রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৯:৫৯
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, December 25, 2016 5:29 pm | আপডেটঃ December 25, 2016 7:28 PM
A- A A+ Print

২৮ ঘন্টা পার হলেও উদ্ধার হয়নি শিশু জঙ্গি শহীদ ওরফে আফিফ কাদেরীর লাশ, ১৩ গ্রেনেড উদ্ধারের দাবি পুলিশের

bomb-disposal

ঢাকা:  রাজধানীর আশকোনার ‘সূর্য ভিলা’ নামের জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালিয়ে ১৩টি তাজা গ্রেনেড পেয়েছে পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিট। এছাড়াও ঘরের মেঝেতে এক কিশোরের লাশ ও অস্ত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের ডিসি প্রলয় কুমার জোয়ার্দার। তবে পুলিশ এখনো পর্যন্ত একটি ঘরে ঢুকতে পারেনি বলে তিনি জানান। রবিবার বিকেলে সাড়ে চারটার সময় বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিটের প্রধান এডিসি ছানোয়ার হোসেন জানান, বেলা ২টা ৪৮ মিনিট থেকে ৩টা ৫৮ পর্যন্ত সুসাইডাল ভেস্টের ১০টি গ্রেনেড নিস্ক্রিয় করা হয়েছে। এর মধ্যে একটি ভেস্টে ৬ ও অন্যটিতে ৪টি গ্রেনেড ছিল। images-2আগে আটক শীদ ওরফে আফিফ কাদেরীর জমজ ভাই   তাহরীম কাদেরী রাসেল শ্বাসরুদ্ধকর ১৬ ঘণ্টার জঙ্গিবিরোধী এ অভিযান শনিবার শেষ হলেও ওই বাড়িতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা অসংখ্য তাজা গ্রেনেড, বোমা, অস্ত্র ও রাসায়নিক পদার্থ নিষ্ক্রিয় করার জন্য রবিবার সকাল ১১টার দিকে ঘটনাস্থলে আসে বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিট। সকাল সোয়া ১১টার দিকে ফায়ার সার্ভিসকর্মী, বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিট ও সিআইডির ক্রাইমসিন বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করে। তবে ঘরের ভেতর প্রচণ্ড গ্যাস থাকায় তারা বাধাগ্রস্ত হন। পরে ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা দুটি স্মোকিং ইজেকটর নিয়ে ঘরের ভেতরের গ্যাস বের করার কাজ শুরু করে। এতে ঘরের ভেতর এক প্রান্ত দিয়ে ভালো বাতাস ঢোকানো এবং অন্য প্রান্ত দিয়ে দূষিত বাতাস বের করে দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়। উত্তরা ফায়ার স্টেশনের জ্যেষ্ঠ স্টেশন অফিসার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম জানান, গতকাল শনিবার অভিযান চলাকালে ছোড়া গ্যাস ও গ্রেনেড বিস্ফোরণের ঝাঁজ ঘরটিতে জমেছিল। গ্যাস বের করার কাজ আপাতত শেষ। ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট এখনো ঘটনাস্থলে আছে। এডিসি সানোয়ার হোসেন জানান, সুইসাইডাল ভেস্ট কোনো কারণে বিস্ফোরিত হলে এ বিল্ডিং ধসে যেতে পারে। এজন্য সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে এগুলো সরানোর চেষ্টা করা হয়। এছাড়া ভেতরে ছোটখাটো আরো অনেক অস্ত্র দেখা গেছে। উল্লেখ্য, শনিবার রাজধানীর পূর্ব আশকোনার জঙ্গি আস্তানায় পুলিশি অভিযানের সময় আত্মঘাতী গ্রেনেড বিস্ফোরণ ও গুলিতে দু’জন নিহত হয়। শুক্রবার রাত ১২টা থেকে শনিবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত ১৭ ঘণ্টার এ অভিযানে আত্মসমর্পণ করে দুই শিশু সন্তানসহ দুই নারী। তারা হচ্ছে- সেনাবাহিনী থেকে বরখাস্ত হওয়া মেজর জাহিদ ওরফে মুরাদের স্ত্রী জেবুন্নাহার শিলা ও তার সন্তান (নাম অজ্ঞাত)। আরেকজন হচ্ছে জঙ্গি মুসার স্ত্রী তৃষ্ণা ও তার সন্তান (নাম অজ্ঞাত)। ১৭ ঘণ্টা অভিযানের পর শনিবার বিকাল ৫টায় সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়। সন্ধ্যায় নিহত নারী জঙ্গির লাশ উদ্ধার করে ঢামেক মর্গে পাঠানো হলেও ভবনের ভেতরে বিস্ফোরক থাকায় আদরের লাশ উদ্ধার করা হয়নি।

Comments

Comments!

