বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৮:৩৭
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, October 24, 2016 12:49 pm
A- A A+ Print

157487_1

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার মুন্দিরপুর গ্রামে ভগ্নিপতিকে গাছের সঙ্গে বেঁধে এক তরুণীকে রাতভর গণধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
 এ ঘটনার পর বিচার-সালিশের আশ্বাস দিয়ে ওই তরুণীকে রাজধানী ঢাকায় পাঠিয়ে দেয়া হয়। ঘটনার তিন দিন পর চিকিৎসা শেষে রবিবার বিকালে ওই তরুণী সোনারগাঁ থানায় এসে পুলিশের কাছে ঘটনার লোমহর্ষক বর্ণনা দেন।
সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহ্ মো. মঞ্জুর কাদের পিপিএম জানান, এ ঘটনার পর সোনারগাঁ থানা পুলিশের একাধিক টিম রবিবার সন্ধ্যায় মুন্দিরপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঘটনার মূল হোতা মাদকসেবী ও বখাটে যুবক সেলিম ও আজিজুলকে আটক করে। এ প্রতিবেদন লেখার সময় সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের মুন্দিরপুর গ্রামে বসবাসরত নূর মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া স্বপনের ভাড়া বাসায় গত বৃহস্পতিবার বিকালে তার মামা আলম মিয়া রাজধানী ঢাকার ডেমরা থেকে বেড়াতে যান।   আলম মিয়ার সঙ্গে তার শ্যালিকাও বেড়াতে যায়। বাড়িতে ওইসময় স্বপন উপস্থিত না থাকলেও তার স্ত্রী সাহেদা বেগম উপস্থিত ছিলেন। আলম মিয়া ও তার শ্যালিকার মুন্দিরপুর গ্রামে স্বপনের ভাড়া বাসায় বেড়াতে যাওয়ার বিষয়টি এলাকার কয়েকজন বখাটে যুবক ও মাদকসেবীদের নজরে আসে।   পরে ওইদিন মধ্যরাতে মাদকসেবী ও বখাটে যুবক সেলিমের নেতৃত্বে ডালিম, আজিজুল, আলমসহ ৭-৮ জনের একটি দল ওই বাড়িতে হানা দেয় এবং ওই তরুণীকে ঘর থেকে জোরপূর্বক তুলে মুন্দিরপুর কাঠবাগানে নিয়ে যায়।   এসময় ওই তরুণীর দুলাভাই আলম মিয়া বিষয়টি টের পেয়ে বখাটেদের পিছু নিলে তারা তাকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে কাঠবাগানের ভেতর একটি গাছের সঙ্গে হাত-পা বেঁধে রাখে।   এসময় ওই বখাটেরা দুলাভাই আলমের সামনে শ্যালিকাকে রাতভর পালাক্রমে ধর্ষণ করে।   বিষয়টি পরেরদিন শুক্রবার সকালে এলাকায় জানাজানি হলে বখাটেরা স্থানীয় মাতব্বর আনোয়ার ও মঞ্জুরকে ম্যানেজ করে ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে।   পরে আনোয়ার ও মঞ্জুর রবিবার বিকাল ৩টায় সালিশের আয়োজন করে। কিন্তু ওই তরুণী শালিসে অংশগ্রহণ না করে সোনারগাঁ থানায় এসে বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করে।   এ ঘটনার পর রবিবার বিকালে সোনারগাঁ থানার দারোগা (এসআই) সাধন ও সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে একাধিক টিম মুন্দিরপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ধর্ষক সেলিম ও আজিজুলকে আটক করে।   গণধর্ষণের শিকার ওই তরুণী আদমজী ইপিজেডের একটি সেকশনে কর্মরত বলে জানা গেছে।   গ্রেপ্তারকৃত ধর্ষক সেলিম মুন্দিরপুর গ্রামের তোতা মিয়ার ছেলে ও আজিজুল একই গ্রামের আলী রহমানের ছেলে। নিজস্ব প্রতিনিধি

Comments

Comments!

 AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

Monday, October 24, 2016 12:49 pm
157487_1

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার মুন্দিরপুর গ্রামে ভগ্নিপতিকে গাছের সঙ্গে বেঁধে এক তরুণীকে রাতভর গণধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 এ ঘটনার পর বিচার-সালিশের আশ্বাস দিয়ে ওই তরুণীকে রাজধানী ঢাকায় পাঠিয়ে দেয়া হয়।

ঘটনার তিন দিন পর চিকিৎসা শেষে রবিবার বিকালে ওই তরুণী সোনারগাঁ থানায় এসে পুলিশের কাছে ঘটনার লোমহর্ষক বর্ণনা দেন।

সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহ্ মো. মঞ্জুর কাদের পিপিএম জানান, এ ঘটনার পর সোনারগাঁ থানা পুলিশের একাধিক টিম রবিবার সন্ধ্যায় মুন্দিরপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঘটনার মূল হোতা মাদকসেবী ও বখাটে যুবক সেলিম ও আজিজুলকে আটক করে।

এ প্রতিবেদন লেখার সময় সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের মুন্দিরপুর গ্রামে বসবাসরত নূর মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া স্বপনের ভাড়া বাসায় গত বৃহস্পতিবার বিকালে তার মামা আলম মিয়া রাজধানী ঢাকার ডেমরা থেকে বেড়াতে যান।

 

আলম মিয়ার সঙ্গে তার শ্যালিকাও বেড়াতে যায়। বাড়িতে ওইসময় স্বপন উপস্থিত না থাকলেও তার স্ত্রী সাহেদা বেগম উপস্থিত ছিলেন। আলম মিয়া ও তার শ্যালিকার মুন্দিরপুর গ্রামে স্বপনের ভাড়া বাসায় বেড়াতে যাওয়ার বিষয়টি এলাকার কয়েকজন বখাটে যুবক ও মাদকসেবীদের নজরে আসে।

 

পরে ওইদিন মধ্যরাতে মাদকসেবী ও বখাটে যুবক সেলিমের নেতৃত্বে ডালিম, আজিজুল, আলমসহ ৭-৮ জনের একটি দল ওই বাড়িতে হানা দেয় এবং ওই তরুণীকে ঘর থেকে জোরপূর্বক তুলে মুন্দিরপুর কাঠবাগানে নিয়ে যায়।

 

এসময় ওই তরুণীর দুলাভাই আলম মিয়া বিষয়টি টের পেয়ে বখাটেদের পিছু নিলে তারা তাকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে কাঠবাগানের ভেতর একটি গাছের সঙ্গে হাত-পা বেঁধে রাখে।

 

এসময় ওই বখাটেরা দুলাভাই আলমের সামনে শ্যালিকাকে রাতভর পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

 

বিষয়টি পরেরদিন শুক্রবার সকালে এলাকায় জানাজানি হলে বখাটেরা স্থানীয় মাতব্বর আনোয়ার ও মঞ্জুরকে ম্যানেজ করে ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে।

 

পরে আনোয়ার ও মঞ্জুর রবিবার বিকাল ৩টায় সালিশের আয়োজন করে। কিন্তু ওই তরুণী শালিসে অংশগ্রহণ না করে সোনারগাঁ থানায় এসে বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করে।

 

এ ঘটনার পর রবিবার বিকালে সোনারগাঁ থানার দারোগা (এসআই) সাধন ও সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে একাধিক টিম মুন্দিরপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ধর্ষক সেলিম ও আজিজুলকে আটক করে।

 

গণধর্ষণের শিকার ওই তরুণী আদমজী ইপিজেডের একটি সেকশনে কর্মরত বলে জানা গেছে।

 

গ্রেপ্তারকৃত ধর্ষক সেলিম মুন্দিরপুর গ্রামের তোতা মিয়ার ছেলে ও আজিজুল একই গ্রামের আলী রহমানের ছেলে।

নিজস্ব প্রতিনিধি

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X