ মেগাওয়াট সৌর বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে প্রতি কিলোওয়াট বিদ্যুৎ কেনায় দাম পড়বে ১১ টাকা ১২ পয়সা। লালমনিরহাটের গ্রিন হাউজিং অ্যান্ড এনার্জি লিমিটেড ও সিইটিসি ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানি লিমিটেডের সোলার বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে প্রতি কিলোওয়াট বিদ্যুৎ কেনায় দাম পড়বে ১০ টাকা। উভয় কেন্দ্র থেকে ২০ বছর মেয়াদে বিদ্যুৎ কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

এর আগে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক হয়। বৈঠকে কোম্পানি আইন, ১৯৯৪ এর আওতায় নিবন্ধিত সরকারি মালিকানাধীন কোম্পানির ক্রয় অনুমোদন এখতিয়ার পর্যালোচনা করা হয়। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ থেকে সরকারি কোম্পানিগুলোর ক্রয় ক্ষমতা কমানোর সুপারিশ করা হয়েছিল।

এক্ষেত্রে কোম্পানিগুলো নির্দিষ্ট পরিমাণের বাইরে কোনো কেনাকাটা করতে পারবেন না বলে সুপারিশ করেছিল তারা। ক্যাটাগরি অনুযায়ী ৫০০, ২০০ ও ৫০ কোটি টাকার বেশি ক্রয় করতে হলে সংশ্লিষ্ট কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদকে মন্ত্রিসভা কমিটির অনুমোদন নেওয়ার প্রস্তাব করেছিল।
বৈঠকে বলা হয়েছে, কোম্পানিগুলোর পরিচালনা পর্ষদের বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আহ্বান করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X