 ২৮ ঘন্টা পার হলেও উদ্ধার হয়নি শিশু জঙ্গি শহীদ ওরফে আফিফ কাদেরীর লাশ, ১৩ গ্রেনেড উদ্ধারের দাবি পুলিশেরAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

২৮ ঘন্টা পার হলেও উদ্ধার হয়নি শিশু জঙ্গি শহীদ ওরফে আফিফ কাদেরীর লাশ, ১৩ গ্রেনেড উদ্ধারের দাবি পুলিশের

Sunday, December 25, 2016 5:29 pm | আপডেটঃ December 25, 2016 7:28 PM
bomb-disposal

ঢাকা:  রাজধানীর আশকোনার ‘সূর্য ভিলা’ নামের জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালিয়ে ১৩টি তাজা গ্রেনেড পেয়েছে পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিট। এছাড়াও ঘরের মেঝেতে এক কিশোরের লাশ ও অস্ত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের ডিসি প্রলয় কুমার জোয়ার্দার।

তবে পুলিশ এখনো পর্যন্ত একটি ঘরে ঢুকতে পারেনি বলে তিনি জানান।

রবিবার বিকেলে সাড়ে চারটার সময় বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিটের প্রধান এডিসি ছানোয়ার হোসেন জানান, বেলা ২টা ৪৮ মিনিট থেকে ৩টা ৫৮ পর্যন্ত সুসাইডাল ভেস্টের ১০টি গ্রেনেড নিস্ক্রিয় করা হয়েছে। এর মধ্যে একটি ভেস্টে ৬ ও অন্যটিতে ৪টি গ্রেনেড ছিল।

images-2আগে আটক শীদ ওরফে আফিফ কাদেরীর জমজ ভাই

 

তাহরীম কাদেরী রাসেল

শ্বাসরুদ্ধকর ১৬ ঘণ্টার জঙ্গিবিরোধী এ অভিযান শনিবার শেষ হলেও ওই বাড়িতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা অসংখ্য তাজা গ্রেনেড, বোমা, অস্ত্র ও রাসায়নিক পদার্থ নিষ্ক্রিয় করার জন্য রবিবার সকাল ১১টার দিকে ঘটনাস্থলে আসে বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিট।

সকাল সোয়া ১১টার দিকে ফায়ার সার্ভিসকর্মী, বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিট ও সিআইডির ক্রাইমসিন বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করে। তবে ঘরের ভেতর প্রচণ্ড গ্যাস থাকায় তারা বাধাগ্রস্ত হন। পরে ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা দুটি স্মোকিং ইজেকটর নিয়ে ঘরের ভেতরের গ্যাস বের করার কাজ শুরু করে। এতে ঘরের ভেতর এক প্রান্ত দিয়ে ভালো বাতাস ঢোকানো এবং অন্য প্রান্ত দিয়ে দূষিত বাতাস বের করে দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়।

উত্তরা ফায়ার স্টেশনের জ্যেষ্ঠ স্টেশন অফিসার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম জানান, গতকাল শনিবার অভিযান চলাকালে ছোড়া গ্যাস ও গ্রেনেড বিস্ফোরণের ঝাঁজ ঘরটিতে জমেছিল। গ্যাস বের করার কাজ আপাতত শেষ। ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট এখনো ঘটনাস্থলে আছে।

এডিসি সানোয়ার হোসেন জানান, সুইসাইডাল ভেস্ট কোনো কারণে বিস্ফোরিত হলে এ বিল্ডিং ধসে যেতে পারে। এজন্য সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে এগুলো সরানোর চেষ্টা করা হয়। এছাড়া ভেতরে ছোটখাটো আরো অনেক অস্ত্র দেখা গেছে।

উল্লেখ্য, শনিবার রাজধানীর পূর্ব আশকোনার জঙ্গি আস্তানায় পুলিশি অভিযানের সময় আত্মঘাতী গ্রেনেড বিস্ফোরণ ও গুলিতে দু’জন নিহত হয়।

শুক্রবার রাত ১২টা থেকে শনিবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত ১৭ ঘণ্টার এ অভিযানে আত্মসমর্পণ করে দুই শিশু সন্তানসহ দুই নারী। তারা হচ্ছে- সেনাবাহিনী থেকে বরখাস্ত হওয়া মেজর জাহিদ ওরফে মুরাদের স্ত্রী জেবুন্নাহার শিলা ও তার সন্তান (নাম অজ্ঞাত)। আরেকজন হচ্ছে জঙ্গি মুসার স্ত্রী তৃষ্ণা ও তার সন্তান (নাম অজ্ঞাত)।

১৭ ঘণ্টা অভিযানের পর শনিবার বিকাল ৫টায় সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়। সন্ধ্যায় নিহত নারী জঙ্গির লাশ উদ্ধার করে ঢামেক মর্গে পাঠানো হলেও ভবনের ভেতরে বিস্ফোরক থাকায় আদরের লাশ উদ্ধার করা হয়নি।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X