মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৯:৫৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, May 13, 2017 11:34 pm
A- A A+ Print

২০০০ টাকা ঋণ নিতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার!

photo-1494693758

পাবনার আটঘরিয়া উপজেলায় এক তরুণী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে চারজনকে  গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন আটঘরিয়ার হাপানিয়া গ্রামের জনাব আলী (৩৮), বেরুয়ান গ্রামের আমিরুল ইসলাম (২২), বংশীপাড়া গ্রামের কাউসার আলী (২৫) ও দিয়ারপাড়া গ্রামের আনারুল ইসলাম (২২)। তাঁদের আদালতের মাধ্যমে পাবনা জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম জানান, চার বছর আগে দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার ওই তরুণীর (২০) সঙ্গে পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার এক যুবকের বিয়ে হয়। সংসার জীবনে তাঁদের বনিবনা না হওয়ায় একপর্যায়ে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। এরপর আটঘরিয়ার হাপানিয়া গ্রামের জনাব আলীর সঙ্গে ওই তরুণীর মাঝেমধ্যে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কথা হয়। একপর্যায়ে ওই তরুণী তাঁর কাছে দুই হাজার টাকা ধার চান। জনাব আলী এই সুযোগে গতকাল শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টার সময় তাঁকে মুলাডুলি বাজারে আসতে বলেন। তিনি মুলাডুলি বাজারে গেলে সেখান থেকে জনাব আলী ও তাঁর লোকজন তাঁকে মোটরসাইকেলে করে আটঘরিয়ার মাজপাড়া ইউনিয়নের খিদিরপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ডাঙ্গাপাড়া মাঠের ভেতর বাবুর কলাবাগানে নিয়ে যান। রাত সাড়ে ৯টার দিকে জনাব আলী, আমিরুল ইসলাম, কাউসার আলী ও আনারুল ইসলাম তাঁকে ধর্ষণ করেন। ওসি আরো জানান, পরদিন ভোররাত ৪টার দিকে ওই তরুণীর অবস্থার অবনতি হলে আসামিরা অটোবাইকে তাঁকে চাটমোহর নেওয়ার চেষ্টা করেন। পথে কড়ইতলা নামক স্থানে পুলিশের তল্লাশির সময় উপপরিদর্শক (এসআই) ইমতিয়াজুল আলম, এসআই মীর রায়হান সিদ্দিক, এএসআই জামিনুর রহমান, আউয়াল হোসাইন, রফিকুল ইসলামসহ পুলিশ সদস্যদের অটোবাইকে লোকজন দেখে সন্দেহ হয়। তাঁরা সিগন্যাল দিয়ে অটোবাইকটি থামিয়ে ওই তরুণীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তিনি বিষয়টি পুলিশ সদস্যদের খুলে বলেন। তাৎক্ষণিক আমিরুল ও আনারুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে বিশেষ অভিযান চালিয়ে জনাব আলী ও কাউসার আলীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ ব্যাপারে আটঘরিয়া থানায় একটি মামলা হয়েছে। ঘটনার পর ওই তরুণীকে উদ্ধার করে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে পুলিশ।

Comments

Comments!

 ২০০০ টাকা ঋণ নিতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার!AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

২০০০ টাকা ঋণ নিতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার!

Saturday, May 13, 2017 11:34 pm
photo-1494693758

পাবনার আটঘরিয়া উপজেলায় এক তরুণী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে চারজনকে  গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন আটঘরিয়ার হাপানিয়া গ্রামের জনাব আলী (৩৮), বেরুয়ান গ্রামের আমিরুল ইসলাম (২২), বংশীপাড়া গ্রামের কাউসার আলী (২৫) ও দিয়ারপাড়া গ্রামের আনারুল ইসলাম (২২)। তাঁদের আদালতের মাধ্যমে পাবনা জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম জানান, চার বছর আগে দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার ওই তরুণীর (২০) সঙ্গে পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার এক যুবকের বিয়ে হয়। সংসার জীবনে তাঁদের বনিবনা না হওয়ায় একপর্যায়ে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। এরপর আটঘরিয়ার হাপানিয়া গ্রামের জনাব আলীর সঙ্গে ওই তরুণীর মাঝেমধ্যে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কথা হয়। একপর্যায়ে ওই তরুণী তাঁর কাছে দুই হাজার টাকা ধার চান। জনাব আলী এই সুযোগে গতকাল শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টার সময় তাঁকে মুলাডুলি বাজারে আসতে বলেন। তিনি মুলাডুলি বাজারে গেলে সেখান থেকে জনাব আলী ও তাঁর লোকজন তাঁকে মোটরসাইকেলে করে আটঘরিয়ার মাজপাড়া ইউনিয়নের খিদিরপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ডাঙ্গাপাড়া মাঠের ভেতর বাবুর কলাবাগানে নিয়ে যান। রাত সাড়ে ৯টার দিকে জনাব আলী, আমিরুল ইসলাম, কাউসার আলী ও আনারুল ইসলাম তাঁকে ধর্ষণ করেন।

ওসি আরো জানান, পরদিন ভোররাত ৪টার দিকে ওই তরুণীর অবস্থার অবনতি হলে আসামিরা অটোবাইকে তাঁকে চাটমোহর নেওয়ার চেষ্টা করেন। পথে কড়ইতলা নামক স্থানে পুলিশের তল্লাশির সময় উপপরিদর্শক (এসআই) ইমতিয়াজুল আলম, এসআই মীর রায়হান সিদ্দিক, এএসআই জামিনুর রহমান, আউয়াল হোসাইন, রফিকুল ইসলামসহ পুলিশ সদস্যদের অটোবাইকে লোকজন দেখে সন্দেহ হয়। তাঁরা সিগন্যাল দিয়ে অটোবাইকটি থামিয়ে ওই তরুণীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তিনি বিষয়টি পুলিশ সদস্যদের খুলে বলেন। তাৎক্ষণিক আমিরুল ও আনারুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে বিশেষ অভিযান চালিয়ে জনাব আলী ও কাউসার আলীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ ব্যাপারে আটঘরিয়া থানায় একটি মামলা হয়েছে।

ঘটনার পর ওই তরুণীকে উদ্ধার করে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে পুলিশ।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X