বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৩:৩৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, September 2, 2016 4:34 pm
A- A A+ Print

৭১’র পর এত খারাপ সময় আর আসেনি : মির্জা ফখরুল

photo-1472810472

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নিজেদের ফাঁদে নিজেরাই পড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে শুক্রবার দুপুরে বাংলাদেশ ছাত্র ফোরাম ও উত্তরাঞ্চল ছাত্র ফোরাম আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। জঙ্গিবাদ সন্ত্রাসীর সঙ্গে বিএনপি জড়িত নয় দাবি করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘নিজেদের ষড়যন্ত্রের ফাঁদে আওয়ামী লীগ নিজেরাই পড়েছে। কারণ জঙ্গি বলতে বলতে সত্যি জঙ্গি এসে পড়েছে। এখন তুমি আওয়ামী লীগ যাবে কোথায়?’ বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আওয়ামী লীগ স্বাধীনতা যুদ্ধ ও গণতন্ত্রের নেতৃত্ব দিয়েছে। এ কথা অস্বীকার করার মতো কিছু নেই। কিন্তু এই আওয়ামী লীগ রাষ্ট্র ক্ষমতায় এলেই তাদের চেহারা পরিবর্তন করে ফ্যাসিবাদি কায়দায় জনগণের ওপর নির্যাতন করে। যেমন রক্ষীবাহিনী তৈরি করে ৭১ থেকে ৭৫ পর্যন্ত জনগণকে নির্যাতন করেছে। আর এখন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে করছে।’ প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, বিএনপি কী কারণে জঙ্গি ও সন্ত্রাসের দল? বিএনপি কোনো জঙ্গিবাদের দল নয়। বিএনপি একটি গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল। তাই বিএনপি থাকলে দেশে গণতন্ত্র থাকবে।’ অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আজ বিভিন্ন মিথ্যা মামলায় বিএনপির নেতাদের ফাঁসি দেওয়া হচ্ছে। নেতাদের সাজা দেওয়ার নতুন ট্রাইব্যুনাল করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে তারেক রহমানকে সাজা দেওয়া হয়েছে। আর খালেদা জিয়াকে সাজা দেওয়ার জন্য চক্রান্ত চলছে। কিন্তু আমরা এটা মেনে নেব না। সংগঠনকে শক্তিশালী করে জনগণকে সম্পৃক্ত করে আমরা এর প্রতিরোধ করব।’ দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘অযথা শ্লোগান দিয়ে সময় নষ্ট করবেন না। এই মিলনায়তনের মধ্যে কথা বলে তারেক রহমানকে মুক্ত করা যাবে না। মিটিং এসেই উত্তর- দক্ষিণ, অমুক ভাই, তমক ভাই বলে শ্লোগান দেই। কিন্তু আমরা বর্তমান খারাপ সময়ে আছি। ৭১’র পর এত খারাপ সময় আর আসেনি। তাই একটা সভা ও ইফতার করে তারেককে মুক্ত করা যাবে না। সংগঠনকে শক্তিশালী করে গ্রাম- গঞ্জে ছড়িয়ে পড়ে জনগণ নিয়য়ে রাজপথে নামতে হবে। কারণ জনগণের সম্পৃক্ত ছাড়া কোনো কিছু সম্ভব নয়।’ বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা গাজী মাজহারুল আনোয়ার, হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপির শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ডা. ওবাইদুর রহমান, আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল সহ দলীয় নেতাকর্মীরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Comments

Comments!

 ৭১’র পর এত খারাপ সময় আর আসেনি : মির্জা ফখরুলAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

৭১’র পর এত খারাপ সময় আর আসেনি : মির্জা ফখরুল

Friday, September 2, 2016 4:34 pm
photo-1472810472

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নিজেদের ফাঁদে নিজেরাই পড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে শুক্রবার দুপুরে বাংলাদেশ ছাত্র ফোরাম ও উত্তরাঞ্চল ছাত্র ফোরাম আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

জঙ্গিবাদ সন্ত্রাসীর সঙ্গে বিএনপি জড়িত নয় দাবি করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘নিজেদের ষড়যন্ত্রের ফাঁদে আওয়ামী লীগ নিজেরাই পড়েছে। কারণ জঙ্গি বলতে বলতে সত্যি জঙ্গি এসে পড়েছে। এখন তুমি আওয়ামী লীগ যাবে কোথায়?’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আওয়ামী লীগ স্বাধীনতা যুদ্ধ ও গণতন্ত্রের নেতৃত্ব দিয়েছে। এ কথা অস্বীকার করার মতো কিছু নেই। কিন্তু এই আওয়ামী লীগ রাষ্ট্র ক্ষমতায় এলেই তাদের চেহারা পরিবর্তন করে ফ্যাসিবাদি কায়দায় জনগণের ওপর নির্যাতন করে। যেমন রক্ষীবাহিনী তৈরি করে ৭১ থেকে ৭৫ পর্যন্ত জনগণকে নির্যাতন করেছে। আর এখন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে করছে।’

প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, বিএনপি কী কারণে জঙ্গি ও সন্ত্রাসের দল? বিএনপি কোনো জঙ্গিবাদের দল নয়। বিএনপি একটি গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল। তাই বিএনপি থাকলে দেশে গণতন্ত্র থাকবে।’

অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আজ বিভিন্ন মিথ্যা মামলায় বিএনপির নেতাদের ফাঁসি দেওয়া হচ্ছে। নেতাদের সাজা দেওয়ার নতুন ট্রাইব্যুনাল করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে তারেক রহমানকে সাজা দেওয়া হয়েছে। আর খালেদা জিয়াকে সাজা দেওয়ার জন্য চক্রান্ত চলছে। কিন্তু আমরা এটা মেনে নেব না। সংগঠনকে শক্তিশালী করে জনগণকে সম্পৃক্ত করে আমরা এর প্রতিরোধ করব।’

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘অযথা শ্লোগান দিয়ে সময় নষ্ট করবেন না। এই মিলনায়তনের মধ্যে কথা বলে তারেক রহমানকে মুক্ত করা যাবে না। মিটিং এসেই উত্তর- দক্ষিণ, অমুক ভাই, তমক ভাই বলে শ্লোগান দেই। কিন্তু আমরা বর্তমান খারাপ সময়ে আছি। ৭১’র পর এত খারাপ সময় আর আসেনি। তাই একটা সভা ও ইফতার করে তারেককে মুক্ত করা যাবে না। সংগঠনকে শক্তিশালী করে গ্রাম- গঞ্জে ছড়িয়ে পড়ে জনগণ নিয়য়ে রাজপথে নামতে হবে। কারণ জনগণের সম্পৃক্ত ছাড়া কোনো কিছু সম্ভব নয়।’

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা গাজী মাজহারুল আনোয়ার, হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপির শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ডা. ওবাইদুর রহমান, আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল সহ দলীয় নেতাকর্মীরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X